BREAKING NEWS

৮ বৈশাখ  ১৪২৮  বৃহস্পতিবার ২২ এপ্রিল ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

মালদহে চেনা ‘বিভাজনে’র পিচেই ব্যাট যোগীর, উঠল দুর্গাপুজো-লাভ জেহাদ-গোহত্যা প্রসঙ্গ

Published by: Paramita Paul |    Posted: March 2, 2021 3:18 pm|    Updated: March 2, 2021 4:28 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মালদহে ‘বিভাজনে’র চেনা পিচেই ব্যাট করলেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ (Yogi Adityanath)। সরাসরি সংখ্যালঘু তোষণের অভিযোগ আনলেন রাজ্যের শাসকদলের বিরুদ্ধে। যোগীর অভিযোগ, “দুর্গাপুজো-মহরম একসঙ্গে পড়লে বাংলায় মহরমের অনুমতি দেওয়া হয়। দুর্গাপুজো বন্ধ রাখা হয়। ভোট ব্যাংকের জন্য বাংলার সংস্কৃতিকে নষ্ট করছে তৃণমূল।” ভাষণের পরতে পরতে উত্তরপ্রদেশের সঙ্গে বাংলার তুলনা টানলেন এই ‘কট্টরপন্থী’ হিন্দু নেতা। 

রাজনৈতিকভাবে তাৎপর্যপূর্ণ মালদহের গাজোলে পরিবর্তন যাত্রার সূচনায় মঙ্গলবার হাজির ছিলেন যোগী আদিত্যনাথ। সেই সভামঞ্চ থেকে যোগীর মন্তব্যে উঠে এল এ রাজ্যের রামনাম ‘বিরোধিতা’, সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন, লাভ জেহাদ এমনকী সংখ্যালঘু তোষণের কথাও। তবে শুধু ধর্মীয় বিভাজনের রাজনীতিতেই সীমাবদ্ধ ছিল না বিজেপি নেতার ভাষণ। বরং তাঁর কথায় উঠে এসেছে, বাংলার বেকারত্ব, দুর্নীতি প্রসঙ্গও। ছুঁয়েছেন বাংলার জাতীয়তাবাদের ইতিহাস।

[আরও পড়ুন : পরিবর্তন যাত্রা থেকে কটূক্তি, তৃণমূল-বিজেপি সংঘর্ষে রণক্ষেত্র উত্তরপাড়া]

এদিনের ভাষণের শুরুতেই ‘বাংলায় জয় শ্রীরাম ধ্বনিকে নিষিদ্ধ করার চক্রান্ত চলছে’ বলে অভিযোগ করেন যোগী আদিত্যনাথ। তাঁর কথায়, “যাঁরা রামনামের বিরোধিতা করেন তাঁদের দরকার নেই এ রাজ্যে।” উঠে আসে সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের কথাও। উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রীর কথায়, “কেন্দ্রের মোদি সরকার বাংলাদেশ, পাকিস্তান, আফগানিস্তানের শরণার্থীদের জন্য নাগরিকত্ব আইন এনেছে। কিন্তু বাংলায় সেই আইনের বিরোধিতা করছে তৃণমূল সরকার।” এই আইনের বিরোধিতা কেন, সেই প্রশ্ন তুলেছেন তিনি। লাভ জেহাদ, গোহত্যা, তোষণ নিয়ে উত্তরপ্রদেশের সঙ্গে বাংলার তুলনা টানেন যোগী। 

যোগীর কথায়, “উত্তরপ্রদেশে সরকার লাভ জেহাদ, গরু চুরি, গোহত্যার বিরুদ্ধে আইন এনেছে। কিন্তু এ রাজ্যে তা হয় না। বরং গোহত্যা, গরু চুরি , লাভ জেহাদকে তোল্লাই দেওয়া হয় বাংলায়।” তাঁর কথায়, এসব ‘তোষণ’ হয় ভোটব্যাংকের রাজনীতির কথা মাথায় রেখে। যোগীর এহেন সভার পর অনেকই মনে করছেন, ইচ্ছাকৃতভাবে মালদহের ভোটের মেরুকরণ করার জন্য এই ধরনের মন্তব্য করলেন তিনি। 

[আরও পড়ুন : ভাঙড়ে ISF কর্মীর বাড়ি থেকে উদ্ধার বোমা-আগ্নেয়াস্ত্র, গ্রেপ্তার ৪]

তবে শুধুমাত্র ধর্মীয় মেরুকরণের মধ্যেই আটকে থাকেনি যোগীর ভাষণ। সভার শুরুতেই তাঁর ভাষণে উঠে এসেছে বাংলার ইতিহাসের জয়ধ্বনি। বলেছেন, বঙ্কিমচন্দ্রের আনন্দমঠ, বন্দেমাতরম থেকে স্বামী বিবেকানন্দের ধর্মীয় চেতনার কথা। তুলে এনেছেন রামমন্দির আন্দোলনে কলকাতার বড়বাজারের রাম কোঠারি ভাইদের কথাও। বলতে ভোলেননি, রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরর কথা। অভিযোগ করেছেন বাংলার শাসকদলের দুর্নীতি, তোলাবাজি নিয়েও। উত্তরপ্রদেশ মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের কথায়, ”উত্তরপ্রদেশে যারা আগে তোলাবাজি, গুণ্ডাগিরি করত, তারা এখন জেলের ভিতরে রয়েছে। বিজেপি ক্ষমতায় এলে এই গুণ্ডাগিরি থেকে মুক্তি পাবে বাংলা।”

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement