BREAKING NEWS

১২ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

বাইরে থেকে টাকা এনে অশান্তি করছে বিজেপি, রানিগঞ্জের সভায় আক্রমণ মমতার

Published by: Tanumoy Ghosal |    Posted: April 26, 2019 3:43 pm|    Updated: April 26, 2019 3:47 pm

An Images

কিংশুক প্রামাণিক, রানিগঞ্জ: ঝাড়খণ্ডের থেকে টাকা নিয়ে এসে বাংলায় দাঙ্গা করে বিজেপি। ঝাড়খণ্ড থেকে গুন্ডা, ডান্ডা এনে আসানসোলের উপর অনেক অত্যাচার করা হয়েছে। মুনমুন সেন জিতলে আসানসোলে দাঙ্গা করবেন না, উন্নয়নের কাজ করবেন। রানিগঞ্জের সভায় এভাবেই বিজেপিকে আক্রমণ করলেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। শুধু প্রধানমন্ত্রীই নন,  নাম না করে আসানসোলের বিদায়ী সাংসদ বাবুল সুপ্রিয়কেও বিঁধলেন তিনি। 

[ আরও পড়ুন: প্রচার চলাকালীন ছুরি নিয়ে হামলা, অল্পের জন্য রক্ষা পুরুলিয়ার বিজেপি প্রার্থীর]

গত লোকসভা ভোটে বাঁকুড়া থেকে সাংসদ নির্বাচিত হয়েছিলেন। আর এবার আসানসোল থেকে মুনমুন সেনকে প্রার্থী করেছে তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। শুক্রবার রানিগঞ্জে দলের প্রার্থীর সমর্থনে জনসভা করলেন তিনি। মোদি তো বটেই, মুখ্যমন্ত্রীর নিশানায় ছিলেন আসানসোলে বিদায়ী সাংসদ বাবুল সুপ্রিয়। নাম না করে মমতা বলেন,  “না জানেন বাংলার সংস্কৃতি, না জানেন বিহারের সংস্কৃতি। অশ্লীল ভাষায় খালি গালিগালাজ করতে জানেন। মা-বোনেদের কাছে অনুরোধ, ওঁকে ভোট দেবেন না।” মুনমুন সেনের মা সুচিত্রা সেনের উল্লেখ করেন মমতা। তিনি অভিযোগ করেন, রানিগঞ্জ খনিতে বিজেপি মাফিয়ারাজ চালাচ্ছে। তৃণমূল মাফিয়ারাজ চালায় না। খনির দেখভালের দায়িত্বে সিআইএসএফ, কেন্দ্রীয় পুলিশ। তৃণমূলের কেউ জড়িত থাকলে গ্রেফতার করবে না কেন?”

হিন্দিভাষীদের প্রাধান্য রয়েছে রানিগঞ্জে। মুখ্যমন্ত্রী জানান, এখানে ছটেও ছুটি দেওয়া হয়। দোলেও যেমন ছুটি থাকে, তেমনই হোলিতেও থাকে। সব ধর্মকেই সম্মান দেওয়া হয়। দাঙ্গার সংস্কৃতি বাংলার সংস্কৃতি নয়। বিজেপির রাজনীতির সমালোচনা করে মমতা বলেছেন, “আমরা কি বিজেপির জন্মের পরই পুজো শুরু করেছি? বাংলায় তারাপীঠ, মায়াপুর, তারকেশ্বর, দক্ষিণেশ্বর, কালীঘাট দেখে আসুন। আর ওঁরা রাম মন্দিরের নাম করেই যাচ্ছে। বানাতে আর পারবে না। খালি মানুষকে ধোঁকা দেওয়া হচ্ছে। গতবার ভোটের আগে বলেছিল, ১৫ লক্ষ টাকা করে দেওয়া হবে। নোটবন্দির নামে ধাপ্পা দেওয়া হয়েছে।” তিনি প্রশ্ন করেন, এখানে কি দুর্গাপুজো করতে দেওয়া হয় না? প্রচারের সময় বসন্তের কোকিলের মতো এসে বলছে, এখানে নাকি দুর্গাপুজো করা যায় না! তিনি মোদিকে আক্রমণ করেন, “মিথ্যাবাদী। ধোঁকাবাজ। দুর্যোধন-দুঃশাসন জগাই-মাধাইকে সঙ্গে নিয়ে দেশকে সর্বনাশের পথে নিয়ে যাচ্ছে।”

[ আরও পড়ুন; ভোট-পরবর্তী হিংসা অব্যাহত, মালদহে তৃণমূল কর্মীকে কুপিয়ে খুন]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement