BREAKING NEWS

২১ আষাঢ়  ১৪২৭  সোমবার ৬ জুলাই ২০২০ 

Advertisement

অ্যাপ ডাউনলোডেই লক্ষ্মীলাভ! হাতছানিতে সাড়া দিয়ে ৪০ হাজার টাকা খোয়ালেন বর্ধমানের বাসিন্দা

Published by: Sayani Sen |    Posted: June 17, 2020 2:32 pm|    Updated: June 17, 2020 2:32 pm

An Images

ছবি: প্রতীকী

সৌরভ মাজি, বর্ধমান: করোনা (Corona Virus) সংক্রমণের আশঙ্কায় খুব প্রয়োজন ছাড়া বাড়ি থেকে বেরনো বারণ। তাই বেশিরভাগ মানুষই এখনও ডিজিটাল লেনদেনের উপরেই ভরসা রাখছেন। তার ব্যতিক্রম নন বর্ধমানের সরাইটিকরের বাসিন্দা রমজান আলিও। ভেবেছিলেন বাড়িতে বসেই বিদ্যুতের বিল মিটিয়ে দেবেন তিনি। তবে তাতেই পড়লেন বিপাকে। বিল মেটাতে গিয়ে অনলাইন প্রতারণার শিকার হয়ে ৪০ হাজার টাকা খোয়ালেন ওই ব্যক্তি।

রমজান আলি গত বৃহস্পতিবার অনলাইনে বিদ্যুতের বিল মেটান। পরেরদিনই তিনি বিদ্যুৎ দপ্তরের অফিসে যান। আদৌ তাঁর বিল জমা পড়ল কিনা, সেই প্রশ্ন করেন। তবে খোঁজখবর নিয়ে জানতে পারেন বিল জমা পড়েনি। বিদ্যুৎ দপ্তরের কর্মীরা তাঁকে ব্যাংকের সঙ্গে যোগাযোগ করতে বলেন। কিন্তু ব্যাংক বন্ধ থাকায় খোঁজ নিতে পারেননি। বাধ্য হয়ে গুগল পে’র (Google Pay) টোল ফ্রি নম্বরে ফোন করেন। তবে সেই সময় কথা হয়নি তাঁর। এরপর তাঁর কাছে একটি অজানা নম্বর থেকে ফোন আসে। ঠিক কী সমস্যা হয়েছে, তা খুলে বলেন তিনি।

[আরও পড়ুন: পুকুরে ঘুরে বেড়াচ্ছে ৭ ফুট লম্বা কুমির, আতঙ্কে কাঁটা কুলতলির বাসিন্দারা]

তাঁকে টাকা ফেরত দেওয়া হবে বলে আশ্বাস দেওয়া হয়। তবে শর্ত একটাই টাকা ফেরত পেতে গেলে একটি অ্যাপ ডাউনলোড করতে হবে। সেই অনুযায়ী তিনি অ্যাপ ডাউনলোড করেন। তাঁর কাছে ওটিপি এবং এটিএম কার্ডের নম্বর জানতে চাওয়া হয়। সব কিছুই সরল বিশ্বাসে দিয়ে ফেলেন রমজান আলি। কিছুক্ষণের ব্যবধানে তাঁর কাছে দু’টি মেসেজ আসে। তাতেই জানতে পারেন তাঁর অ্যাকাউন্ট থেকে দু’দফায় প্রায় ৪০ হাজার টাকা তুলে নেওয়া হয়েছে। এরপর ওই অজানা নম্বরে আবারও ফোন করেন তিনি। কথাবার্তায় প্রতারিত হয়েছেন বলেই বুঝতে পারেন রমজান আলি। এ ঘটনায় থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন। তবে এখনও পর্যন্ত কাউকে গ্রেপ্তার করা হয়নি।

[আরও পড়ুন: করোনা আবহে পরিত্যক্ত কফিন ঘিরে বিক্ষোভ খড়গপুরে! একাধিক অভিযোগে ক্ষোভপ্রকাশ স্থানীয়দের]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement