৪ আশ্বিন  ১৪২৬  রবিবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দিন তিনেকের বিরতির পর বৃহস্পতিবার ফের বজ্রবিদ্যুৎ-সহ বৃষ্টিতে ভিজল কলকাতা-সহ রাজ্যের একাধিক জেলা। দুই ২৪ পরগনা, মুর্শিদাবাদ এবং হুগলিতেও এদিন ভারী বৃষ্টি হয়। আগামী তিনদিন হালকা এবং মাঝারি বৃষ্টিপাতের পূর্বাভাস দিল আলিপুর আবহাওয়া দপ্তর।

এদিন বেলা গড়াতেই কলকাতার বিভিন্ন এলাকায় বিক্ষিপ্ত বৃষ্টি শুরু হয়। ভারী বর্ষণ হয় দক্ষিণ ও উত্তর ২৪ পরগনা, হুগলি, মুর্শিদাবাদ-সহ বেশ কিছু জেলায়। ফলে তাপমাত্রাও খানিকটা নিম্নমুখী। হাওয়া অফিস সূত্রে খবর, আগামী তিনদিন বজ্রবিদ্যুৎ-সহ হালকা ও মাঝারি বৃষ্টি হবে। যদিও ভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা নেই বলেই জানানো হয়েছে। কোনও বড় দুর্যোগের পূর্বাভাস আপাতত নেই। বঙ্গোপসাগরে যে ঘূর্ণাবর্ত তৈরি হয়েছিল তা ধীরে ধীরে নিম্নচাপের রূপ নিতে শুরু করলেই বৃষ্টির কবলে পড়েছে দক্ষিণবঙ্গ।

[আরও পড়ুন: অসুস্থতা নাকি অত্যাচার, বারুইপুর সংশোধানাগারে বন্দির মৃত্যুতে রহস্য]

এবার এমনিতেই এরাজ্যে দেরিতে বর্ষা ঢুকেছে৷ তবে গত সপ্তাহে একটানা তুমুল বৃষ্টিতে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছিল কলকাতা-সহ গাঙ্গেয় দক্ষিণবঙ্গে৷ গত রবিবার পর্যন্ত শহরে বৃষ্টি হয়েছে ৪৩০ মিলিমিটার। স্বাভাবিক পরিস্থিতিতে যা হওয়ার কথা ২১২ মিলিমিটার। উত্তর থেকে মধ্য ও দক্ষিণ কলকাতার বিস্তীর্ণ এলাকা জলের তলায় চলে গিয়েছিল৷ দুর্যোগ ঠেকাতে হেল্পলাইন নম্বরও চালু করে নবান্ন। এমনকী ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়ালে ঘুরতে গিয়ে বাজ পড়ে মৃত্যু হয়েছিল এক ব্যক্তির৷ জল জমে বেহাল পরিস্থিতির মধ্যে পড়েন কলেজ স্ট্রিট, সেন্ট্রাল অ্যাভেনিউ, মহাত্মা গান্ধী রোড, ঠনঠনিয়া, আমহার্স্ট স্ট্রিট, মুক্তারাম বাবু স্ট্রিট এবং বড়বাজারের বাসিন্দারা। তবে এবার বৃষ্টি ততটা দাপট দেখাতে পারবে না বলেই জানিয়েছেন আবহবিদরা।

[আরও পড়ুন: বিদেশি এজেন্সি দিয়ে প্রাণঘাতী হামলার আশঙ্কা, তড়িঘড়ি বাড়ি বদলালেন দিলীপ ঘোষ]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং