৩০ ভাদ্র  ১৪২৬  মঙ্গলবার ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

চন্দ্রশেখর চট্টোপাধ্যায়, আসানসোল: এক সপ্তাহে এই নিয়ে চতুর্থবার৷ হীরাপুর, জামুরিয়া, কুলটির পর ছেলেধরা সন্দেহে গণপিটুনির ঘটনা ঘটল আসানসোলের সালানপুরের দেন্দুয়া রেলগেট এলাকায়৷ এই ঘটনায় মৃত্যু হয়েছে অজ্ঞাত পরিচয় এক যুবকের৷ ঘটনাকে কেন্দ্র করে বুধবার সকালে থেকে উত্তেজনা ছড়িয়েছে সালানপুরে৷ ইতিমধ্যে এই ঘটনায় যুক্ত সন্দেহভাজন একজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ৷

[ আরও পড়ুন: অবশেষে স্বস্তির বৃ্ষ্টি, আগামী ৪৮ ঘণ্টা রাজ্যজুড়ে ভারী বর্ষণের পূর্বাভাস ]

জানা গিয়েছে, বুধবার সকালে ওই যুবকে সালানপুরের দেন্দুয়া রেল গেটের সামনে ঘোরাফেরা করতে দেখেন স্থানীয় বস্তির বাসিন্দা৷ কোন জায়গা থেকে সে এসেছে, কী কারণে এলাকায় ঘোরাফেরা করছে ইত্যাদি প্রশ্ন করলে, উত্তর দিতে পারেনা সে৷ অভিযোগ, এরপরই ওই যুবকে প্রথমে একটি পোলের সঙ্গে বাঁধে স্থানীয় বাসিন্দারা৷ তারপর তাকে ব্যাপক মারধর করতে শুরু করে৷ অজ্ঞান হয়ে যায় ওই যুবক৷ মারধরের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছয় সালানপুর থানার পুলিশ৷ থানার এএসআই
মিঠুন মণ্ডলের সামনেই ওই যুবককে স্থানীয়রা মারধর করে বলে অভিযোগ উঠেছে৷ এরপর কোনওক্রমে তাকে বাসিন্দাদের রোষানল থেকে বাঁচিয়ে আসানসোল জেলা হাসপাতালে নিয়ে যায় পুলিশ৷ এবং সেখানে যুবককে মৃত বলে ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা৷ পুলিশ জানিয়েছে, এই ঘটনার বেশ কয়েকটি ভিডিও তাদের হাতে এসেছে৷ সেই ভিডিও থেকে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে এক ব্যক্তিকে আটক করা হয়েছে৷

[ আরও পড়ুন: বউবাজারের আতঙ্ক হাওড়ায়, প্রায় ৪০০টি বাড়ি বিপজ্জনক ঘোষণা পুরসভার ]

গত এক সপ্তাহে এই নিয়ে চতুর্থবার গণপিটুনির ঘটনা ঘটল আসানসোলে৷ হীরাপুরে গণপিটুনির ঘটনা আটকাতে গেলে আক্রান্ত হয় পুলিশ কর্মী৷ জামুরিয়াতেও এক অজ্ঞাত ব্যক্তিকে গণপিটুনি দেওয়ার ঘটনা ঘটে৷ সেখানেও আক্রান্ত হয় পুলিশ৷ সম্প্রতি কুলটির সীতারামপুরেও এক বয়স্ক ব্যক্তিকে শিশু চোর সন্দেহে গণপিটুনি দিয়ে মারধর করা হয়৷ জেলায় গণপিটুনির ঘটনা বাড়তে থাকায় নাগরিকদের মধ্যে সচেতনতা বাড়াতে মাইকিংও শুরু করেছে পুলিশ৷ এমনকী, বিধানসভায় গণপিটুনি প্রতিরোধী বিলও পাশ করেছে রাজ্যে সরকার৷ যা শীঘ্রই আইনে পরিণত হবে৷ কিন্তু তাতেও যে কাজের কাজ হচ্ছে না, বুধবার সালানপুরের ঘটনাই তার প্রমাণ৷

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং