০২ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  বৃহস্পতিবার ১৯ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

বিমার ২০ লক্ষ টাকা আনতে গিয়ে ‘অপহৃত’ গ্রাহক, হাড়োয়া থানার দ্বারস্থ পরিবার

Published by: Sayani Sen |    Posted: July 17, 2020 2:13 pm|    Updated: July 17, 2020 2:15 pm

A man abducted in North 24 Paragana's Haroa

ছবি: প্রতীকী

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: স্ত্রীর মৃত্যু হয়েছে। তাঁর জীবন বিমার টাকা তুলতে গিয়েই অপহৃত স্বামী। এই ঘটনায় উত্তর ২৪ পরগনার বসিরহাট মহকুমার হাড়োয়া ব্লকের সোনাপুকুর শংকরপুর অঞ্চলের বাগানআটি গ্রামে ব্যাপক চাঞ্চল্য। ওই ব্যক্তির পরিবারের পক্ষ থেকে থানায় অপহরণের অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। এখনও নিখোঁজ ওই ব্যক্তিকে উদ্ধার করা যায়নি।

বাগানআটি গ্রামেরই বাসিন্দা হাসেম মোল্লা। পঞ্চাশোর্ধ্ব ওই ব্যক্তির স্ত্রী মানোয়ারা বিবি বছরদুয়েক আগে অগ্নিদগ্ধ হয়ে মারা যান। তাঁর ২০ লক্ষ টাকার একটি জীবন বিমা ছিল। সেই টাকা ফেরত পাওয়ার জন্য নিউটাউনের একটি সংস্থার সঙ্গে যোগাযোগ করেন ওই ব্যক্তি। সেখানেই অমিত বন্দ্যোপাধ্যায়, বিশ্বজিৎ ঘোষ এবং নেহা সেন নামে তিনজনের সঙ্গে তাঁর আলাপ হয়।

[আরও পড়ুন: রাস্তা থেকে উদ্ধার বিজেপি কর্মীর ক্ষতবিক্ষত দেহ, খুন নাকি দুর্ঘটনা? বাড়ছে ধোঁয়াশা]

পরিবারের অভিযোগ, ওই তিনজন ক্রমাগত হাসেম মোল্লাকে ঠকাতে থাকে। বিমার টাকা পাইয়ে দেওয়ার অছিলায় হাসেমের কাছ থেকে কমপক্ষে ১০ লক্ষ টাকা দিয়েছেন ব্যবসায়ী হাসেম। পরিবারের দাবি, গত ১৫ জুলাই তাঁকে বিমার টাকা নিতে আসার জন্য নিউটাউনের ওই সংস্থার তরফে ডাকা হয়। সেই অনুযায়ী হাসেম মোল্লা বাড়িতে দুই সন্তানকে রেখে নিউটাউনে আসেন। সেখান থেকে শেষবার মেয়েকে ফোনও করেন হাসেম। জানান, তাঁকে অপহরণ করা হয়েছে। এমনকী খুনের হুমকিও দেওয়া হচ্ছে। সন্তানদের সাবধানে থাকার কথাও বলেন তিনি। তারপর থেকে হাসেম মোল্লার ফোন সুইচড অফ। তাঁর আর কোনও খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না। তাই বাধ্য হয়ে হাড়োয়া থানায় অভিযোগ দায়ের করেন অপহৃত ব্যক্তির দুই সন্তান। অপহরণের এই ঘটনার সঙ্গে বড়সড় কোনও প্রতারণা চক্র জড়িত আছে বলেই অনুমান পুলিশ। হাসেমের সন্তানদের বয়ানের ভিত্তিতে তাঁকে খোঁজার চেষ্টা করছেন তদন্তকারীরা।

[আরও পড়ুন: লকডাউনে হিট রাজ্যের ‘সুফল বাংলা’ প্রকল্প, মাত্র তিন মাসে বাড়ল ১৩২টি স্টল]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে