BREAKING NEWS

২০ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  মঙ্গলবার ৭ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

দশমীর সকালে মর্মান্তিক দুর্ঘটনা, পুজো মণ্ডপের পাশে থাকা তুবড়ি ফেটে ঝলসে গেল খুদে

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: October 15, 2021 6:15 pm|    Updated: October 15, 2021 6:42 pm

A minor boy burned in South 24 Pargana on friday | Sangbad Pratidin

সুরজিৎ দেব, ডায়মন্ড হারবার: দুর্গাপুজোর (Durga Puja 2021) মাঝেই তুবড়ি ফেটে ঝলসে গেল কিশোর। মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ ২৪ পরগনার পাথরপ্রতিমায়। বর্তমানে হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছে ওই পড়ুয়া। কেন মণ্ডপ সংলগ্ন এলাকায় রাখা হয়েছিল তুবড়ি, তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন স্থানীয়রা।

জানা গিয়েছে, দগ্ধ খুদের নাম তৃষানজিৎ পাত্র। বয়স ৯ বছর। শুক্রবার সকালে পাথরপ্রতিমা থানার ব্রজবল্লভপুর সর্বজনীন দুর্গা মণ্ডপের পাশে ছিল কিশোর। সেই সময় মণ্ডপের পাশে পড়ে থাকা তুবড়ি তুলে নেয় তৃষানজিৎ। আগুন দিয়ে ফাটানোর চেষ্টা করতেই বিপত্তি। তীব্র শব্দে ফেটে যায় তুবড়িটি। আগুনে ঝলসে যায় তৃষানজিৎ। স্থানীয়দের নজরে পড়তেই কিশোরকে নিয়ে যাওয়া হয় হাসপাতালে। বর্তমানে সেখানেই চিকিৎসা চলছে তাঁর। হাসপাতালের তরফে জানানো হয়েছে, তৃষানজিতের শরীরের বেশ খানিকটা অংশ ঝলসে গিয়েছে।

[আরও পড়ুন: মহানবমীতে অবসরপ্রাপ্ত নার্সের রহস্যমৃত্যু ঘিরে ছড়াল চাঞ্চল্য, গুরুতর আহত শাশুড়িও]

আহত কিশোরের পরিবার জানিয়েছে, ব্রজবল্লভপুর সর্বজনীন দুর্গোৎসব কমিটির সদস্যরা নবমীর রাতে তুবড়ি-আতসবাজি ফাটিয়েছিলেন। সেই সময় কিছু বাজি পড়েছিল মণ্ডপের আশেপাশে। দশমীর সকালে ঘুরতে ঘুরতে মণ্ডপের কাছে যায় তৃষানজিৎ। দেখতে পায় পড়ে থাকা ওই তুবড়িগুলো। এদিনের ঘটনায় কান্নায় ভেঙে পড়েছে তৃষানজিতের বাবা, মা। কেন মণ্ডপ চত্বরে ফেলে রাখা হয়েছিল ও তুবড়ি তা নিয়েও উঠছে প্রশ্ন।

এই ঘটনায় পুজো উদ্যোক্তাদের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন স্থানীয়রা। ঘটনার জন্য দুঃখপ্রকাশ করেছেন পুজো উদ্যোক্তারা। এই ঘটনায় মুহূর্তেই বদলে গিয়েছে পরিবেশ। আনন্দ বদলে গিয়েছে বিষাদে।

[আরও পড়ুন: Coronavirus Update: পুজোর মধ্যে স্বস্তি, গত ২৪ ঘণ্টায় এক ধাক্কায় অনেকটা কমল রাজ্যের সংক্রমণ]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে