১২ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  শনিবার ২৮ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

গভীররাত পর্যন্ত সোশ্যাল মিডিয়ায় চ্যাট! বাজার করার নাম করে স্বামী-সন্তান ফেলে উধাও রিষড়ার বধূ

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: January 19, 2022 8:28 pm|    Updated: January 19, 2022 8:36 pm

A housewife of Hooghly missing from 12 january | Sangbad Pratidin

দিব্যেন্দু মজুমদার, হুগলি: প্রেম করে বিয়ে। ১৫ বছর সংসার করার পর উধাও বধূ। যোগাযোগ করা যাচ্ছে না মোবাইলেও। বালি কাণ্ডের পুনরাবৃত্তি এবার হুগলির রিষড়ায়। স্ত্রীর হদিশ পেতে পুলিশের দ্বারস্থ স্বামী।

হুগলির (Hooghly) রিষড়া মোড় পুকুর আদর্শনগর এলাকার বাসিন্দা কবিতা সিং নামে ওই বধূ। ১২ জানুয়ারি সকালে বাজার করার নামে বাড়ি থেকে বেরোন তিনি। তারপর আর ফেরেননি। পরিবারের লোকজন বহু জায়গায় খোঁজাখুঁজি করেও তার সন্ধান না পাওয়ায় গৃহবধূর স্বামী ধর্মেন্দ্র সিং রিষড়া থানায় একটি নিখোঁজ ডায়েরি করেন। পুলিশের প্রাথমিক তদন্তে অনুমান, সোশ্যাল মিডিয়ায় কারও সঙ্গে যোগাযোগ ছিল ওই গৃহবধূর। তার সঙ্গেই কোথাও চলে গিয়ে থাকতে পারেন কবিতা।

[আরও পড়ুন: ভিনধর্মের নাবালিকার সঙ্গে প্রেম-বিয়ে, শাশুড়ির লাগাতার অত্যাচারে মর্মান্তিক পরিণতি যুবকের!]

জানা গিয়েছে, ১৫ বছর আগে কোন্নগর চটকল এলাকার কবিতাকে ভালবেসে বিয়ে করেন ধর্মেন্দ্র। তাঁদের ১৩ বছরের একটি ছেলে ও ৬ বছরের একটি মেয়ে রয়েছে। ধর্মেন্দ্রর রিষড়া (Rishra) এলাকায় একটি ট্রাভেলিং এজেন্সি রয়েছে। স্ত্রী নিখোঁজ হওয়ার পর থেকেই মানসিকভাবে ভেঙে পড়েছেন ধর্মেন্দ্র। তিনি জানান, ছয় বছরের মেয়ে সারাদিন ধরে কেঁদে যাচ্ছে মায়ের জন্য। কী করে সামলাবেন ভেবে ভেবে কূলকিনারা পাচ্ছেন না। তিনি সোশ্যাল মিডিয়ায় স্ত্রীকে ফিরে আসার আবেদনও জানিয়েছেন। তাঁর থেকেই মিলেছে চাঞ্চল্যকর তথ্য। ধর্মেন্দ্র জানান, দীর্ঘ ১৫ বছরের বিবাহিত জীবনে স্ত্রীর সঙ্গে তার কোনও অশান্তি হয়নি। তবে কবিতা বেশ কিছুদিন ধরে কারও সঙ্গে অনেক রাত পর্যন্ত চ্যাট করত।

ধর্মেন্দ্রর সন্দেহ কারও প্ররোচনায় পা দিয়ে ঘর ছেড়েছে স্ত্রী। ধর্মেন্দ্রর আবেদন সন্তানদের মুখ চেয়ে যেন স্ত্রী ফিরে আসে। সেক্ষেত্রে স্ত্রী ফিরে এলে তিনি তাকে ঘরে ফিরিয়ে নেবেন। অন্যদিকে পুলিশ জানিয়েছে ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে। স্থানীয়রা জানান, ধর্মেন্দ্র অত্যন্ত ভাল ছেলে। গত তিন বছর ধরে করোনা (Coronavirus) পরিস্থিতিতে ব্যবসা ভাল চলছিল না ধর্মেন্দ্রর। তাই আর্থিক কিছু সমস্যার কারণে ওই গৃহবধূ বাড়ি ছেড়ে চলে যেতে পারেন। অন্যদিকে ঘটনার পর থেকেই ওই গৃহবধূর মোবাইলের সুইচ অফ থাকায় তার অবস্থান সম্পর্কে জানতে পারছে না পুলিশ। তবে পুলিশ জানিয়েছে, খুব শীঘ্রই ওই গৃহবধূর খোঁজ পাওয়া যাবে।

[আরও পড়ুন: এ কী কাণ্ড! মাটি খুঁড়তেই মিলছে শয়ে-শয়ে বন্দুক আর কার্তুজ, রহস্য বাড়ছে গোয়ালতোড়ে]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে