০৫ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  রবিবার ২২ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

নিষেধাজ্ঞা না মেনে মেলায় তারস্বরে বাজল মাইক, মঞ্চে হাজির থেকে বিতর্কে রাজ্যপাল

Published by: Sucheta Chakrabarty |    Posted: February 20, 2020 11:11 am|    Updated: February 20, 2020 11:11 am

Loudspeaker row at Uluberia event attended by Governor

মনিরুল ইসলাম, উলুবেড়িয়া: মাধ্যমিক পরীক্ষার জন্য প্রশাসনের তরফ থেকে নিষেধ করা হয়েছে মাইক ব্যবহারে। তবে সেই মেলা উপলক্ষে উলুবেড়িয়ায় তারস্বরে বাজল মাইক, বক্স ও ডিজে। আবার সেই মেলায় বক্তব্য রাখলেন পশ্চিমবঙ্গের রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। বুধবার সন্ধ্যায় এমনই ঘটনা ঘটল শ্যামপুরের অনন্তপুর এলাকায়।

বুধবার শ্যামপুরের অনন্তপুরে মিল মাঠে এক কালীর মেলা উদ্বোধন হয়। এই মেলা উদ্বোধন করেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়।উপস্থিত ছিলেন তাঁর স্ত্রী সুদেশ ধনকড়ও। স্থানীয়দের অভিযোগ বুধবার সন্ধ্যা থেকে মাইক বাজতে শুরু করে। মাধ্যমিক পরীক্ষা শুরু হওয়ায় প্রশাসনের তরফ থেকে মাইক ব্যবহারে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়। তা সত্ত্বেও মাইক ব্যবহার করায় অসুবিধায় পড়ে এলাকার পরীক্ষার্থীরা।। অনুষ্ঠানের এই মঞ্চ থেকেই বক্তব্য রাখেন রাজ্যপাল। এই মঞ্চের উপরেই রাখা ছিল ডিজে বক্স। মঞ্চের কুড়ি ফুট দূরেই বাজছিল চার জোড়া ডিজে। অনুষ্ঠান মাঠ ঘিরে রয়েছে ঘন জনবসতি। রাজ্যপালের বক্তব্যের সময় অবশ্য মাইক বন্ধ রাখলেও তারস্বরে বেজেছে বক্স ও ডিজে।

এদিন অনুষ্ঠানে গোড়া থেকেই রাজ্যপাল বেশ খোশ মেজাজে ছিলেন। অনুষ্ঠানের মঞ্চ থেকে নারীশিক্ষা নিয়ে বক্তব্য রাখেন। তবে বক্স বাজানোর এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে বিতর্ক তৈরি হয়েছে। প্রশ্ন উঠেছে রাজ্যপালের ভূমিকা নিয়েও। অনেকেরই প্রশ্ন যিনি সবসময় সংবিধান মেনে চলার পরামর্শ দেন তিনি কী করে এই অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখতে পারলেন। রাজ্যপালের এই কাজকে কটাক্ষ করেছেন শ্যামপুরের তৃণমূল বিধায়ক কালীপদ মণ্ডল। যদিও এব্যাপারে হাওড়ার পুলিশ ও সাধারণ প্রশাসনের কেউ মন্তব্য করতে চাননি। মেলা কর্তৃপক্ষ অবশ্য জানিয়েছে, তারা পুলিশের কাছ থেকে মেলার অনুমতি নিয়েছিল। কিন্তু মাইক‌ বক্স বা ডিজে বাজানোর অনুমতি ছিল না তাদের কাছে।

[আরও পড়ুন: ২ গোষ্ঠীর বোমাবাজির মাঝে পড়ে মৃত যুবক, ক্ষোভে ফুঁসছে বীরভূমের কাঁকড়তলা]

মেলা কমিটির সম্পাদক ভোলানাথ মণ্ডল স্বীকার করেন, মাধ্যমিক পরীক্ষা থাকায় মাইক, বক্স ও ডিজে বাজানো ঠিক হয়নি। অনুষ্ঠানের সময় আমরা এসব নিয়ন্ত্রণ করতে পারিনি। তবে এটা প্রথম নয় প্রতি বছরই এখানে এভাবে অনুষ্ঠান করা হয় বলে জানান স্থানীয়রা। একাধিক স্থানীয় বাসিন্দারা পুলিশের ভূমিকা নিয়ে ও ক্ষোভপ্রকাশ করেন। মাইক বাজানো ছাড়াও দোকানপাট বসিয়ে চলে হইহুল্লোড়। মেলাস্থল থেকে ঢিল ছোঁড়া দূরত্বে অনন্তপুর হাইস্কুল ও বেলপুকুর হাই স্কুল। প্রচুর পরীক্ষার্থী রয়েছে সেখানে। ডিজের আওয়াজে অসুবিধায় পড়ে সেখানের পরীক্ষার্থীরাও।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে