২৯ ভাদ্র  ১৪২৬  সোমবার ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: তৃণমূল কংগ্রেসের শহিদ দিবসের সমাবেশ মিটেছে নির্বিঘ্নেই। কিন্তু রাতে তৃণমূল-বিজেপি সংঘর্ষে উত্তেজনা ছড়াল উত্তর ২৪ পরগনার অশোনগরে। বোমাবাজিতে মহিলা-সহ গেরুয়া শিবিরের ৬ জন সমর্থক আহত হয়েছেন বলে জানা গিয়েছে। বিজেপির বিরুদ্ধেও পালটা হামলার অভিযোগ তুলেছে তৃণমূল। এদিকে দক্ষিণ শহরতলির বেহালাতেও দু’দলের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের খবর মিলেছে।

[আরও পড়ুন: ধুন্ধুমারের সুযোগে মহিলা কাউন্সিলরকে শ্লীলতাহানি, বনগাঁয় অভিযুক্ত বিজেপি নেতা]

রবিবার দলের শহিদ দিবসের সমাবেশে যোগ দিতে কলকাতায় গিয়েছিলেন অশোকনগরের হীরাপুর গ্রামের তৃণমূল সমর্থকরা। বিজেপির দাবি, রাতে ফেরার পর স্থানীয় এক বিজেপি সমর্থকের সঙ্গে তাঁদের বাগবিতণ্ডা হয়। এরপরই গ্রামে ঢুকে বিজেপি সমর্থকদের বাড়ি লক্ষ্য করে তৃণমূল সমর্থকরা বোমাবাজি শুরু করেন বলে অভিযোগ। ঘটনায় এক মহিলা-সহ ৬ জন আহত হন। তুমুল উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে অশোকনগরের হীরাপুর গ্রামে। খবর পেয়ে রাতেই এলাকায় যায় পুলিশ। গভীর রাত পর্যন্ত পুলিশ পিকেট ছিল এলাকায়। এদিকে তৃণমূল কংগ্রেস নেতৃত্বের পালটা অভিযোগ, রাতে সমাবেশ থেকে ফেরার পথে দলের কর্মীদের উপর চড়াও হন বিজেপি কর্মীরাই। হামলায় চারজন আহতও হয়েছেন। শুধু উত্তর ২৪ পরগনার অশোকনগরেই নয়, রবিবার রাতে দক্ষিণ শহরতলির বেহালাতেও সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন তৃণমূল ও বিজেপি কর্মীরা। কোনওমতে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

উল্লেখ্য, শহিদ দিবসের সমাবেশে বিজেপির বিরুদ্ধে সুর চড়িয়েছেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কাটমানির পালটা ব্ল্যাকমানি ফেরতের দাবিতে বিজেপির বিরুদ্ধে দলের কর্মীদের আন্দোলনে নামার পরামর্শ দিয়েছেন তিনি। রাজ্যে বিভিন্ন প্রান্তে তৃণমূলকর্মী আক্রান্ত হচ্ছেন বলেও অভিযোগ করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

[আরও পড়ুন: বদলে যাচ্ছে ঐতিহ্যবাহী বর্ধমান স্টেশনের নাম, ঘোষণা কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং