০৯  আষাঢ়  ১৪২৯  রবিবার ২৬ জুন ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

মহানায়িকার জন্মদিন নিয়ে ‘রাজনীতি’, মুনমুনকে কটাক্ষ বাবুলের

Published by: Sayani Sen |    Posted: March 26, 2019 3:06 pm|    Updated: March 26, 2019 3:06 pm

Babul Supriyo slams TMC's bid to celebrate Suchitra Sen's birthday

সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়,দুর্গাপুর: ভোটের আবহে নিজের লোকসভা কেন্দ্রে এবার একটু অন্যরকমভাবে মায়ের জন্মদিন পালনের উদ্যোগ টলিউড সেনসেশনের৷ বাঙালির নস্টালজিয়াকে ফের উসকে দিতে মহানায়িকাকে ভোটের ময়দানে টেনে নিয়ে আসা হচ্ছে বলেই দাবি গেরুয়া শিবিরের। যদিও বিজেপির এই দাবি মানতে নারাজ তৃণমূল৷ ঘাসফুল শিবিরের দাবি, শুধুমাত্র সাধারণ মানুষের আবেগকে গুরুত্ব দিতে এই উদ্যোগ৷ 

[ আরও পড়ুন: ভোটের আবহে বীরভূমে সন্ত্রাসের আশঙ্কা, ব্রহ্মাস্ত্র cVIGIL অ্যাপ]

বাংলার ঘরে ঘরে উত্তম-সুচিত্রা মানেই কিংবদন্তি। ৬ এপ্রিল মহানায়িকার ৮৯তম জন্মদিন৷ তাই ওইদিন নানা অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে ঘাসফুল শিবির৷ দলীয় সূত্রে খবর, আসানসোলে মহানায়িকার ছবিতে মাল্যদান করা হবে৷ সুচিত্রা সেনের স্মৃতিচারণা করবেন বিশিষ্টরা৷ গোটা শহর সেজে উঠবে সুচিত্রা সেনের ছবি ও কাট আউটে। একটু ভিন্নভাবে দিনটি পালন করা হবে আসানসোল লোকসভা কেন্দ্রের অন্তর্গত পান্ডবেশ্বর বিধানসভা কেন্দ্রে। বিধায়ক জিতেন্দ্র তেওয়ারির উদ্যোগে ওই দিন সন্ধ্যায় লাউদোহা কমিউনিটি হলে প্রদর্শিত হবে উত্তম-সুচিত্রা অভিনীত কালজয়ী ছবি ‘সপ্তপদী’। পান্ডবেশ্বরের বিধায়ক তথা আসানসোলের মেয়র জিতেন্দ্র তেওয়ারি বলেন,“উত্তম-সুচিত্রা ছাড়া বাংলা সিনেমা ভাবাই যায় না। আমাদের প্রার্থী মুনমুন সেনকে দেখে অনেকের তাঁর মা অর্থাৎ মহানায়িকার কথা মনে পড়ে৷ মানুষের এই আবেগকে মর্যাদা দিতে ঘটা করে জন্মদিন পালনের উদ্যোগ।” জেলা তৃণমূল সভাপতি ভি শিবদাসন গলাতেও একই সুর৷ তিনি বলেন,“আট থেকে সকলেই কমবেশি মহানায়িকার অনুরাগী৷ তাঁর মেয়ে প্রার্থী হওয়ায় এই আবেগ আরও জোরাল হয়েছে। তাই আসানসোলের বিভিন্ন জায়গায় মহানায়িকার জন্মদিন পালন হবে৷”

[ আরও পড়ুন: ‘উন্নয়ন হয়নি’, ভোটপ্রচারে রাজ্যের শাসকদলকে খোঁচা ভারতী ঘোষের]

এই উদ্যোগ নিয়ে শুরু হয়েছে রাজনৈতিক তরজা৷ মুনমুন সেনকে কটাক্ষ করতে ছাড়েননি গেরুয়া শিবিরের সৈনিক বাবুল সুপ্রিয়। তিনি বলেন,“ মুনমুন সেন আমার বন্ধু। শিক্ষিত মহিলা। কিন্তু তিনি ভুল রাজনৈতিক দলে রয়েছেন। তাঁর সঙ্গে কথা বলুন৷ ছবি তুলুন৷ সেলফি তুলুন৷ কিন্তু ওর দলকে একটি ভোট দেবেন না। তাহলে আসানসোলের আরও ক্ষতি হয়ে যাবে।” যদি সত্যি শুধুমাত্র মহানায়িকার আবেগকে সম্মান দেওয়া হয়, তবে এর আগে কেন ঘটা করে জন্মদিন পালন করা হল না তা নিয়ে প্রশ্ন তুলতে শুরু করেছেন রাজনীতিকরা৷ তাঁদের অভিযোগ, ভোট বাক্সে  মহানায়িকাকে নিয়ে বাঙালির আবেগের প্রতিফলন ঘটাতে মরিয়া ঘাসফুল শিবির৷ তাই ভোটের আবহে এহেন অনুষ্ঠানের পরিকল্পনা৷ 

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে