BREAKING NEWS

১৫  আষাঢ়  ১৪২৯  শুক্রবার ১ জুলাই ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

গৃহবধূর মুখে অ্যাসিড ছুঁড়ে খুন, অভিযুক্তদের ধরে বেদম মার প্রতিবেশীদের

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: October 11, 2019 2:07 pm|    Updated: October 11, 2019 2:07 pm

Woman dies after acid attack in Murshidabad's Salar

ছবি:প্রতীকী।

চন্দ্রজিৎ মজুমদার, কান্দি: গৃহবধূকে অ্যাসিড দিয়ে পুড়িয়ে মারার অভিযোগে উত্তপ্ত মুর্শিদাবাদের সালারের গুলাটিয়া গ্রাম। অভিযুক্ত স্বামী-সহ শ্বশুরবাড়ির সদস্যদের ঘেরাও করে প্রতিবেশীরা বেধড়ক মারধর করেন। পরে কান্দি থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। পলাতক মূল অভিযুক্ত স্বামী সমীর মাজি। শুরু হয়েছে খুনের তদন্ত। 

[ আরও পড়ুন: ‘একদিকে মানুষ খুন হচ্ছে আর অন্যদিকে মস্তি হচ্ছে’, কার্নিভ্যালকে কটাক্ষ দিলীপের]

বৃহস্পতিবার রাতে গুলাটিয়া গ্রামে সুকুমারী মাজি নামে বছর চব্বিশের এক গৃহবধূর মুখে অ্যাসিড ছোঁড়া হয়। অভিযোগের তির তাঁর স্বামী ও শ্বশুরবাড়ির অন্যান্য সদস্যদের বিরুদ্ধে। অ্যাসিড আক্রান্ত হয়ে সুকুমারীর মৃত্যু হলে তাঁর দেহটি পাশে আমবাগানে ঝুলিয়ে দেওয়া হয়। ঘটনাটি প্রতিবেশীদের নজরে পড়তেই তাঁরা তড়িঘড়ি দেহ উদ্ধার করে কান্দি মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে সুকুমারীকে মৃত বলে ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা। মৃতদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে।
স্থানীয় সূত্রে খবর, চার বছর আগে সুকুমারীর বিয়ে হয় গুলাটিয়া গ্রামের সমীর মাজি নামে এক যুবকের সঙ্গে। বিয়ের পর থেকেই স্বামীর মদ্যপান নিয়ে দম্পতির মধ্যে অশান্তি চলছিলই। মাঝেমধ্যে মদ্যপ সমীর সুকুমারীর উপর অত্যাচার করত বলেও অভিযোগ প্রতিবেশীদের। এরপর বৃহস্পতিবার রাতে অশান্তি চরমে ওঠে। শ্বশুর, শাশুড়িও সুকুমারীর উপর ক্ষিপ্ত হয়। তারপর একসঙ্গে মিলে তাঁর মুখে অ্যাসিড ছোঁড়া হয় বলে অভিযোগ।

[ আরও পড়ুন: কেতুগ্রামে দুর্গাপ্রতিমা ভাঙচুরের ঘটনায় ধৃত দুষ্কৃতী]

ঘটনা জানাজানি হতে প্রতিবেশীদের একটি দল অভিযুক্তদের ঘেরাও করে ব্যাপক মারধর করেন। খবর পৌঁছায় কান্দি থানায়। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে অভিযুক্তদের গণপিটুনির হাত থেকে উদ্ধার করে। আর এই সুযোগে পুলিশের হাত ফসকে পালাতে সক্ষম হয় মূল অভিযুক্ত সমীর মাজি। তার খোঁজে রাত থেকেই তল্লাশি শুরু করেছে পুলিশ অ্যাসিড দিয়ে গৃহবধূকে খুনের ঘটনায় গ্রামে রাতভর উত্তপ্ত পরিস্থিতি ছিল। তাই অশান্তি যাতে না ছড়ায় তার জন্য পুলিশ পিকেট বসানো হয়। যদিও ঘটনায় এখনও কেউ গ্রেপ্তার হয়নি। আর তাতেই ক্ষোভ বাড়ছে প্রতিবেশীদের।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে