৯ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

খুনের তত্ত্ব খারিজ ময়নাতদন্তের রিপোর্টে, জলে ডুবেই মৃত পাথরপ্রতিমার সিপিএম নেতা

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: April 18, 2019 9:55 pm|    Updated: April 29, 2019 7:14 pm

An Images

সুরজিৎ দেব, ডায়মন্ডহারবার: পাথরপ্রতিমায় মৃত সিপিএম নেতার ময়নাতদন্তের রিপোর্ট হাতে পেল পুলিশ। জানা গিয়েছে, খুন নয়, রিপোর্টে উল্লেখ রয়েছে, জলে ডুবেই মৃত্যু হয়েছে অজয় মণ্ডলের। এমনকী মৃতের ঠোঁট ও কাঁধে যে ক্ষতচিহ্ন মিলেছে, তা  গভীর নয় বলেই উল্লেখ রয়েছে রিপোর্টে। অতএব, ঘটনাটি খুন নয়, এমনই দাবি পুলিশের। তবে মৃতের স্ত্রী’র দায়ের করা খুনের মামলার ভিত্তিতে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। 

[আরও পড়ুন: ঘাসফুল না পদ্ম, এবারের ভোটে কার দখলে বালুরঘাট? শুরু হিসেবনিকেশ]

মঙ্গলবার রাতে মাছ ধরতে বেরিয়ে নিখোঁজ হন দক্ষিণ ২৪ পরগনার পাথরপ্রতিমার দক্ষিণ লক্ষ্মীনারায়ণপুরের বাসিন্দা অজয় মণ্ডল। এলাকায় সিপিএম নেতা হিসেবে পরিচিত ওই ব্যক্তি লোকসভা নির্বাচনে মথুরাপুর বিধানসভা কেন্দ্রে বামফ্রন্টের আহ্বায়ক ছিলেন। বুধবার ভোরে এলাকার একটি খালে দেহটি ভাসতে দেখেন স্থানীয়রা। দেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠায় পুলিশ। সিপিএম নেতৃত্ব ও মৃতের পরিবার অভিযোগ করেন, তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরাই খুন করেছে অজয় মণ্ডলকে। ঘটনায় চাপা উত্তেজনা দেখা যায় এলাকায়।  তবে বুধবার রাতে ময়নাতদন্তের রিপোর্ট হাতে পাওয়ার পরই ছবিটা বদলাতে শুরু করে।  পুলিশ সুপার তথাগত বসু জানান, ময়নাতদন্তের রিপোর্টে বলা হয়েছে জলে ডুবেই মৃত্যু হয়েছে অজয়বাবুর। 

[আরও পড়ুন: ‘বোতাম টিপবেন এখানে, মোদির কোমর ভাঙবে ওখানে’, কড়া চ্যালেঞ্জ অভিষেকের]

প্রাথমিকভাবে তদন্তকারীদের ধারণা, ঠোঁট ও কাঁধের ক্ষতচিহ্ন কোনও মাছ বা কাঁকড়ার দংশনেই হয়েছে। সম্ভবত, ওই ব্যক্তি অসুস্থ হয়ে জলে পড়ে যাওয়ার ফলেই এই ঘটনা। মৃতের স্ত্রী নন্দিতাদেবী অবশ্য পুলিশের এই তত্ত্ব মানতে নারাজ। তাঁর স্বামীর মৃত্যুর জন্য তৃণমূল কংগ্রেসকেই কাঠগড়ায় তুলেছেন তিনি। ইতিমধ্যেই, পাথরপ্রতিমা থানায় সাত তৃণমূল কর্মীর বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছেন মৃতের স্ত্রী। অভিযুক্তরা হলেন তারাপদ পাত্র, সুব্রত মাইতি, বিশ্বজিৎ গিরি, প্রভাত বাগ, প্রদীপ বাগ, রামপ্রসাদ মাইতি ও চন্দ্রকান্ত মাঝি। এ প্রসঙ্গে স্থানীয় তৃণমূল কংগ্রেস বিধায়ক জানিয়েছেন, গোটা ঘটনাই সিপিএমের ষড়যন্ত্র। লোকসভা ভোটের আগে এভাবেই এলাকায় উত্তেজনা তৈরি করতে চাইছে সিপিএম। প্রাক্তন সিপিএম বিধায়ক যজ্ঞেশ্বর দাস বলেন, তৃণমূল কংগ্রেস পরিকল্পিতভাবেই অজয় মণ্ডলকে খুন করেছে। পাশাপাশি, সিপিএমের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, আগামী ২৬ এপ্রিল পাথরপ্রতিমা কলেজ মোড়ে এই ঘটনায় প্রতিবাদ সভা করবে সিপিএম। সভায় উপস্থিত থাকবেন সুজন চক্রবর্তী, কান্তি গঙ্গোপাধ্যায়, শমীক লাহিড়ি-সহ জেলা বামফ্রন্টের অন্যান্য শীর্ষ নেতা। সবমিলিয়ে ভোটের আগে উত্তপ্ত পাথরপ্রতিমা৷

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement