BREAKING NEWS

৪ আশ্বিন  ১৪২৭  সোমবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

নুসরতের কেন্দ্রে ‘ক্ষুধার্ত’ বৃদ্ধের হাহাকার! ভুয়ো ভিডিওর পর্দা ফাঁস করল পুলিশ

Published by: Sandipta Bhanja |    Posted: April 19, 2020 6:29 pm|    Updated: April 19, 2020 6:29 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: লকডাউনের জেরে অনেকেই চরম সংকটের মধ্যে পড়েছেন। বিশেষ করে নিম্নবিত্ত শ্রেণির মানুষেরা। এই সুযোগে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভুয়ো খবরও ছড়াচ্ছে বিদ্যুৎ গতিতে। ভুয়ো খবরে যাতে আতঙ্কের সৃষ্টি না হয়, প্রশাসনের তরফে সে ব্যবস্থা করা হলেও এই মহামারী নিয়ে গুজব, রটনা নেটদুনিয়ায় এখনও অব্যাহত। দিন কয়েক আগেই নুসরত জাহানের সংসদীয় কেন্দ্র বসিরহাটের এক ‘ক্ষুধার্ত’ বৃদ্ধের ভিডিও ভাইরাল হয়েছিল। তিনি দাবি করেছিলেন যে, লকডাউনে খাবার না পেয়ে ২ দিন তিনি অভুক্ত। ভিডিও প্রকাশ্যে আসতেই ঘটনা খতিয়ে দেখতে ময়দানে নামে রাজ্য পুলিশ। এরপরই সেই ভুয়ো ভিডিওর পর্দা ফাঁস হয়।

ঠিক কী হয়েছিল? দিন কয়েক আগে রাজ্য বিজেপির ফেসবুক পেজ থেকে একটি ভিডিও প্রকাশ করা হয়। যেখানে এক বৃদ্ধকে আর্তনাদ করে বলতে শোনা যায় তিনি ২ দিন ধরে অভুক্ত। মুখ্যমন্ত্রীর কাছে বৃদ্ধ করুণ আর্তি জানিয়ে বলছিলেন- “মা আমাদের বাঁচান৷ আমরা আপনার সন্তান৷ আমাদের একটু দেখুন৷ আমরা দু’দিন ধরে কিছু খাইনি৷ আর সহ্য করতে পারছি না৷ এবার হয় খেতে দিন, নাহলে আমাদের গুলি করে মেরে ফেলুন।” মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পাশাপাশি তিনি ওই একই আবেদন জানিয়েছেন বসিরহাটের তৃণমূল সাংসদ নুসরত জাহান এবং সিপিএম বিধায়ক রফিকুল ইসলামের কাছেও৷ এই ‘সাজানো’ ভিডিওটি শেয়ার করেই বঙ্গ বিজেপির তরফে দাবি করা হয়, “শুনতে পাচ্ছ কি মানুষের কান্না? তৃণমূল রেশন লুট বন্ধ করুন!”

এই ভিডিও প্রকাশ্যে আসতেই নেটদুনিয়ায় জোর শোরগোল বাঁধে। রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে ছি ছি-কার পড়ে যায়। সমালোচিত হন নুসরতও। এরপরই রাজ্য পুলিশ ময়দানে নেমে রহস্য ভেদ করেন। ওই বৃদ্ধের ভিডিওটি সম্পূর্ণ ভুয়ো এবং ইচ্ছেকৃভাবে শুট করানো বলে দাবি করা হয়েছে তাঁদের পক্ষ থেকে। ওই বৃদ্ধ আদতে যাত্রাশিল্পী, তাই তাঁকে অভিনয়ের কথা বলা হয়েছিল। এপ্রসঙ্গে ওই বৃদ্ধ যাত্রাশিল্পী পুলিশকে জানিয়েছেন, “আমার নাম মোবারক মণ্ডল৷ আমার বাড়ি বেগমপুরে৷ আমি সরকারি রেশন পাই৷ আমার কোনও অভিযোগ নেই৷ আমি আগে যাত্রা করতাম৷ পাড়ার কয়েকটি ছেলে বলেছিল- কাকা, লকডাউনের মধ্যে খেতে পাচ্ছো না- এমন একটা অভিনয় করে দেখাও তো! তো আমি দেখালাম৷ সেটাই বোধহয় ওরা পোস্ট করেছিল।” রাজ্য পুলিশের টুইটারে শেয়ার করা হয়েছে ওই ভিডিও।

[আরও পড়ুন: লকডাউনে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড পিয়ালি স্টেশনে, ভস্মীভূত ১৫টি দোকান]

এই কঠিন পরিস্থিতিতে এই ধরনের গুজব ছড়ালে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়ার কথা আগেই ঘোষণা করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী, তবে এবার নুসরত জাহানের সংসদীয় এলাকার ভুয়ো ভিডিও ছড়ানোর অভিযোগে বঙ্গ বিজেপির বিরুদ্ধে কোনও পদক্ষেপ করা হবে কিনা, তা এখনও জানা যায়নি।

[আরও পড়ুন:খেটে খাওয়া মানুষদের জন্য আবেগঘন বার্তা করণ জোহরের, একাধিক তহবিলে অনুদানও দিলেন]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement