BREAKING NEWS

১৭ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৭  রবিবার ৩১ মে ২০২০ 

Advertisement

বাংলার দুই জেলায় মৃদু কম্পন, আতঙ্কে লকডাউনেও ঘর ছেড়ে বেরিয়ে পড়লেন বহু মানুষ

Published by: Sayani Sen |    Posted: April 8, 2020 1:54 pm|    Updated: April 8, 2020 2:23 pm

An Images

নব্যেন্দু হাজরা ও টিটুন মল্লিক: করোনা ভাইরাসের আতঙ্কে কাঁপছে গোটা বিশ্ব।তারই মাঝে আবার ভূমিকম্পে কেঁপে উঠল বাঁকুড়া ও পুরুলিয়া। বাঁকুড়ায় পরপর দু’বার কম্পন অনুভূত হয়। প্রথমবার লাক্ষাদ্বীপ এবং দ্বিতীয়বার ভূমিকম্পের উৎসস্থল দুর্গাপুর থেকে ২১ কিলোমিটার পশ্চিমে। তবে দক্ষিণবঙ্গের অন্য কোনও জেলায় ভূমিকম্পের প্রভাব লক্ষ্য করা যায়নি। আতঙ্কে বাড়ি ছেড়ে বেরিয়ে পড়েন প্রায় সকলেই। বাজাতে শুরু করেন শাঁখ। তবে বড়সড় কোনও ক্ষয়ক্ষতি হয়নি। হতাহতেরও খবর নেই। 

বাঁকুড়া জেলা আবহাওয়া দপ্তর সূত্রে খবর, বুধবার পরপর দু’বার ভূমিকম্প হয়। প্রথমবার কম্পন অনুভূত হয় সকাল ১১টা ১৯ মিনিটে। বাঁকুড়ার বাসিন্দারা সবচেয়ে বেশি কম্পন অনুভব করতে পারেন। আবহাওয়াবিদদের বক্তব্য অনুযায়ী, ভূমিকম্পের উৎসস্থল লাক্ষাদ্বীপ। মাটির ১০ কিলোমিটার নিচেই উৎস। রিখটার স্কেলে কম্পনের মাত্রা ছিল ৫.৪। প্রায় ২ সেকেন্ড স্থায়ী হয় কম্পন।

[আরও পড়ুন: আগুনের গ্রাসে শুশুনিয়া পাহাড়, রাত থেকে দাউদাউ করে জ্বলছে অরণ্য]

প্রায় ৫-৬ মিনিটের মধ্যেই আবার দ্বিতীয় কম্পন অনুভূত হয় রাঢ়বঙ্গের জেলা বাঁকুড়ায়। ঘড়ির কাঁটায় তখন প্রায় ১১ টা ২৪ মিনিট। দ্বিতীয়বারের ভূমিকম্পটির উৎসস্থল দুর্গাপুর থেকে ২১ কিলোমিটার পশ্চিমে। রিখটার স্কেলে মাত্রা ছিল ৪.১। পুরুলিয়াতেও মৃদু কম্পন অনুভূত হয়।

অল্প সময়ের ব্যবধানে পরপর দু’বার কম্পন অনুভূত হওয়ায় আতঙ্কিত হয়ে পড়েন স্থানীয়রা। তাঁরা ভয়ে বাড়ি ছেড়ে বেরিয়ে পড়েন। শাঁখ বাজাতেও শুরু করেন কেউ কেউ। 
Earthquake

[আরও পড়ুন: কোনও পরিবার অভুক্ত থাকবে না, রোজ ৪০ হাজার মানুষকে খাওয়াবেন অভিষেক]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement