১৯ আষাঢ়  ১৪২৭  সোমবার ৬ জুলাই ২০২০ 

Advertisement

বাড়িতে ঢুকে গুলি, আসানসোলে ১২ বছরের কিশোর খুনের ঘটনায় ঘনীভূত রহস্য

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: June 2, 2020 8:50 am|    Updated: June 2, 2020 8:54 am

An Images

চন্দ্রশেখর চট্টোপাধ্যায়, আসানসোল: লকডাউন শিথিল হওয়ায় বাড়ির বাইরে বেরতেই মর্মান্তিক ঘটনা। ফিরে এসে ছেলের রক্তাক্ত দেহ উদ্ধার করলেন বাবা। বাড়িতে বাবার অনুপস্থিতির মাঝে আসানসোলের হিরাপুরে খুন হয়ে গেল এক কিশোর। সোমবার রাতের দিকে চিত্রা পাঞ্জাবি পাড়ায় বছর বারোর নাবালকের দেহ উদ্ধার হয়। তাকে পয়েন্ট ব্ল্যাংক রেঞ্জ থেকে গুলি করে খুন করা হয়েছে বলে প্রাথমিক ধারণা পুলিশের। কী কারণে মাত্র ১২ বছরের ছেলেকে এভাবে খুন করা হল, তা বুঝতে তদন্তে নেমেছে পুলিশ। এলাকায় শোকের পাশাপাশি দানা বেঁধেছে আতঙ্কও।

আসানসোলের হিরাপুর থানা এলাকার চিত্রা পাঞ্জাবি পাড়ার বাসিন্দা কিশোর সরণদীপ সিং। বাবা ভূপিন্দর সিংয়ের সঙ্গে থাকত সে। স্থানীয় সূত্রে খবর, বছর দশ আগে সরণদীপের মায়ের মৃত্যু হয়েছে। ভূপিন্দর সিংয়ের জমি-বাড়ির ব্যবসা ছিল বলে জানা গিয়েছে। জানা গিয়েছে, সোমবার রাত আটটার পর ভূপিন্দর সিং বাইরে বেরিয়েছিলেন খাবার কিনতে। কিছুক্ষণ পর ফিরে এসে দেখে ছেলে সরণদীপ রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে আছে। প্রাথমিক ধাক্কা সামলে তিনি খবর দেন হিরাপুর থানায়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে উদ্ধার করে সরণদীপের দেহ। প্রাথমিক অনুমান, পয়েন্ট ব্ল্যাংক রেঞ্জ থেকে তাঁকে গুলি করা হয়েছে। ফলে ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয়েছে কিশোরের।

[আরও পড়ুন: যৌনাঙ্গ ও শ্বাসনালী কেটে শ্যালককে খুনের অভিযোগ ভগ্নিপতির বিরুদ্ধে, চাঞ্চল্য মুর্শিদাবাদে]

কিন্তু কী কারণে মাত্র ১২ বছরের ছেলেকে এমন নৃশংসভাবে খুন করল আততায়ীরা? এ প্রশ্নের উত্তর খুঁজতে তদন্তে নেমেছে পুলিশ। সন্দেহভাজন হিসেবে এখনও কেউ গ্রেপ্তার হয়নি। সরণদীপের বাবা ভূপিন্দর কান্নাভেজা গলায় জানাচ্ছেন, ”আমরা সাধারণ মানুষ। কী করে এসব হল, কারাই বা ছেলেকে এভাবে মারল, কিছুই বুঝতে পারছি না।” তবে তদন্তকারীদের একাংশের প্রাথমিক অনুমান, জমি-বাড়ির ব্যবসার সঙ্গে যুক্ত ভূপিন্দরের সঙ্গে কারও ব্যবসায়িক শত্রুতার জেরে এই ঘটনা। সে নিজে সম্প্রতি কোনও অন্য কোনও সমাজবিরোধী কাজে যুক্ত হয়ে পড়েছিল কি না, তার জেরেই তাকে এভাবে প্রাণ খোয়াতে হল কি না, সেই দিকটাও উড়িয়ে দিতে পারছেন না তদন্তকারীদের আরেকাংশ। এই মুহূর্তে আততায়ীদের গ্রেপ্তার করে দ্রুত খুনের জট খুলতে মরিয়া হিরাপুর থানার পুলিশ।

[আরও পড়ুন: দুস্থদের পাশে থাকতে ‘অঞ্জলি’ কর্মসূচি মহিলা তৃণমূলের, বিলি করা হল সবজির প্যাকেট]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement