৮ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ২৩ মে ২০১৯ 

Menu Logo নির্বাচন ‘১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

ধীমান রায়, কাটোয়া: ঘড়িতে সকাল তখন দশটা কুড়ি৷ একটি গ্রাম ঘুরে প্রার্থীর রোড-শো তখন ভাতারের মোহনপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের সামনে এসেছে। বাজনার আওয়াজ দুর থেকে শুনতে পেয়েই স্কুলপড়ুয়াদের মধ্যে চাঞ্চল্য৷ মোহনপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের দোতলার বারান্দা থেকে প্রার্থীকে দেখতে তখন লম্বা লাইন৷ দাঁড়িয়ে রয়েছে ছাত্রছাত্রীরা। এক পড়ুয়ার মুখে নরেন্দ্র মোদির মুখোশ। বারান্দা থেকেই মিছিলের উদ্দেশে হাত নাড়ছেন তারা। পালটা হাত নেড়ে প্রত্যুত্তর দিলেন প্রার্থী। তিনি বর্ধমান- দুর্গাপুর লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী সুরিন্দর সিং আলুওয়ালিয়া৷

[আরও পড়ুন: ‘মমতাকে প্রধানমন্ত্রী দেখতে চাই’, আসানসোলে মুখ্যমন্ত্রীর হয়ে সওয়াল যশবন্ত সিনহার]

মঙ্গলবার পূর্ব বর্ধমানের ভাতারে, যা বর্ধমান-দুর্গাপুর লোকসভা কেন্দ্রের অন্তর্গত, সেখানে ভোটের প্রচারে বেরিয়ে স্কুলপড়ুয়াদের এই আবেগ দেখে আপ্লুত প্রবীণ বিজেপি প্রার্থী তথা বিদায়ী কেন্দ্রীয় মন্ত্রী সুরিন্দর সিং আলুওয়ালিয়া। স্কুলের গেটের বাইরে বেরিয়ে আসে পড়ুয়ারা৷ শুধু তাই নয়, বিজেপি প্রার্থীকে ঘিরে এদিন পড়ুয়ারা ‘মোদি’, ‘মোদি’ স্লোগান তোলে৷ হুডখোলা জিপ থেকে তিনিও পড়ুয়াদের সঙ্গে হাত মেলান৷ তাদের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘তোমরা ভাল করে পড়াশোনা করবে। আর বাড়িতে গিয়ে বাবা, মা-কে বোলো পদ্মফুলে বোতাম টিপে ভোট দিতে।’

এদিন ভাতার বিধানসভা কেন্দ্রের পশ্চিমাংশের গ্রামগুলিতে রোড-শো করে প্রচার সারেন বিজেপি প্রার্থী সুরিন্দর সিং আলুওয়ালিয়া। এদিন সকালে তিনি আউশগ্রাম সীমান্তে ভাতারের আমবোনা গ্রাম থেকে প্রচার শুরু করেন। আমবোনা থেকে মোহনরপুর গ্রামের ভিতর দিয়ে স্কুলের সামনে আসার সময় আলুওয়ালিয়াকে দেখতে পড়ুয়াদের মধ্যে কার্যত হুড়োহুড়ি পড়ে যায়। তখনও স্কুলের প্রার্থনা শুরু হতে কিছুক্ষণ বাকি। প্রার্থীর রোড-শো দেখতে স্কুলের বারান্দায় লাইন দিয়ে দাঁড়িয়ে পড়ুয়ারা, জানালার ভিতর থেকে উঁকি দিচ্ছে অনেকে। শেষে দেখা যায়, স্কুলের গেটের সামনে শতাধিক স্কুল ছাত্রছাত্রী ভিড় করে দাঁড়িয়ে রয়েছে। তখন প্রার্থী নিজেই হাসিমুখে হাত বাড়িয়ে দেন তাদের উদ্দেশে। ভয় কাটিয়ে পড়ুয়ারা ছুটে এসে হাত মেলাতে থাকে সুরিন্দর সিং আলুওয়ালিয়ার সঙ্গে।

[আরও পড়ুন: অসুস্থতার জন্যই যোগীর সভায় অনুপস্থিত, সাংবাদিক বৈঠকে সাফাই শান্তনুর]

কিন্তু ছাত্রছাত্রীদের কেন এত আগ্রহ একজন প্রার্থীকে নিয়ে? তাতেই শোনা গেল চমকপ্রদ উত্তর৷ পড়ুয়াদের অনেকেই বললেন, নরেন্দ্র মোদিকে তারা অনেক সময়ে টেলিভিশনে পাগড়ি মাথায় দেখেছেন৷ সুরিন্দর সিং আলুওয়ালিয়াকে দূর থেকে দেখে মোদির সঙ্গে মিল পেয়েছিল তারা৷ তাই মোদি এসেছেন ভেবেই তাদের মধ্যে এত উচ্ছ্বাস৷ পরে ভুল বুঝেও অবশ্য সেই উচ্ছ্বাসে ভাঁটা পড়েনি৷ কারণ, মোদি না হোক, বিদায়ী কেন্দ্রীয় মন্ত্রী স্কুলের ছাত্রছাত্রীদের সঙ্গে এত সহজভাবে মিশে গিয়েছেন, তাতে আরও খুশি কচিকাচারা৷ 

ছবি: জয়ন্ত দাস৷

দেখুন ভিডিও:

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং