৩০ চৈত্র  ১৪২৭  মঙ্গলবার ১৩ এপ্রিল ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

চিনের সঙ্গে সংঘাতের আবহে ভারতে আসছেন মার্কিন প্রতিরক্ষা সচিব

Published by: Paramita Paul |    Posted: March 6, 2021 4:08 pm|    Updated: March 6, 2021 4:09 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: প্রাক্তন মার্কিন প্রসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সখ্যতা সর্বজনবিদিত। ট্রাম্পের শাসনকালে প্রতিরক্ষা ক্ষেত্রে ভারত-আমেরিকার সম্পর্ক মজবুত হয়েছে। চিনা আগ্রাসনের বিরুদ্ধে ভারতের পক্ষে দাঁড়িয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র (US)। সেই সম্পর্ককে আরও মজবুত করতে তাৎপর্যপূর্ণ পদক্ষেপ করল আমেরিকা।

চলতি মাসের শেষে ভারতে আসছেন মার্কিন প্রতিরক্ষা সচিব জেনারেল (অবসরপ্রাপ্ত) লয়েড অস্টিন ( Defense general Lloyd Austin)। উল্লেখ্য, লয়েডই আমেরিকার প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ প্রতিরক্ষা সচিব। তাঁর সফরে দু’দেশের আগামী চার বছরের সম্পর্কের গতিপ্রকৃতি নির্ধারিত হবে। প্রতিরক্ষা ক্ষেত্রে ভারত মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের কৌশলী সহযোগী। সেই সম্পর্ককে আরও মজবুত করতে চায় আমেরিকার নবনির্বাচিত বাইডেন প্রশাসন। নির্বাচিত হওয়ার দু’মাসের মধ্যে ভারতে তাদের প্রতিরক্ষা সচিবকে পাঠাচ্ছে সংশ্লিষ্ট প্রশাসন।

[আরও পড়ুন : পাক সংসদে বিরোধীদের ধাক্কা, আস্থা ভোটে জয়ী প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান]

সূত্রের খবর, এই সফর চলাকালীন লয়েডের সঙ্গে বৈঠকে করবেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং। মার্কিন প্রতিরক্ষা সচিবের সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন চিফ অফ ডিফেন্স স্টাফ বিপিন রাওয়াত-সহ তিন বাহিনীর প্রধান। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ভারত সফর অন্যান্য বিষয়ের নিরিখেও বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ। কারণ, ভারত-চিনের মধ্যে সীমান্ত সমস্যা নিয়ে উত্তেজনার আগুন ধিকিধিকি করে চলছে। যদিও পূর্ব লাদাখ থেকে সেনা প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত নিয়েছে দুদেশেই। কিন্তু বাকি অংশ নিয়ে সমস্যা এখনও মেটেনি। বরং চিনের সেনার সঙ্গে চোখে চোখ রেখে জবাব দিচ্ছে ভারতীয় সেনায এমন পরিস্থিতিতে মার্কিন প্রতিরক্ষা সচিবের ভারত সফর অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ বলে মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল। লয়েড অস্টিন কী বার্তা দেন, সে দিকে তাকিয়ে গোটা বিশ্ব। 

প্রায় ১১ মাস ধরে পূর্ব লাদাখে (Eastern Ladakh) মুখোমুখি ভারত ও চিনের সেনাবাহিনী। গালওয়ান উপত্যকায় সংঘর্ষের পর পরিস্থিতি সবচেয়ে জটিল হয়ে ওঠে প্যাংগং হ্রদ সংলগ্ন ফিঙ্গার এলাকাগুলিতে। সেখানেই অল্পের জন্য যুদ্ধের হাত থেকে রক্ষা পায় পরমাণু শক্তিধর দুই দেশ। এমন পরিস্থিতিতে ভারতের পাশে দাঁড়িয়েছে আমেরিকা। এই পরিস্থিতি মার্কিন প্রতিরক্ষা সচিবে ভারত সফর নিসন্দেহে গুরুত্বপূর্ণ। 

[আরও পড়ুন : আঁধারে ডুবল মায়ানমার, ফের পুলিশের গুলিতে নিহত বিক্ষোভকারী]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement