৯ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৬  শুক্রবার ২৪ মে ২০১৯ 

BREAKING NEWS

Menu Logo নির্বাচন ‘১৯ দেশের রায় LIVE রাজ্যের ফলাফল LIVE বিধানসভা নির্বাচনের রায় মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার
নির্বাচন ‘১৯

৯ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৬  শুক্রবার ২৪ মে ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সুকুমার সরকার,ঢাকা:  ফণীর আতঙ্কে শুধু এপার বাংলাই নয়, কম্পমান ওপার বাংলাও৷ ক্যাটাগরি ফাইভ ঘূর্ণিঝড় শুক্রবারই বাংলাদেশের উপকূলীয় অঞ্চলে আছড়ে পড়ার আশঙ্কার কথা জানিয়েছেন আবহাওয়া দপ্তর৷ বলা হচ্ছে, গত ৪০ বছরের মধ্যে সবচেয়ে শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় হতে চলেছে ফণী৷ উপকূলের জেলা খুলনায় বৃহস্পতবিার সকাল থেকেই মেঘলা আবহাওয়া৷ নদীগুলিতে জোয়ারের জল স্বাভাবিকের চেয়ে অন্তত ৫ ফুট উপর দিয়ে বইছে৷ চরম আতঙ্কে ভাঙন কবলিত এলাকার মানুষজন৷

[ আরও পড়ুন : ফের হামলার হুঁশিয়ারি, বাংলায় নয়া ‘আমির’ নিয়োগ আইএসের]

ফণীর দাপটে ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে উপকূলীয় অঞ্চলের অন্তত ১৪টি জেলা৷ আবহাওয়া বিশেষজ্ঞদের মতে, শুক্রবার সকালে খুলনা উপকূলে আছড়ে পড়তে পারে ক্যাটাগরি ফাইভ লক্ষ্ণণযুক্ত ঘূর্ণিঝড়৷ আর সন্ধের দিকে তা দক্ষিণ-পশ্চিমের জেলাগুলিতে তাণ্ডব চালানোর আশঙ্কা৷ খুলনার মোংলা এবং পায়রা সমুদ্রবন্দরে জারি হয়েছে ৭ নং বিপদ সতর্কতা৷ নৌ পরিবহণ বন্ধ করার নির্দেশ দিয়েছে বাংলাদেশের অভ্যন্তরীণ নৌ চলাচল কর্তৃপক্ষ৷ সেনাপ্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদ আশ্বাস দিয়েছেন, ‘বাংলাদেশ উপকূলীয় এলাকা ঘেঁষে ধেয়ে আসা ঘূর্ণিঝড় ফণী মোকাবিলায় সেনাবাহিনীর চূড়ান্ত প্রস্তুতি রয়েছে৷ দপ্তরের সব কর্মী, আধিকারিকদের সাপ্তাহিত ছুটি বাতিল করা হয়েছে৷ উপকূলের জেলাগুলিতে ১৯টি কন্ট্রোল রুম খোলা হয়েছে৷ ৫৬ হাজার স্বেচ্ছাসেবীকে প্রস্তুত রাখা হয়েছে৷ এছাড়া বাংলাদেশের রেড ক্রিসেন্ট, সশস্ত্র বাহিনী, দমকল বাহিনীর তরফেও কন্ট্রোল রুম খোলা হয়েছে৷ শুধুমাত্র চট্টগ্রামেই খোলা হয়েছে ৭৪০টি আশ্রয় শিবির৷’

[ আরও পড়ুন : নুসরত খুনের তদন্তে অবহেলা, ৪ পুলিশ আধিকারিককে শাস্তির সুপারিশ তদন্তকারীদের]

দেশবাসীকে সচেতন করতে লাগাতার মাইকিং চলছে৷ আবহাওয়া দপ্তরের খবর অনুযায়ী, ইতিমধ্যেই সর্বোচ্চ ১৬০ কিলোমিটার বেগে বইছে হাওয়া৷ তার বেগ ১৮০ কিলোমিটার পর্যন্ত বাড়তে পারে৷ বৃহস্পতিবার সকাল ৯টা নাগাদ ফণীর অবস্থান ছিল চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দর থেকে মাত্র হাজার কিলোমিটার দূরত্বে, দক্ষিণ-পশ্চিম দিকে৷ এর আগেও একাধিকবার বাংলারদেশের উপকূল এলাকা একাধিক ঘূর্ণিঝড়ের সাক্ষী থেকেছে৷ ক্ষয়ক্ষতিও কম হয়নি সেখানে৷ বিশেষত চট্টগ্রাম, খুলনা জেলায় ক্ষতির পরিমাণ সবসময়েই বেশি হয়৷ সবমিলিয়ে, ফণীর আসন্ন আগমনে ওপার বাংলাও ত্রস্ত৷

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং