BREAKING NEWS

২০ শ্রাবণ  ১৪২৭  বুধবার ৫ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

কিশোরী সাঁতারুকে যৌন হেনস্তায় অভিযুক্ত কোচের ৬ দিনের পুলিশ হেফাজত

Published by: Sandipta Bhanja |    Posted: September 8, 2019 3:20 pm|    Updated: September 8, 2019 4:19 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক:  বাংলার কিশোরী সাঁতারুকে যৌন হেনস্তায় অভিযুক্ত সুরজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়কে ৬ দিনের পুলিশ হেফাজত দিল গোয়ার মাপুসা আদালত। শুক্রবার সন্ধে নামতেই দিল্লি থেকে গ্রেপ্তার হন সুরজিৎ। গোয়া এবং দিল্লি পুলিশের যৌথ উদ্যোগে রাজধানী থেকে ধরা পড়েন অভিযুক্ত। এরপর  শনিবার গভীর রাতের বিমানে দিল্লি থেকে গোয়ার উদ্দেশে নিয়ে যাওয়া হয় সুরজিৎকে।  

[আরও পড়ুন: ধর্মের নামে বন্ধ হোক পশুবলি, মোদি-মমতাকে চিঠি বর্ধমানের পশুপ্রেমীদের]

বাংলার সোনাজয়ী প্রতিশ্রুতিমান  কিশোরী সাঁতারুকে যৌন হেনস্তার ভিডিও ভাইরাল হতেই শোরগোল পড়ে গিয়েছিল গোটা দেশজুড়ে। নিন্দার ঝড় ওঠে ক্রীড়ামহলে। কেন্দ্রীয় মন্ত্রী কিরণ রিজিজুর কড়া নির্দেশে সুইমিং ফেডারেশন অব ইন্ডিয়া থেকে বয়কট করা হয় সুরজিৎকে। খবর জানাজানি হওয়ার পর থেকেই গা ঢাকা দিয়েছিলেন অভিযুক্ত কোচ। এবার গ্রেপ্তার হওয়ার দিন দুয়েকের মাথাতেই রবিবার পুলিশ হেফাজতে রাখার খবর শোনাল গোয়ার মাপুসা আদালত।  

অভিযুক্ত কোচের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩৭৬ (ধর্ষণ), ৩৫৪ (যৌন হেনস্তা) এবং ৫০৬ (সমাজবিরোধী কার্যকলাপ) নম্বর ধারায় অভিযোগ দায়ের হয়েছিল। পাশাপাশি পকসো আইনেও মামলাও দায়ের করা হয়েছে বলে জানিয়েছিল মাপুসা থানা। এবার ৬ দিন তাঁকে পুলিশ হেফাজতে রাখা হবে বলে জানিয়েছে মাপুসা থানা।

পুলিশ সূত্রে খবর, বিভিন্ন শহরে পালিয়ে গ্রেপ্তারি এড়ানোর চেষ্টা চালাচ্ছিলেন সুরজিৎ। যোগাযোগ ছিন্ন করার জন্য তাঁর দুটো ফোনই সুইচ অফ ছিল।  কিরণ রিজিজুর নির্দেশে তাঁকে খুঁজে বের করার জন্য তৈরি হয় একটি বিশেষ দল। যেখানে ছিলেন উত্তর গোয়ার পুলিশ সুপার উৎকৃষ্ট প্রসূন, মাপুসার এসডিপিও গজানন্দ প্রভুদেশাই এবং ইনস্পেক্টর কপিল নায়েক। ভোপাল, বেঙ্গালুরুর মতো বেশ কয়েকটি শহরে তল্লাশি চালায় এই বিশেষ দলটি। এমনকী, ভারতের প্রত্যেক শহরের পুলিশকেও এবিষয়ে সতর্ক থাকতে বলা হয়েছিল। অবশেষে তাঁকে খুঁজে পাওয়া যায় দিল্লির কাশ্মীরি গেটে। সেখানেই দিল্লি পুলিশের জালে ধরা পড়েন যৌন হেনস্তায় অভিযুক্ত সুরজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়।

[আরও পড়ুন: রূপান্তরিত অ্যানি এবার দুর্গা, জীবনের সেরা চ্যালেঞ্জ ভারতসুন্দরীর]

গত ৪ সেপ্টেম্বর বাংলার সোনাজয়ী সাঁতারুর ভিডিও প্রকাশ্যে আসতেই সরগরম হয় নেটদুনিয়া। কয়েক মুহূর্তের মধ্যেই ভাইরাল হয় কিশোরীর মোবাইলবন্দি সেই ভিডিওটি। বৃহস্পতিবার সকালে সুরজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে রিষড়া থানায় তথ্যপ্রমাণ-সহ অভিযোগ দায়ের করেছিলেন কিশোরীর মা-বাবা। দেশের প্রতিভাবান সাঁতারুর সঙ্গে হওয়া এই অশ্লীল আচরণের ভিডিও নজরে আসতেই বৃহস্পতিবার সুরজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়ের সঙ্গে যাবতীয় চুক্তি বাতিল করেছে গোয়া সুইমিং অ্যাসোসিয়েশন। এমনকী, সুরজিৎ যেন ভবিষ্যতে কোথাও চাকরি না পান, কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর তরফে সেই নির্দেশও দেওয়া হয়েছিল সুইমিং ফেডারেশন অফ ইন্ডিয়াকে।  

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement