BREAKING NEWS

২৩ শ্রাবণ  ১৪২৭  শনিবার ৮ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

জমি বিবাদ মেটাতে সালিশি সভায় হামলা, সুন্দরবন এলাকায় বোমা-গুলিতে মৃত ১

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: August 2, 2020 6:34 pm|    Updated: August 2, 2020 6:36 pm

An Images

সুরজিৎ দেব, ডায়মন্ড হারবার: পারিবারিক জমি বিবাদকে কেন্দ্র করে গ্রামে বসেছিল সালিশি সভা। আর সেখানে আচমকা দুষ্কৃতী হামলা। চলল গুলি, বোমা। মৃত্যু হল একজনের। গুলিবিদ্ধ হয়ে, বোমার স্প্লিন্টারের আঘাতে আহত হয়েছেন আরও ৪জন। যদিও মৃত্যুর খবর এখনও নিশ্চিত করেনি পুলিশ। ঘটনাটি ঘটেছে সুন্দরবনের ঢোলাহাট থানার আমিরপুরে। রবিবার দুপুরে এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে তুমুল উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে এলাকায়। অশান্তি রুখতে এলাকায় মোতায়েন করা হয়েছে পুলিশ বাহিনী।

জানা গিয়েছে, মথুরাপুর ১ নম্বর ব্লকের ঢোলাহাট থানার শংকরপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের আমিরপুরে মাসখানেকেরও বেশি সময় ধরে পৈত্রিক সম্পত্তি নিয়ে বিবাদ চলছিল মোতালেব মীর ও আরফান মীরের পরিবারের মধ্যে। স্থানীয় বাসিন্দা নাসিরুদ্দিন মীর জানান, রবিবার দুপুরে স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্বের উপস্থিতিতে দীর্ঘদিনের সেই বিবাদের নিষ্পত্তি করতে একটি সালিশি সভা ডাকা হয়। সেখানে আলোচনা চলাকালীনই বহিরাগত কিছু দুষ্কৃতী আচমকাই সালিশি সভায় ঢুকে এলোপাথাড়ি গুলি চালাতে শুরু করে। ছোঁড়া হয় বোমাও।

[আরও পড়ুন: সাউন্ড সিস্টেমের দোকানে দেদার বিকোচ্ছে ব়্যাপিড টেস্ট কিট! শোরগোল শিলিগুড়িতে]

গুলি ও বোমায় গুরুতর আহত হন সভায় উপস্থিত পাঁচজন। তাঁদের উদ্ধার করে প্রথমে নিয়ে আসা হয় কুলপি ব্লক প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে। শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় আরফান মীরের পরিবারের গুরুতর আহত তিন সদস্য রফিকুল মীর, আসাদুল মীর এবং বাসার মীরকে ডায়মন্ড হারবার মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। কিন্তু অবস্থার দ্রুত অবনতি হওয়ায় গুলিবিদ্ধ আসাদুল ও রফিকুলকে চিত্তরঞ্জন মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে  (Chittaranjan Medical College) পাঠানো হয়। হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথেই একজনের মৃত্যু হয়েছে বলে আরফান মীরের পরিবারের দাবি।

[আরও পড়ুন: পুত্রবধূকে মারের প্রতিবাদ, বাবার ঘরেই আগুন লাগিয়ে দিল ‘গুণধর’ ছেলে]

যদিও সুন্দরবন পুলিশ জেলার সুপার বৈভব তিওয়ারি মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেননি। তিনি জানান, এই ঘটনায় দু’জন গুলিবিদ্ধ হন। বোমার স্প্লিন্টারের ঘায়ে আহত হন আরও তিন ব্যক্তি। চারজনকে এই ঘটনায় আটক করা হয়েছে। আটক ব্যক্তিদের জিজ্ঞাসাবাদ চালাচ্ছে পুলিশ।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement