BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  শনিবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

করোনা আক্রান্তের নিরিখে কলকাতার পরই উঃ ২৪ পরগণা, চিন্তা বাড়াচ্ছে সুস্থতার নিম্নমুখী গ্রাফ

Published by: Sulaya Singha |    Posted: July 17, 2020 7:46 pm|    Updated: July 17, 2020 7:58 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: একদিনে সংক্রমণের রেকর্ড গড়ে শুক্রবারই ১০ লক্ষের গণ্ডি পেরিয়েছে দেশ। পাল্লা দিয়ে বেড়েছে মৃত্যুর সংখ্যাও। তাই এদিন বিভিন্ন রাজ্যেও যে সংক্রমিতের সংখ্যাটা উর্ধ্বমুখী হবে, তা আন্দাজ করাই গিয়েছিল। সেই আশঙ্কাই সত্যি হল। পুরনো সমস্ত রেকর্ড ভাঙল বাংলায়। একদিনে নোভেল করোনা ভাইরাসে (Coronavirus) আক্রান্ত প্রায় ১৯০০ জন।

শুক্রবার রাজ্য স্বাস্থ্যদপ্তরের তরফে জানানো হল, গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ১,৮৯৪ জন। যা এখনও পর্যন্ত সর্বোচ্চ। এর মধ্যে শুধু কলকাতাতেই একদিনে ৫৬৩ জনের শরীরে থাবা বসিয়েছে ভাইরাস। উদ্বেগ বাড়াচ্ছে দ্বিতীয় স্থানে থাকা উত্তর ২৪ পরগণাও। সেখানে একদিনে ৪৪৩ জনের শরীরে ভাইরাসের হদিশ পাওয়া গিয়েছে। এর জেরে রাজ্যে মোট আক্রান্ত বেড়ে দাঁড়াল ৩৮ হাজার ১১-এ। লাফিয়ে বাড়ছে অ্যাকটিভ কেসও। বর্তমানে কোভিড পজিটিভ সংখ্যাটা ১৪ হাজার ৭০৯। সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে আনা যাচ্ছে না বলে রাজ্যে বেড়ে চলেছে মৃত্যুর সংখ্যাও।

[আরও পড়ুন: সর্বকালীন রেকর্ড, উচ্চমাধ্যমিকে ৪৯৯ পেয়ে একসঙ্গে শীর্ষে চার, প্রশংসনীয় ফল বাঁকুড়ার]

স্বাস্থ্যদপ্তরের বুলেটিন অনুযায়ী, একদিনে করোনার বলি ২৬ জন। যার মধ্যে তিলোত্তমাতেই শুধু প্রাণ হারিয়েছেন ১২ জন। এখনও পর্যন্ত বাংলায় এই মারণ ভাইরাস কেড়ে নিয়েছে ১ হাজার ৪৯ জনের প্রাণ। অর্ধেকের বেশি মৃত্যু শুধু কলকাতাতেই (৫৪৯)। চিন্তার ভাঁজ চওড়া করছে সুস্থতার নিম্নমুখী হারও। একটা সময় যেখানে সুস্থতার হার প্রায় ৬৭ শতাংশে পৌঁছে গিয়েছিল, সেখানে এখন রাজ্যে সেই হার ৫৮.৫৪ শতাংশ। বর্তমানে করোনাজয়ীর থেকে আক্রান্তর সংখ্যা প্রায় দ্বিগুণ। এদিনের তথ্য অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাকে হারিয়ে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৮৩৮ জন। যার মধ্যে কলকাতায় সুস্থ ২৯১ জন। এখনও পর্যন্ত বাংলার মোট করোনাযোদ্ধা ২২ হাজার ২৫৩ জন।

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee) অবশ্য আগেই জানিয়েছিলেন, আগামী কয়েকদিন রাজ্যে আক্রান্তের সংখ্যা বাড়বে। আগামী দু’মাসে সংক্রমিতের সংখ্যা শিখরে পৌঁছতে পারে। কারণ করোনা রোগী চিহ্নিত করতে টেস্টের পরিমাণ বাড়ানো হবে। তাই আক্রান্তের সংখ্যাটাও উর্ধ্বমুখী হবে। সেই হিসেবই সত্যি হচ্ছে। উল্লেখযোগ্যভাবে বেড়েছে টেস্টিং। গত ২৪ ঘণ্টাতেই যেমন ১৩ হাজার ২৪০টি নমুনা টেস্ট হয়েছে। এখনও পর্যন্ত রাজ্যে ৬ লক্ষ ৭৬ হাজার ৩৪৮টি স্যাম্পেল টেস্ট করা হয়েছে।

[আরও পড়ুন: ‘মহিলার ফোন পেলেই সতর্ক হোন’, ‘তৃণমূলের ফাঁদ’ থেকে কর্মীদের বাঁচাতে পরামর্শ বিজেপি নেতার]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement