BREAKING NEWS

১৪ কার্তিক  ১৪২৭  শনিবার ৩১ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

স্থায়ী হল না স্বস্তি, বাংলায় ফের বাড়ল দৈনিক করোনা আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা

Published by: Paramita Paul |    Posted: September 29, 2020 8:14 pm|    Updated: October 1, 2020 12:51 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: স্বস্তি দীর্ঘস্থায়ী হল না। আনলকের চতুর্থ পর্যায়ের শেষভাগে ফের সামান্য বাড়ল বংলার দৈনিক করোনা আক্রান্ত (Covid-19 Positive) ও মৃতের সংখ্যা। তবে পাল্লা দিয়ে বেড়েছে সুস্থতাও। 

মঙ্গলবার সন্ধেয় স্বাস্থ্য দপ্তর থেকে পাওয়া রিপোর্ট অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে করোনা আক্রান্ত (Corona Virus) হয়েছে ৩ হাজার ১৮৮ জন। দৈনিক সংক্রমণের শীর্ষে যথারীতি ফের রয়েছে কলকাতার (Kolkata) নাম। দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে উত্তর ২৪ পরগনা (North 24 Parganas)। কলকাতায় একদিনে করোনা আক্রান্ত হয়েছে ৬৯১ জন। এর ঠিক পরে থাকা উত্তর ২৪ পরগনায় সংক্রমিত হয়েছে ৬৩৪ জন।  এ পর্যন্ত রাজ্যে সর্বমোট করোনা সংক্রমিতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ২ লক্ষ ৫৩ হাজার ৭৬৮ জন। 

[আরও পড়ুন : ফের ১৪ দিন লকডাউন হচ্ছে উত্তর ২৪ পরগনায়? জানুন কী বললেন জেলাশাসক]

সুস্থতার নিরিখেও তালিকার শীর্ষে রয়েছে মহানগর। সেখানে একদিনে সুস্থ হয়েছে ৬০৮ জন। তবে সুস্থতার নিরিখে অনেকটাই পিছিয়ে রয়েছে জনবহুল জেলা উত্তর ২৪ পরগনা। সেখান একদিনে সুস্থ হয়েছে মাত্র ৩০৫ জন। সবমিলিয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় বাংলায় কোভিডজয়ীর সংখ্যা ২ হাজার ৯৬১ জন। এ পর্যন্ত বাংলায় করোনাকে হারিয়ে সুসথ হয়ে উঠেছেন মোট ২ লক্ষ ২২ হাজার ৮০৫ জন। মঙ্গলবার সন্ধে পর্যন্ত রাজ্যে চিকিৎসাধীন করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ২৬ হাজার ৬৪ জন। এই মুহুর্তে রাজ্যে সুস্থতার হার ৮৭.৮০ শতাংশ। 

এদিন বেড়েছে দৈনিক মৃত্যুও। একদিন বাংলায় মৃত্যু হয়েছে ৬২ জনের। যার মধ্যে কলকাতায় মৃত্যু হয়েছে ১৫ জনের। এরপরেই হয়েছে উত্তর ২৪ পরগনা। সেখানে মৃত্যু হয়েছে ১১ জনের। সবমিলিয়ে রাজ্যে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৪ হাজার ৮৯৯ জন। 

[আরও পড়ুন : পাহাড়ে পার্বতীর পথ আটকেছে করোনাসুর, পুজোর প্রাক্কালে অলক্ষ্মীর ছাপ কুমোরটুলিতে]

বিজ্ঞানী থেকে চিকিৎসক, সকলেই মহামারীর বিরুদ্ধে লড়তে করোনা পরীক্ষার উপর জোর দিচ্ছে। সেই সূত্র মেনেই বাংলায় গত ২৪ ঘণ্টায় ৪৩ হাজার ৭৫৯টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এখনও পর্যন্ত বাংলায় সর্বমোট ৩১ লক্ষ ৮৩ হাজার ৬৯৭ জনের পরীক্ষা করা হয়েছে। যার মধ্যে মাত্র ৭.৯৭ শতাংশ মানুষ সংক্রমিত হয়েছেন। 

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement