BREAKING NEWS

১৮ শ্রাবণ  ১৪২৭  সোমবার ৩ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

অস্ত্র হাতে রাস্তায় ঘুরছে ‘অশরীরী’ ছেলেধরা! আতঙ্ক আলিপুরদুয়ারে

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: June 13, 2019 3:57 pm|    Updated: June 13, 2019 3:57 pm

An Images

রাজ কুমার, আলিপুরদুয়ার: সচেতনতা সত্ত্বেও ছেলেধরা আতঙ্ক যেন পিছু ছাড়ছে না রাজ্যবাসীর। এবার ‘অশরীরী’ ছেলেধরার অস্তিত্ব টের পেয়ে আতঙ্ক ছড়িয়েছে। ঘটনাস্থল আলিপুরদুয়ারের ১ নম্বর ব্লকের পাটকাপাড়া। এলাকায় মোতায়েন করা হয়েছে বিশাল পুলিশ বাহিনী। অশরীরীকে ধরতে রাত জেগে এলাকায় পাহারা দিচ্ছেন স্থানীয় যুবকরা। 

আরও পড়ুন: ঠাকুরবাড়িতে তথাগত রায়, এনআরসি ইস্যুতে শান্তনুর বক্তব্যকেই সমর্থন

ঘটনার সূত্রপাত বেশ কিছুদিন আগেই। তবে আতঙ্কের শিকড় গভীরে পৌঁছেছে মঙ্গলবার রাতের একটি ঘটনায়। জানা গিয়েছে, অন্যান্য দিনের মতোই এদিনও রাতে খাওয়াদাওয়া সেরে ঘুমোতে যান পাটকাপাড়ার বাসিন্দা অজিত রায়। মধ্যরাতে আচমকা তাঁর নজরে পড়ে, কেউ একজন তাঁর সন্তানকে নিয়ে ঘর থেকে বেরিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করছেন। ঘুম ভেঙে হুড়মুড়িয়ে উঠে পড়ে তিনি। এরপর ওই ব্যক্তিকে ধরেও ফেলেন। কিন্তু তাঁর কথায়, কয়েক মুহূর্তের মধ্যেই নাকি তাঁর চোখের সামনে থেকেই উধাও হয়ে যান ওই ব্যক্তি। 

এরপর অজিতবাবুর আরও চাঞ্চল্যকর দাবি, দরজা বন্ধ ছিল। সেই অবস্থাতেই নাকি ঘর থেকে বেরিয়ে গিয়েছেন ওই ছেলেধরা! ঘটনার খবর চাউর হতেই আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে স্থানীয়দের মধ্যে। স্থানীয় বাসিন্দা ঋষিকেশ রায় বলেন, “মধ্য পাটকাপাড়া, গুদাম লাইন, হাটখোলা, হরিশেবাটারি-সহ বিভিন্ন এলাকাতে একই আতঙ্ক। রাতে একাধিক ব্যক্তির নজরে পড়েছে ছেলেধরা। জানা গিয়েছে, কুচকুচে কালো পোশাকে দেখা যাচ্ছে তাদের। কখনও আবার অস্ত্র হাতে এলাকায় ঘুরে বেড়াচ্ছে অভিযুক্তরা৷ আমরা থানায় অভিযোগ করেছি। এলাকায় পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। আমি চাই দ্রুত রহস্যভেদ করুক পুলিশ।”

আরও পড়ুন:বর্ধমান মেডিক্যালে জুনিয়র ডাক্তারদের তাণ্ডব, আক্রান্ত ‘সংবাদ প্রতিদিন’

আলিপুরদুয়ার পুলিশের এসডিপিও শ্রীকান্ত জগন্নাথ রাও বলেন, “আমরা এই ঘটনা খতিয়ে দেখছি। এলাকায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। দিনে রাতে পুলিশের টহল চলছে।” এদিকে এই ঘটনার খবর পেয়ে আলিপুরদুয়ার বিজ্ঞান ও যুক্তিবাদী সংস্থার সম্পাদক কৌশিক দে বলেন, “অশরীরীর আতঙ্ক তাড়া করছে স্থানীয়দের। আমরা এবিষয়ে তাদের বোঝানোর চেষ্টা করব।” অজিত রায়ের বাড়িতে ঠিক কী হয়েছিল, তা খোঁজ নিয়ে এলাকায় কুসংস্কার বিরোধী অভিযান করা হবে, বলে জানান তিনি। তবে আপাতত আতঙ্কে ঘুম উড়েছে স্থানীয়দের।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement