২ কার্তিক  ১৪২৬  রবিবার ২০ অক্টোবর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সৌরভ মাজি, বর্ধমান: দীর্ঘদিন ধরে হুমকি দিচ্ছিল প্রমিকার বাড়ির লোকজন৷ মানসিক ভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়ছিলেন যুবক৷ অবশেষে চরমতম পথ বেছে নিলেন তিনি৷ নিজেকে শেষ করে এই সমস্ত সমস্যা থেকে মুক্তির উপায় খুঁজে নিলেন যুবক৷ চরম মানসিক অবসাদে আত্মহত্যার পথ বেছে নিলেন৷ সোমবার এমনই মর্মান্তিক ঘটনার সাক্ষী থাকল বর্ধমানের মেমারির কুচুট গ্রাম৷ মৃতের নাম ব্রজ গঙ্গোপাধ্যায়৷ মৃতের কাছ থেকে পাওয়া সুইসাইড নোট থেকে আত্মহত্যার কারণ জানতে পারেন পুলিশ ও মৃতের বাড়ির পরিজনরা৷ এরপরই অভিযুক্ত প্রেমিকার বাড়ি ঘেরাও করে বিক্ষোভ দেখান তাঁরা৷ রাতে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে৷

[ আরও পড়ুন: দরিদ্র পড়ুয়াদের জন্য সাহায্যের হাত বাড়াল টিএমসিপি, হিঙ্গলগঞ্জ কলেজে ব্যতিক্রমী ছবি]

জানা গিয়েছে, কলকাতার একটি বেসরকারি সংস্থায় চাকরি করতেন ব্রজ গঙ্গোপাধ্যায়। থাকতেন বারাসতে। সোমবার সেখানেই তিনি আত্মঘাতী হয়েছেন বলে বলে তাঁর পরিবার সূত্রে খবর৷ জানা গিয়েছে, মৃতের কাছ থেকে একটি সুইসাইড নোট উদ্ধার করেছে পুলিশ৷ সেখান থেকেই সমস্ত ঘটনা স্পষ্ট হয়েছে বলে সূত্রের খবর৷ মৃতের পরিবারের দাবি, দীর্ঘদিন ধরেই কুচুট গ্রামের এক তরুণীর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্কে ছিলেন ব্রজ। সেই সম্পর্কের কথা স্থানীয়রা প্রায় সকলেই জানতেন। তাঁদের বিয়ে হওয়ারও কথা ছিল৷ কিন্তু বাধা হয়ে দাঁড়ায় ওই তরুণীর বাড়ির লোকজন৷ অভিযোগ, ব্রজর সঙ্গে মেয়ের প্রেমের সম্পর্কের কথা জানতে পেরেই, অন্য একজনের সঙ্গে ওই তরুণীর বিয়ে ঠিক করে ফেলে পরিবারের লোকজন। এবং ক্রমাগত ব্রজকে হুমকি দিতে থাকে তারা৷ একটা সময় চরম মানসিক অবসাদে ভুগতে থাকেন আত্মঘাতী যুবক৷ অবশেষে সোমবার আত্মহত্যার পথ বেছে নেন তিনি৷

স্থানীয় সূত্রে খবর, ব্রজর মৃত্যুর খবর বিকেলে গ্রামে আসার পরই ক্ষোভে ফেটে পড়েন তাঁর পরিবারের সদস্যরা৷ স্থানীয়দের নিয়ে ওই তরুণীর বাড়ি ঘেরাও করেন  এবং বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন তাঁরা৷ বন্ধ করে দেন মেমারি-পাহাড়হাটি রোড। অবরুদ্ধ হয়ে পড়ে গোটা এলাকার যান চলাচল৷ স্থানীয়দের দাবি, ওই তরুণীর পরিবারের লোকজনই ব্রজকে আত্মহত্যার প্ররোচনা দিয়েছে। ফলে তাঁদের যথাযথ শাস্তি দিতে হবে৷ জানা গিয়েছে, গন্ডগোলের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসে বিশাল পুলিশ বাহিনী। মৃতের পরিবারের সদস্যদের ও স্থানীয়দের বোঝান তাঁরা৷ তাঁদের সঙ্গে কথা বলে সোমবার রাতে অবরোধ তুলতে সমর্থ হন পুলিশ কর্মীরা৷

[ আরও পড়ুন: তৃণমূল নেতার বিরুদ্ধে ১০০ কোটি টাকা কাটমানি ফেরতের দাবিতে পোস্টার ]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং