২ কার্তিক  ১৪২৬  রবিবার ২০ অক্টোবর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

টিটুন মল্লিক, বাঁকুড়া: ভোটের মাঝেই বাঁকুড়ায় তৃণমূল কর্মী, সমর্থকদের হাতে আক্রান্ত হলেন এক বিজেপি কর্মী৷ খবর পেয়ে তড়িঘড়ি ঘটনাস্থলে গিয়ে তাঁকে উদ্ধার করেন দলের চিকিৎসক প্রার্থী সুভাষ সরকার৷ তিনি নিজে অ্যাম্বুল্যান্সের ব্যবস্থা করে রক্তাক্ত অবস্থায় ওই কর্মীকে হাসপাতালে পাঠালেন৷ শালতোড়া ব্লক প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে তাঁর চিকিৎসা চলছে৷ প্রহৃত হয়েছেন আরও এক কর্মী৷

[আরও পড়ুন : বুথ পরিদর্শনে গিয়ে বিক্ষোভের মুখে দিলীপ ঘোষ, কাঠগড়ায় তৃণমূল]

সকাল থেকে বিক্ষিপ্ত কিছু অপ্রত্যাশিত ঘটনার ছবি উঠে এলেও, তেমন বড়সড় কোনও অশান্তির খবর মেলেনি বাঁকুড়ায়৷ কিন্তু ঘড়ির কাঁটা দুপুর ৩টে পেরোতেই বেঁধে গেল অশান্তি৷ শালতোড়ার ছাতার কানালি এলাকায় এদিন বাড়ি থেকে বেরিয়ে ভোট দিতে যাচ্ছিলেন এক বিজেপি কর্মী৷ অভিযোগ, আচমকাই তাঁর উপর চড়াও হন জনাকয়েক দুষ্কৃতী৷ ভোট দিতে বাধা দেওয়া হয় তাঁকে৷ শুধু তাই-ই নয়, বেধড়ক মারধর করা হয়েছে ওই বিজেপি কর্মীকে৷ তাঁকে লক্ষ্য করে রীতিমতো ইট-পাথর ছোঁড়া হয়৷ রক্তাক্ত অবস্থায় মাটিতে লুটিয়ে পড়েন ওই কর্মী৷ প্রহৃত হন তাঁর সঙ্গে থাকা আরেক বৃদ্ধও৷

[আরও পড়ুন: কেশপুরে বাজেয়াপ্ত ভারতী ঘোষের গাড়ি, প্রতিবাদে মন্দিরে অবস্থান বিক্ষোভ বিজেপি প্রার্থীর]

এমন অশান্তিতে যখন উত্তপ্ত ছাতার কানালি এলাকা, সেসময় আশেপাশেই ছিলেন বাঁকুড়া কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী সুভাষ সরকার, যিনি পেশায় একজন চিকিৎসক৷ জেলাজুড়ে চিকিৎসক হিসেবে তিনি বিখ্যাত এবং জনপ্রিয়৷ দলের কর্মী এভাবে আক্রান্ত হয়েছেন, খবর পেয়ে সুভাষ সরকার ঘটনাস্থলে ছুটে যান৷ দ্রুত রক্তাক্ত কর্মীকে উদ্ধার করেন৷ এত বছরের চিকিৎসা জীবনের অভিজ্ঞতায় তিনি বেশ বুঝতে পারেন, দ্রুত তাঁকে হাসপাতালে ভরতি না করালে, বাঁচানো মুশকিল৷ কর্মীকে হাসপাতালে পৌঁছে দিতে তিনি নিজে কেন্দ্রীয় বাহিনীর সাহায্য চান৷ প্রার্থীর কথা শুনে জওয়ানরা এগিয়ে গিয়ে ওই কর্মীকে গাড়িতে তুলে দেন৷ শালতোড়া ব্লক হাসপাতালে পৌঁছে দেওয়া হয় তাঁকে৷ সেখানে তাঁর চিকিৎসা শুরু হয়েছে৷

[আরও পড়ুন: ভারতীকে ঘিরে বিক্ষোভ ঠেকাতে চার রাউন্ড গুলি দেহরক্ষীর, গুরুতর জখম এক]

গোটা ঘটনায় অভিযোগ উঠছে তৃণমূলের বিরুদ্ধে৷ প্রহৃত ব্যক্তির অভিযোগ, স্থানীয় তৃণমূল অঞ্চল সভাপতি এবং তাঁর ভাইপো মিলে এমন অশান্তি ঘটিয়েছে৷ অভিযোগ যাই-ই থাকুক, এমন ঘটনার খবর কানেই পৌঁছায়নি বাঁকুড়ায় তৃণমূলের হেভিওয়েট প্রার্থী সুব্রত মুখোপাধ্যায়ের কানে৷ তাঁর সাফাই, বাঁকুড়ায় শান্তিপূর্ণভাবেই ভোট চলছে৷ অশান্তির খবর নেই তাঁর কাছে৷

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং