BREAKING NEWS

২৩ শ্রাবণ  ১৪২৭  রবিবার ৯ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

মুম্বইকে পিছনে ফেলে বিমানবন্দর তৈরির দৌড়ে এগিয়ে কল্যাণী

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: May 21, 2019 9:44 am|    Updated: May 21, 2019 9:44 am

An Images

ক্ষীরোদ ভট্টাচার্য: নভি মুম্বই না নদিয়ার কল্যাণী?  কোথায় হবে দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম বিমানবন্দর? খুব শীঘ্রই এই বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে চলেছে এয়ারপোর্ট অথরিটি অফ ইন্ডিয়া। তবে রাজ্য সরকার ও এয়ারপোর্ট অথরিটি অফ ইন্ডিয়ার অভিমত, নতুন বিমানবন্দর তৈরির ক্ষেত্রে প্রথম রাউন্ডে অনেকটাই এগিয়ে কল্যাণী। কারণ অনেক। তবে মূলত উন্নত সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থার জন্যই কলকাতার লাগোয়া কল্যাণীকে অগ্রাধিকার দিচ্ছে বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ। অন্তত এমনটাই জানিয়েছেন নবান্নের শীর্ষকর্তারা।

[আরও পড়ুন: এক্সিট পোলে খুশির হাওয়া বঙ্গ বিজেপিতে, বুথভিত্তিক হিসেবনিকেশে ব্যস্ত নেতারা]

নবান্ন সূত্রে খবর, এয়ারপোর্ট অথরিটি অফ ইন্ডিয়ার শীর্ষকর্তারা সম্প্রতি রাজ্যের শীর্ষকর্তাদের সঙ্গে দু’দফায় এই ইস্যুতে আলোচনা করেছেন। এ দু’টি বৈঠকই যথেষ্ট ফলপ্রসূ হয়েছে বলে জানিয়েছেন সরকারি আধিকারিকরা। কল্যাণীতে নতুন বিমানবন্দর তৈরি করতে প্রায় ১,৩০০-১,৫০০ একর জমির প্রয়োজন। সেই জমি পেতেও যে কোনও অসুবিধা হবে না তাও রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে এয়ারপোর্ট অথরিটিকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। আবার এয়ারপোর্ট অথরিটি অফ ইন্ডিয়ার বক্তব্য, কলকাতা বিমান বন্দরের চাপ কমাতে খুব দ্রুত কলকাতা সংলগ্ন একটি উন্নতমানের বিমানবন্দর তৈরি করতে হবে। এবং এই ক্ষেত্রে রাজ্যের সহযোগিতা প্রয়োজন। তাই রাজ্য সরকার ও এয়ারপোর্ট অথরিটি যৌথ আলোচনা করে সহমত হয়েছে। বর্তমানে বছরে ১ কোটি ৮৫ লক্ষ যাত্রী কলকাতা বিমানবন্দর ব্যবহার করে। কয়েক মাস আগে ও দু’টি রানওয়ে দিয়ে ঘণ্টায় ৩৫টি বিমান ওঠানামা করত। কিন্তু যাত্রী চাপ বেড়ে যাওয়ায় এখন ঘণ্টায় ৪০টি করে বিমান ওঠানামা করে।

[আরও পড়ুন: যন্ত্র বিকলে বর্ধমান মেডিক্যালে ব্যাহত পরিষেবা, বিপাকে ক্যানসার রোগীরা]

কল্যাণীর পাশাপাশি মালদহ ও বালুরঘাটে আরও দু’টি নতুন বিমানবন্দর তৈরির কাজ প্রায় শেষ করে ফেলেছে পূর্ত দপ্তর। প্রায় ১১৪ একর জমিতে তৈরি মালদহ বিমানবন্দর। বালুরঘাট বিমানবন্দর তৈরি হচ্ছে ১৩২.৬৬ একর জমিতে। এরই পাশাপাশি দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় তৈরি পুরুলিয়ার ছররা বিমানবন্দর সংস্কারের জন্য পূর্ত দপ্তরকে নির্দেশ দিয়েছেন মুখ্যসচিব মলয় দে। এই বিমানবন্দর সংস্কারের জন্য বেসরকারি সংস্থার সাহায্য নেওয়া হবে বলে নবান্ন সূত্রে জানা গিয়েছে।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement