BREAKING NEWS

০৫ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  রবিবার ২২ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

বর্ধমান মেডিক্যালের কোভিড ওয়ার্ডে আগুন, প্রাণ গেল করোনা রোগীর

Published by: Sayani Sen |    Posted: January 29, 2022 8:19 am|    Updated: January 29, 2022 3:44 pm

A covid patient die as fire breaks out in Burdwan Medical College & Hospital । Sangbad Pratidin

অর্ক দে, বর্ধমান: বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালের (Burdwan Medial College & Hospital) কোভিড ওয়ার্ডে অগ্নিকাণ্ড। আগুনে ঝলসে প্রাণ গেল এক করোনা রোগীর। বাকিদের নিরাপদ স্থানে সরানো হয়েছে। আপাতত আগুন নিয়ন্ত্রণে। অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠন করেছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। 

বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালের রাধারানি ওয়ার্ডের ৬ নম্বর ব্লকে করোনা (Coronavirus) রোগীদের চিকিৎসা হয়। সেখানে বর্তমানে ২০-২৫ জন রোগী রয়েছেন। হাসপাতালে উপস্থিত অন্যান্য রোগীর আত্মীয়দের দাবি, শনিবার ভোর সাড়ে চারটে নাগাদ ওই কোভিড ওয়ার্ডটিতে আগুন লেগে যায়। প্রত্যক্ষদর্শীদের দাবি, দাউদাউ করে আগুন জ্বলতে থাকলেও হাসপাতালের কোনও কর্মী প্রথমে তা বুঝতে পারেননি। অন্য এক রোগী চিৎকার করতে থাকলে, অগ্নিকাণ্ডের বিষয়টি জানাজানি হয়। তবে ততক্ষণে আগুনে ঝলসে যান এক করোনা রোগী। তড়িঘড়ি আগুন নেভানোর কাজ শুরু হয়। অন্যান্য রোগীদের ওই ওয়ার্ড থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়। মাত্র কিছুক্ষণের মধ্যে আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে।

[আরও পড়ুন: গত ২৪ ঘণ্টায় ফের সামান্য ঊর্ধ্বমুখী কোভিড গ্রাফ, সংক্রমণের শীর্ষে কলকাতা]

তবে অগ্নিকাণ্ডে প্রাণ যায় এক করোনা রোগীর। সন্ধ্যা মণ্ডল নামে বছর ষাটের ওই করোনা রোগী গলসির বরমুড়িয়া গ্রামের বাসিন্দা। কীভাবে আগুন লাগল, তা নিয়ে তৈরি হয়েছে মতবিরোধ। দমকল কর্মীদের প্রাথমিক অনুমান, মশা মরার ধূপ থেকে আগুন লাগে। তবে প্রশ্ন উঠছে, করোনা ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন কোনও রোগীর সঙ্গে তাঁর আত্মীয় পরিজনকে দেখা করতে দেওয়া হচ্ছে না। সেক্ষেত্রে ওই মহিলা কীভাবে মশা মরার ধূপ পেলেন, তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন অন্যান্য রোগীর আত্মীয়রা।

এই ঘটনায় তদন্ত শুরু হয়েছে। পুরো বিষয়টি খতিয়ে দেখার জন্য ৫ সদস্যের তদন্ত কমিটিও গঠন করেছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। সুপার তাপস ঘোষ বলেন, “কোভিড ওয়ার্ডের একটি বেডে আগুন লাগে। মশারি খাটানো ছিল। হাসপাতাল কর্মীরা ছুটে যান। একদল আগুন নেভায়। আরেকদল অন্যান্য রোগীদের নিরাপদে অন্যত্র সরানোর বন্দোবস্ত করে। কারও গাফিলতিতে এই কাণ্ড যদি ঘটে তবে অবশ্যই অভিযুক্তের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।”  এদিকে, বর্ধমান মেডিক্যালে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় শুরু রাজনৈতিক চাপানউতোর। বিজেপির সর্বভারতীয় সহ সভাপতি দিলীপ ঘোষ রাজ্যের স্বাস্থ্যব্যবস্থা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। যদিও তার পালটা জবাব দেন তৃণমূল সাংসদ শান্তনু সেন। তিনি বলেন, “এটি একটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা। অত্যন্ত দুর্ভাগ্যজনক। দুর্ঘটনা নিয়ে রাজনীতি করা উচিত নয়।” 

দেখুন ভিডিও:

[আরও পড়ুন: সরকারি জমিতে থাকা ধর্মীয় কাঠামো সরাতে হবে, ৮ জেলাশাসককে নির্দেশ নবান্নের]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে