২৭ আশ্বিন  ১৪২৬  মঙ্গলবার ১৫ অক্টোবর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সুনীপা চক্রবর্তী ও অরূপ বসাক: লোকালয়েই শাবকের জন্ম দিয়েছে এক হস্তিনী। খবর পাওয়া মাত্রই সেই হাতি এবং তার শাবকটিকে দেখতে ভিড় জমান স্থানীয়রা। কিছু যুবক হাতিটিকে এবং তাঁর শাবককে লক্ষ্য করে ঢিল ছুঁড়তে থাকে। চিৎকার করা হাতিটিকে যারপরনাই বিরক্ত করা হয়। এমনিতেই শাবকটি অসুস্থ ছিল, তারপর স্থানীয়দের এই কাণ্ড সহ্য করতে না পেরে হাতিটি স্থানীয়দের উদ্দেশ্যে তেড়ে যায়। এবং এক যুবককে শুঁড় দিয়ে আছড়ে মেরে ফেলে, বলে স্থানীয় সূত্রের খবর।

[আরও পড়ুন: ডিম চোর কে? মুরগির ঘরে খুঁজতে গিয়ে তাজ্জব এলাকাবাসী]

মূল ঘটনাটি ঝাড়গ্রামের লালগড় থানার ধরমপুর অঞ্চলের আজনাশুলি গ্রামের। গ্রাম সংলগ্ন একটি খালে হাতিটি বাচ্চা প্রসব করে। তারপরই বাচ্চাটিকে লোকালয় থেকে সরিয়ে বনভূমির দিকে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করছিল প্রাণীটি। কিন্তু, সদ্যোজাত হাঁপিয়ে পড়ায় তা সম্ভব হয়নি। ইতিমধ্যেই উৎসাহী জনতার ব্যাপক ভিড় জমে যায়। ক্রমাগত হাতিটিকে উত্যক্ত করতে থাকে স্থানীয়রা। বিরক্ত হয়ে এক যুবককে আছড়ে মারে হাতিটি। স্থানীয় সূত্রের খবর, ওই যুবকের নাম শৈলেন মাহাতো। বয়স ২৬-২৭ বছরের আশেপাশে। লালগড়েরই বাঁদগোড়া এলাকার বাসিন্দা।

[আরও পড়ুন: প্রকৃতি বাঁচাতে বনাঞ্চল তৈরি, বনদপ্তরের উদ্যোগে দক্ষিণ দিনাজপুরে সবুজায়ন]

স্থানীয় বাসিন্দারা জানাচ্ছেন এখনও এলাকায় ব্যাপক উত্তেজনা রয়েছে। আশিস মণ্ডল নামের এক স্থানীয় বাসিন্দা জানান, এলাকায় ব্যাপক উত্তেজনা রয়েছে। এই ঘটনার পর আরও দশ-বারোটি হাতি বেরিয়ে আসে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে না আসলে আরও বিপদ বাড়তে পারে। বনদপ্তরের আধিকারিকরা বনদপ্তরের আধিকারিকরা পুরো ঘটনার উপর নজর রাখছেন। হাতিটি শান্ত না হওয়া পর্যন্ত তাঁকে বনাঞ্চলে পাঠানো যাবে না বলে মনে করছেন আধিকারিকরা। এদিকে, বৃহস্পতিবার রাত ১০ টা নাগাদ হাতির আক্রমণে মৃত্যু হয় এক ব্যাক্তির। মালবাজার মহকুমার নাগরাকাটা ব্লকের সুখানী বস্তির জলঢাকা মোড়ের কাছে হাতির হামলায় মৃত্যু হয় এক ব্যক্তির। এ ঘটনায় এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। পুলিশ সুত্রেই জানা গিয়েছে মৃতের নাম বীরবল সিং রাই (৬৬)।

 

ছবি: প্রতিম মৈত্র

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং