৩০ আষাঢ়  ১৪২৬  সোমবার ১৫ জুলাই ২০১৯ 

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

রিন্টু ব্রহ্ম, কালনা : প্রথমে ভাব জমানো। তারপর অসহায়তার সুযোগে ভুল ট্রেনে তুলে দেওয়া। আর রাতের ফাঁকা ট্রেনে সেই তরুণীকেই ধর্ষণের চেষ্টা করে এক দুষ্কৃতী৷ আত্মসম্মান রক্ষায় চলন্ত ট্রেন থেকে ঝাঁপ দেন তরুণী বধূ। শুক্রবার রাতের ঘটনায় এখনও হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে লড়াই করছেন ওই তরুণী।
অভিযুক্তকে চিহ্নিত করা গেলেও, এখনও গ্রেপ্তার হয়নি সে৷

[আরও পড়ুন: মাথাভাঙায় ‘আক্রান্ত’ বনমন্ত্রী, হামলার অভিযোগ বিজেপির বিরুদ্ধে]

ঘটনা শুক্রবার রাতে, কাটোয়া লোকালের৷ ব্যান্ডেল-কাটোয়া রেল শাখার লক্ষ্মীপুর স্টেশনের কাছে রেললাইনের ধারে তরুণীকে অচৈতন্য অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখেন স্থানীয়রা। খবর পেয়ে পূর্বস্থলীর থানার পুলিশ তরুণীকে উদ্ধার করে পূর্বস্থলী হাসপাতালে ভর্তি করায়। পরে খবর পেয়ে ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে কাটোয়া
জিআরপি। ওই বিবাহিতা তরুণীর অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত শুরু করেছে রেল পুলিশ। অভিযুক্তকে চিহ্নিত করে গ্রেপ্তার করতে মরিয়া তদন্তকারীরা।
তবে ওই তরুণীর কথাবার্তাতেও কিছু অসঙ্গতি লক্ষ্য করেছেন তদন্তকারী। তরুণী কিছুটা সুস্থ হলে ফের তাঁর সঙ্গে কথা বলা হবে বলে রেল পুলিশ সূত্রে খবর। পুলিশ তরুণীর কাছ থেকে জানতে পেরেছে, তিনি দক্ষিণ ২৪ পরগনার সোনারপুরের বাসিন্দা। তাঁর স্বামী কেরলে শ্রমিকের কাজ করেন। ওই তরুণী সেখানে গিয়েছিলেন। সেখান থেকে একাই ট্রেনে বাড়ি ফিরছিলেন তিনি। শুক্রবার রাতে তিনি হাওড়া স্টেশন এসে পৌঁছান। হাওড়া স্টেশনে বসেছিলেন তিনি। সেই সময় এক ব্যক্তি
তাঁর সঙ্গে যেচে ভাব জমায়। তাঁর সঙ্গে কথা বলে। তরুণীর কাছে ট্রেনের টিকিট ছিল না জানতে পেরে ওই ব্যক্তি তাঁকে রেল পুলিশের ভয় দেখাতে থাকে। বিনা টিকিটে যাত্রা করায় তাঁকে পুলিশ ধরে নিয়ে যাবে বলেও ভয় দেখায় ওই ব্যক্তি। ওই তরুণী ভয়ে ওই যুবকের সাহায্য চান। আর সাহায্যের নামে ওই যুবক ওই তরুণীকে ফাঁদে ফেলে। ওই তরুণী অসুস্থও ছিলেন। ওই যুবককে সাহায্যের জন্য বলেন। সোনারপুরে যাওয়ার ট্রেনে চাপানোর নাম করে তাঁকে কাটোয়াগামী ট্রেনে উঠিয়ে দেয় বলে অভিযোগ জানিয়েছেন তরুণী।

[আরও পড়ুন: কোচবিহারে ‘গদ্দার’ কে? প্রশ্ন উঠেছে তৃণমূলের অন্দরে]

ট্রেনটি পূর্বস্থলীর কাছে আসার পর কার্যত ফাঁকা হয়ে যায় কামরা। ফাঁকা ট্রেন বুঝে ওই ব্যক্তি তরুণীর শ্লীলতাহানি করতে থাকে বলে অভিযোগ। এমনকী ধর্ষণেরও চেষ্টা করে। ওই তরুণী এদিন পূর্বস্থলী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বলেন, “আমাকে ধর্ষণের চেষ্টা করে ওই ব্যক্তি। কামরায় কেউ ছিল না। চিৎকার করলেও কাউকে পাব না। সম্মান বাঁচাতে ট্রেন থেকে ঝাঁপ দিই।” রাতভর রেল লাইনের ধারেই পড়েছিলেন তিনি। পরে পুলিশ উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠায়। 

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং