১১ আষাঢ়  ১৪২৬  বুধবার ২৬ জুন ২০১৯ 

BREAKING NEWS

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার
বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ

১১ আষাঢ়  ১৪২৬  বুধবার ২৬ জুন ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দ্বিতীয় দফায় প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর নরেন্দ্র মোদির এটি প্রথম বিদেশ সফর। শনিবার যাচ্ছেন মালদ্বীপ। রবিবার শ্রীলঙ্কা সফর শেষে দেশে ফিরবেন তিনি। দুই দেশের জন্যই একগুচ্ছ উপহারের ডালি নিয়ে যাচ্ছেন মোদি।

[একসঙ্গে উধাও ১৪ টি সিংহ, আতঙ্ক আফ্রিকার ক্রুগার ন্যাশনাল পার্কে]

বিদেশমন্ত্রী এস জয়শংকরের ভাষায়, প্রতিবেশীদের প্রাধান্য দেওয়ার নীতিতেই এই কূটনৈতিক দৌত্য। দ্বিতীয় মোদি সরকারের ঘোষিত নীতিই হল, প্রতিবেশীদের অগ্রাধিকার। কিন্তু পাকিস্তানের আবেদনে সাড়া দিয়ে তাদের সঙ্গে আলোচনায় বসাটা এই নীতির মধ্যে যে একেবারেই পড়ছে না তাও সাফ জানিয়ে দিয়েছেন জয়শংকর। কারণ সীমান্তপারের সন্ত্রাসে মদত ও জঙ্গি রপ্তানি করাটা পাকিস্তান এখনও থামায়নি। তাই নিজেদের অবস্থান বদলে পাকিস্তানের সঙ্গে আলোচনায় বসার কথা ভারত যে ভাবছেই না তাও জানিয়ে দিয়েছেন নয়া বিদেশমন্ত্রী। তাহলে দ্বিতীয় মোদি সরকার কী চাইছে?

জয়শংকর জানিয়েছেন, প্রতিবেশীদের সুখ-দুঃখ অভাব, অভিযোগ শুনে তাদের সমস্যা সমাধান করার আপ্রাণ চেষ্টা করছে ভারত সরকার। চিনের সঙ্গে সম্পর্ক আরও বন্ধুত্বপূর্ণ এবং মজবুত করাটা হল দ্বিতীয় গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। প্রথম গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হল, বাংলাদেশ, নেপাল, শ্রীলঙ্কা, মালদ্বীপ, ভুটানের মতো প্রতিবেশীরা, যাদের অর্থনীতি, সমাজ, জাতীয় নীতি প্রায় সবটাই ভারত নির্ভর ও ভারত কেন্দ্রিক তাদের দিকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে আরও কাছে নিয়ে আসা।

তাই কূটনৈতিক দৌত্যের প্রথম পর্যায়ে নরেন্দ্র মোদি দ্বিতীয়বার প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর তাঁর প্রথম বিদেশ সফরে যাচ্ছেন মালদ্বীপে। মোদি-বন্ধু ও ভারতপন্থী মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট মহম্মদ সোলিহর আমন্ত্রণে মোদি যাচ্ছেন রাজধানী মালেতে। সেখানে তিনি নিয়ে যাচ্ছেন একগুচ্ছ উপহারের ডালি। মালদ্বীপের সঙ্গে কয়েকটি বিষয়ে পাকা চুক্তি হবে ভারতের। রাজনৈতিক সংঘর্ষ ও উত্তেজনায় গত কয়েক বছর ধরে টালমাটাল মালদ্বীপ। সাধারণ নির্বাচনের পর এখন সেখানে পরিস্থিতি অনেকটা স্থিতিশীল। তাই মোদি সঙ্গে প্রেসিডেন্ট সলিহ’র কয়েকটি ইস্যুতে চুক্তি ও মউ স্বাক্ষরিত হবে।

ছোট্ট দ্বীপরাষ্ট্র মালদ্বীপে নেই ভাল কোনও স্টেডিয়াম। সেখানে একটি বিশ্বমানের ক্রিকেট স্টেডিয়াম ও স্পোর্টস কমপ্লেক্স তৈরি করতে আর্থিক সাহায্য দেবে ভারত। মালদ্বীপ থেকে ভারতের কেরল ও লাক্ষাদ্বীপের মধ্যে ফেরি সার্ভিস চালু হতে চলেছে দু—তিন মাসের মধ্যে। মালদ্বীপের সেনা ও নৌবাহিনীর জন্য উন্নতমানের প্রতিরক্ষা প্রশিক্ষণ কেন্দ্র তৈরি করে দেবে ভারত সরকার। সুনামি, সাইক্লোন, সামুদ্রিক ও প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের আগাম খবর জানতে ভারতের উদ্যোগে মালদ্বীপের উপকূলে বসানো হবে উন্নত রেডার সিস্টেম। পানীয় জল সমস্যা ও রোগ প্রতিরোধে মালদ্বীপের সরকারি কর্মীদের প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে কেরল ও তামিলনাড়ুতে। আগামী কয়েক বছরের মধ্যে এই প্রকল্পগুলি সম্পূর্ণ হবে।

রবিবার শ্রীলঙ্কায় গিয়ে সেখানে জঙ্গি হামলা বিধ্বস্ত কলম্বোর একটি গির্জা পরিদর্শনে যেতে পারেন মোদি। শ্রীলঙ্কায় ইসলামিক স্টেটের ভয়ংকর জঙ্গি হামলার পর এটাই কোনও ভারতীয় নেতার প্রথম সে দেশ সফর। কলম্বোর কাছে পশ্চিম উপকূলে জাপান ও ভারতের সহযোগিতায় একটি আন্তর্জাতিক মানের বহুমুখী বন্দর প্রকল্প গড়ে তোলা নিয়ে ভারতের সঙ্গে চুক্তি হবে শ্রীলঙ্কা সরকারের। চুক্তিতে স্বাক্ষর করবেন মোদি ও শ্রীলঙ্কার প্রধানমন্ত্রী। ত্রিপাক্ষিক ওই প্রকল্পে ভারতের সক্রিয় অংশীদারি থাকবে। এমনটাই জানিয়েছেন বিদেশসচিব বিজয় গোখেল।

[দুষ্প্রাপ্য হিমালয়ান ভায়াগ্রা খুঁজতে গিয়ে নেপালে মৃত এক শিশু-সহ ৮]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং