BREAKING NEWS

২৮ শ্রাবণ  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ১৩ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

অভিজ্ঞতা নেই, ভিভিপ্যাটের স্লিপ গোনা নিয়ে বিপাকে ভোটকর্মীরা

Published by: Tanumoy Ghosal |    Posted: May 20, 2019 8:43 pm|    Updated: May 20, 2019 8:43 pm

An Images

সুমিত বিশ্বাস, পুরুলিয়া: যে ভিভিপ্যাটে নিজের ভোট যাচাই করে ভোটাররা নিশ্চিন্ত হয়েছিলেন, এবার সেই ভিভিপ্যাটের স্লিপ গুনতেই মাথার ঘাম পায়ে পড়ার অবস্থা ভোটকর্মীদের৷ কারণ, বেশিরভাগেরই যে ভিভিপ্যাট গোনার অভিজ্ঞতা নেই৷ অতীতে পরীক্ষামূলকভাবে কয়েকটি বুথে ভিভিপ্যাট ব্যবহার করা হয়েছিল। কিন্তু, এবার সমস্ত বুথে ছিল এই যন্ত্র। নির্বাচন কমিশনের নির্দেশ, স্রেফ ইভিএমে ভোট গুনলেই হবে না। গুনে দেখতে হবে ভিভিপ্যাটের স্লিপও। যতক্ষণ ভিভিপ্যাটের স্লিপের সংখ্যার সঙ্গে ইভিএমের ভোট মেলানো হচ্ছে, ততক্ষণ পর্যন্ত নির্বাচনের ফল ঘোষণা করা যাবে না। কিন্তু গণনাকেন্দ্রে যেমনভাবে টেবিলে বসিয়ে ইভিএমে ভোট গণনা হয়, তেমনিভাবে ভিভিপ্যাটের স্লিপ গোনা যাবে না। স্লিপ গুনতে হবে ভিভিপ্যাট পেপার স্লিপ কাউন্টিং বুথে। কমিশনের ভাষায় ভিসিবি।

[আরও পড়ুন: অস্বস্তির এক্সিট পোল, গ্রাহ্য করছেন না বর্ধমানের ৩ কেন্দ্রের কোনও প্রার্থীই]

কেমন হবে এই ভিসিবি? ব্যাংকে ক্যাশিয়ার বসার জন্য যেমন আলাদা একটি খাঁচার মতো ঘর থাকে, এই ভিসিবি তো তেমনিই। প্রশাসনিক কর্তারা বলছেন, যেন ‘অ্যাম্পিথিয়েটার’! ভিসিবি কেমন হবে তা একেবারে ছবি দিয়ে কমিশন নির্দেশিকা পাঠিয়ে দিয়েছে। এক-একটি খাঁচায় ছ’জন করে ভোটকর্মী  থাকবেন। তাঁরাই এই ভিভিপ্যাটের স্লিপ গুনবেন। নির্বাচন কমিশন জানিয়েছে, প্রতিটি লোকসভা কেন্দ্রের এক একটি বিধানসভা এলাকার কমপক্ষে পাঁচটি বুথের ভিভিপ্যাট স্লিপ গণনা বাধ্যতামূলক। পাঁচটি ভিভিপ্যাটের স্লিপ আবার একসঙ্গে গোনা যাবে না, গুনতে হবে আলাদাভাবে। আর তাতেই বিপাকে পড়েছেন পুরুলিয়া জেলার ভোটকর্মীরা।

[আরও পড়ুন: চমকপ্রদ ফলাফলের দিকে বাংলা, ইঙ্গিত সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটালের সমীক্ষায়]

পুরুলিয়ার জেলাশাসক রাহুল মজুমদার জানিয়েছেন, “রাউন্ড পিছু গণনার পর কমিশনের ‘সুবিধা’ পোর্টালে তা তুলতে হবে। কিন্তু যতক্ষণ না ভিভিপ্যাট গণনা শেষ হচ্ছে, ততক্ষণ পর্যন্ত ফলাফল ঘোষণা করা যাবে না।” সেক্ষেত্রে ২৩ তারিখ অনেক রাতে ভোটের ফল ঘোষণা হতে পারে বলে মনে করছেন জেলা প্রশাসনের কর্তারা। শুধু তাই নয়, কোন রাজনৈতিক দল যদি ভিভিপ্যাটের স্লিপ গোনা নিয়ে অভিযোগ তোলে কিংবা বিধানসভাভিত্তিক পাঁচটির বেশি বুথে স্লিপ গণনার দাবি ওঠে, সেক্ষেত্রে পরিস্থিতি আরও ঘোরালো হতে পারে বলেও মনে করা হচ্ছে।

ছবি: সুনীতা সিং 

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement