১৪ মাঘ  ১৪২৮  শুক্রবার ২৮ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

ফ্রান্সের নয়া ভ্যারিয়েন্ট IHU কতটা বিপজ্জনক? অবশেষে মুখ খুলল WHO

Published by: Kishore Ghosh |    Posted: January 8, 2022 7:25 pm|    Updated: January 8, 2022 9:51 pm

WHO's Comment on New Corona Variant IHU of France | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: হুড়মুড় করে বাড়ছে করোনা (Corona Virus) সংক্রমণ। সুপার স্প্রেডার হয়ে দেখা দিয়েছে ভাইরাসের নতুন স্ট্রেন ওমিক্রন (Omicron)। ইতিমধ্যে যার জেরে ভারত-সহ একাধিক দেশে আছড়ে পড়েছে তৃতীয় ঢেউ। এ রাজ্যেও লাফিয়ে বাড়ছে সংক্রমিতের সংখ্যা। এই অবস্থায় স্বস্তির কথা শোনাল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (WHO)। তাদের দাবি, সম্প্রতি ফ্রান্সে (France) ভাইরাসের যে নতুন স্ট্রেনের সন্ধান মিলেছে, তা ততখানি উদ্বেগজনক নয়।

কিছুদিন আগেই ফ্রান্সে B.1.640.2 বা IHU ভ্যারিয়েন্টের সন্ধান মিলেছিল।যার পর নতুন করে চিন্তায় পড়েছিলেন গোটা বিশ্বের স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা। যখন ওমিক্রনের দাপটে অর্ধেক বিশ্ব নাজেহাল, তখন নতুন ভ্যারিয়েন্ট না জানি কতখানি বিপজ্জনক, তা নিয়েই ছিল উদ্বেগ। এতদিন এই বিষয়ে মুখে কুলুপ এঁটেছিল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। এই বিষয়ে শেষ পর্যন্ত মুখ খুলল হু।

[আরও পড়ুন: নির্দেশ অমান্য করে কোভ্যাক্সিন ছাড়াও ১৫-১৮ বয়সিদের অন্য টিকা! সাবধান করল ভারত বায়োটেক]

হু-এর অন্যতম বিজ্ঞানী আবদি মাহমুদ জানিয়েছেন, ২০২১ সালের নভেম্বর মাস থেকে করোনার নয়া ভ্যারিয়েন্ট নিয়ে গবেষণা চালাচ্ছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। তিনি দাবি করেছেন, এই ভ্যারিয়েন্ট ততটা সংক্রমণ ছড়াচ্ছে না। তিনি জানিয়েছেন, ফ্রান্সে অধিকাংশ সংক্রমিতই ওমিক্রনে আক্রান্ত। সেখানে এখনও পর্যন্ত IHU-তে আক্রান্ত হয়েছেন মাত্র ২০ জন।

উল্লেখ্য, গত বছরের ডিসেম্বরের শেষের দিকে প্রথমবার করোনা ভাইরাসের এই নতুন ভ্যারিয়েন্টের হদিশ মেলে। ক্যামেরুন (Cameroon) থেকে ফ্রান্সে ফিরেছিলেন এক ব্যক্তি। তাঁর শরীরেই প্রথম এই ভ্যারিয়েন্টের খোঁজ পাওয়া যায়। যার পর নতুন করে কোভিড আতঙ্ক ছড়ায় গোটা বিশ্বে। যদিও লন্ডনের ভাইরোলজিস্ট অধ্যাপক টম পিককও জানিয়েছেন, IHU নিয়ে এখনও উদ্বেগের কারণ নেই।

[আরও পড়ুন: খুদেদের মধ্যে ৬৯.২% ভুগছে ওমিক্রনে, রাজ্য স্বাস্থ্যদপ্তরের দাবিতে উদ্বেগ]

প্রসঙ্গত, একদল বিশেষজ্ঞের মত, করোনার নতুন নতুন ভ্যারিয়েন্ট মাঝেমাঝেই দেখা যাবে। তবে সব ভ্যারিয়েন্টের সক্ষমতা একরকম নয়। একই কারণে ফ্রান্সের ভ্যারিয়েন্টটিকে নিয়ে আতঙ্কিত হতে বারণ করছেন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা।

এদিকে আজ রাজ্যের স্বাস্থ্য দপ্তরের একটি বিবৃতির পর শিশুদের নিয়ে উদ্বেগ বেড়েছে অভিভাবকদের। এদিন স্বাস্থ্যদপ্তর দাবি করেছে, বঙ্গে আক্রান্ত খুদেদের মধ্যে ৬৯.২ শতাংশই করোনার নয়া স্ট্রেন ওমিক্রনে ভুগছে। 

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে