BREAKING NEWS

১১ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  বৃহস্পতিবার ২৬ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

বৃদ্ধ বাবার বুকে কামড় বসিয়ে মাংস খুবলে নিল ছেলে!

Published by: Tanumoy Ghosal |    Posted: August 11, 2018 6:42 pm|    Updated: August 11, 2018 6:42 pm

South 24 Parganas: Son bites Old man over family dispute

দেবব্রত মণ্ডল, দক্ষিণ ২৪ পরগনা: দুই ছেলের কেউই দেখে না। শেষ বয়সে চরম অর্থকষ্টে দিন কাটছে। প্রতিবেশী ও আত্মীয়দের কাছে দুর্দশার কথা বলে ফেলেছিলেন। তারই মাশুল দিতে হল বৃদ্ধ বাবাকে। বুকের কামড় বসিয়ে মাংস খুবলে নিল বড় ছেলে! লাঠি দিয়ে মেরে বাবার মাথাও ফাটিয়ে দিয়েছে সে। অমানবিক ঘটনা ঘটেছে দক্ষিণ ২৪ পরগনার জয়নগরে। ছেলের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন বাবা।

[ সার্ভিস রিভলবার থেকে গুলি চালিয়ে আত্মঘাতী জওয়ান, তদন্তে পুলিশ]

জয়নগরের চন্দনেশ্বরে স্ত্রীকে নিয়ে থাকেন সত্তর বছরের প্রৌঢ় গোপাল বাছাড়। গুরুতর অসুস্থ তাঁর স্ত্রী রাধারানি। তিনি শয্যাশায়ী। পাড়া-প্রতিবেশীরা জানিয়েছেন, গোপালবাবুর দুই ছেলে। কিন্তু, বিয়ের পর বৃদ্ধ বাবা-মাকে ফেলে আলাদা হয়ে গিয়েছে দু’জনেই। টাকা দেওয়া তো দূর অস্ত, গোপালবাবু ও স্ত্রীর খোঁজও নেয় না ছেলেরা। কোনওমতে সংসার চলে ওই বৃদ্ধ দম্পতির। সম্প্রতি নিজেদের দুর্দশার কথা পাড়া-প্রতিবেশী ও আত্মীয়দের জানিয়েছিলেন গোপাল বাছাড়। সে কারণে বৃদ্ধ বাবা-মাকে বড় ছেলে মারধর করেছে বলে অভিযোগ।

গোপাল বাছাড়ের বড় ছেলে নীলমণি থাকে সোনারপুরে। শুক্রবার রাতে আচমকাই জয়নগরের চন্দনেশ্বরের বাড়িতে হাজির হয় সে। গোপালবাবুর অভিযোগ, বাড়িতে ঢুকে তাঁকে ও তাঁর অসুস্থ স্ত্রীর বেধড়ক মারধর করেছে নীলমণি। এমনকী, বাবার বুকে কামড় বসিয়ে মাংস খুবলে নিয়েছে ‘গুণধর’ ছেলে! লাঠির আঘাতে মাথা ফেটে গিয়েছে গোপাল বাছা়ড়ের। রেহাই পাননি তাঁর অসুস্থ স্ত্রীও। শয্যাশায়ী মাকেও মারধর করেছে নীলমণি। গোপাল বাছাড়ের দাবি, বড় নীলমণি তাঁদের কাছে জানতে চান, ছেলেরা যে দেখে না, সেকথা কেন তিনি আত্মীয় ও প্রতিবেশীদের বলেছেন?  ওই বৃদ্ধের চিৎকারে ছুটে আসেন স্থানীয় বাসিন্দারা। ততক্ষণে অবশ্য পালিয়ে গিয়েছে নীলমণি। বড় ছেলের বিরুদ্ধে জয়নগর থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন গোপালবাবু। মামলা রুজু করে তদন্তে নেমেছে পুলিশ।

ছবি: বিশ্বজিৎ নস্কর

[ দ্বারেশ্বর নদে ভেসে এল বিশালাকৃতির মাছ, চাঞ্চল্য ছড়াল বাঁকুড়ায়

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে