৭ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

লকডাউনে বন্ধ উপার্জন, মানসিক অবসাদে আত্মঘাতী ষাটোর্ধ্ব ব্যবসায়ী

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: April 22, 2020 2:11 pm|    Updated: April 22, 2020 2:11 pm

An Images

চন্দ্রজিৎ মজুমদার, কান্দি: একে করোনার আতঙ্কে ব্যবসা বন্ধ। তার উপর দু’দিনের বৃষ্টিতে ক্ষতিগ্রস্ত মাটির বাড়ি। কী হবে ভবিষ্যৎ? এই আতঙ্কে আত্মঘাতী এক বৃদ্ধ। মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটেছে মুর্শিদাবাদের ভরতপুরের গড্ডা গ্রামে। শোকের ছায়া এলাকায়।

মুর্শিদাবাদের ভরতপুরের গড্ডা গ্রামের বাসিন্দা বছর ৬২-এর চঞ্চল দত্ত। ব্যবসায় যা আয় হতো তা দিয়েই কোনওক্রমে দিন গুজরান হতো তাঁর। কিন্তু মারণ ভাইরাসের দাপটে স্তব্ধ গোটা দেশ। ফলে প্রায় ১ মাস বন্ধ ব্যবসা। নেই উপার্জন। এর পরিস্থিতিতে শেষ দু’দিনের ঝড়-বৃষ্টিতে ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে তাঁর মাটির বাড়ির টালির ছাউনি। ফলে কী করে সবদিক সামাল দেবেন তা বুঝে উঠতে পারছিলেন না চঞ্চলবাবু। চরম দুশ্চিন্তায় ভুগছিলেন তিনি। এরপরই বুধবার ভোরে তাঁর ঘর থেকে উদ্ধার হয় ঝুলন্ত দেহ।

[আরও পড়ুন: সংকটের মাঝে আশার আলো, সু্স্থ সন্তানের জন্ম দিলেন করোনা আক্রান্ত বধূ]

খবর পেয়েই ঘটনাস্থলে যায় পুলিশ। ইতিমধ্যেই দেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠিয়েছে পাঠানো হয়েছে। স্থানীয়দের কথায়, ব্যবসা ও বাড়ি নিয়ে প্রবল দু্শ্চিন্তায় ছিলেন তিনি। সারাদিন সেসব নিয়েই ভাবতেন। মানসিক অবসাদে ভুগতে শুরু করেছিলেন। প্রাথমিক তদন্তে পুলিশের অনুমান, সেই অবসাদের জেরেই আত্মহত্যার সিদ্ধান্ত। তবে খতিয়ে দেখা হচ্ছে গোটা ঘটনার পিছনে অন্য কোনও রহস্য লুকিয়ে রয়েছে কি না, জানালেন তদন্তকারীরা। প্রসঙ্গত, করোনা সংক্রমণের আতঙ্কে দেশ জুড়ে লকডাউন জারি হওয়ায় প্রবল সমস্যায় ছোট ব্যবসায়ী থেকে শুরু করে সমাজের বিভিন্ন স্তরের মানুষ। মানসিক অবসাদে ভুগতে শুরু করেছেন অনেকেই।   

[আরও পড়ুন: ফের ধেয়ে আসছে কালবৈশাখী, শনিবার পর্যন্ত রাজ্যে বজ্রবিদ্যুৎ-সহ বৃষ্টির সম্ভাবনা]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement