১২ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

নৃশংস! সদ্যোজাত মেয়েকে শ্বাসরোধ করে খুনের পর জঙ্গলে ফেলে দিল মা

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: August 9, 2020 7:28 pm|    Updated: August 9, 2020 8:08 pm

An Images

ছবি: প্রতীকী

বিপ্লবচন্দ্র দত্ত, কৃষ্ণনগর: নিজের সদ্যোজাত কন্যাকে শ্বাসরোধ করে হত্যার অভিযোগ উঠল মায়ের বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে নদিয়ার (Nadia) কল্যাণীর গয়েশপুর এলাকায়। ইতিমধ্যেই অভিযুক্ত বধূকে আটক করেছে পুলিশ।

জানা গিয়েছে, দুই মেয়ে ও এক ছেলেকে নিয়ে গয়েশপুরের একটি বাড়িতে দীর্ঘদিন ধরেই ভাড়া থাকতেন বাসনা রায় নামে ওই বধূ ও তার স্বামী প্রাণকৃষ্ণ রায়। দোকানে কাজ করেন প্রাণকৃষ্ণবাবু। সংসারের অভাব ঘোচাতে মুড়ি ভাজার কাজ করত বাসনা। গতবছরের শেষদিকে ফের অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েছিল ওই বধূ। প্রতিবেশী সূত্রে খবর, প্রথম দিকে সবটা ঠিক থাকলেও লকডাউনে কাজ চলে যাওয়ায় গর্ভস্ত সন্তানকে শেষ করে দিতে চেয়েছিল বাসনা। কিন্তু কোনও কারণে তা হয়ে ওঠেনি। ফলে মেয়ের জন্মের পর থেকেই তাকে একেবারেই সহ্য করতে পারছিল না ওই বধূ। এই পরিস্থিতিতে রবিবার সকালে ওই এলাকার একটি জঙ্গল থেকে উদ্ধার হয় ওই সদ্যোজাতের প্লাস্টিকে মোড়া দেহ। পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে দেহ উদ্ধারের পর কথা বলে স্থানীয়দের সঙ্গে। তাঁদের থেকে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতেই বাসনাকে চেপে ধরে পুলিশ।

[আরও পড়ুন: স্ত্রীকে মারধর, যুবককে গণপিটুনির পর মাথা নেড়া করে শাস্তি দিলেন ক্ষুব্ধ গ্রামবাসীরাই]

পুলিশের দাবি, ওই বধূ জানিয়েছে যে লকডাউনে কাজ চলে যাওয়ায় এই সন্তানের জন্ম দিতে চাননি তিনি। সেই কারণে শ্বাসরোধ করে মেয়েকে খুন করেছে। পরিকল্পনা ছিল সকালে দেহটি জঙ্গল থেকে তুলে শ্মশানে ফেলে আসবে। কিন্তু তার আগেই বিষয়টি জানাজানি হয়ে যায়। পুলিশ সূত্রে খবর, ইতিমধ্যেই অভিযুক্তকে আটক করা হয়েছে। সত্যিই অভাবের কারণেই খুন নাকি কন্যাসন্তান হওয়ায় এই নির্মমতা, তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

[আরও পড়ুন: করোনা আবহে রাজ্যের বিশ্ববিদ্যালয়গুলিতে শুরু স্নাতকে ভরতি, কোথায় কবে জেনে নিন]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement