৩০ চৈত্র  ১৪২৭  মঙ্গলবার ১৩ এপ্রিল ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

স্বামীর সঙ্গে বিবাদ, পাথরপ্রতিমায় তিন সন্তানকে বিষ খাইয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা স্ত্রীর

Published by: Abhisek Rakshit |    Posted: March 17, 2021 4:37 pm|    Updated: March 17, 2021 4:57 pm

An Images

ছবি: প্রতীকী

সুরজিৎ দেব ,ডায়মন্ডহারবার:  স্বামী-স্ত্রীর পারিবারিক বিবাদে তিন নাবালক সন্তানকে বিষ খাইয়ে নিজেও আত্মহত্যার (Suicide) চেষ্টা করলেন স্ত্রী। প্রতিবেশীরা উদ্ধার করে প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে গেলেও চিকিৎসা (Treatment) চলাকালীনই মৃত্যু হয় সাত বছরের এক শিশুর। মৃত শিশুর নাম শান্তনু ভড়। মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটেছে বুধবার (Wednesday) ভোরে দক্ষিণ ২৪ পরগণার পাথরপ্রতিমা (Pathar Pratima) থানার অন্তর্গত যোগেন্দ্রপুর এলাকায় ।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্র থেকে জানা গিয়েছে, ওই মহিলার নাম শেফালি ভড়। বয়স ৩৭ বছর। স্বামী রাজু ভড় কর্মসূত্রে হুগলিতে (Hooghly) থাকেন। সেখানে তিনি আলুর গোডাউনে কাজ করেন। তিন শিশু সন্তানকে সঙ্গে নিয়ে ওই ব্যক্তির স্ত্রী পাথরপ্রতিমার যোগেন্দ্রপুরে নিজেদের বাড়িতেই থাকতেন।

[আরও পড়ুন:কর্মসংস্থান থেকে সরাসরি অর্থসাহায্য, ইস্তেহার প্রকাশের আগেই ‘অঙ্গীকারপত্রে’ চমক তৃণমূলের]

রাজু ভড়ের মামা বিষ্ণুপদ সানি তাদের বাড়ির পাশেই থাকেন। তিনি পুলিশকে জানান, সকালে বাড়ির কেউ ঘুম থেকে উঠছে না দেখে বাড়িতে খোঁজ করতে গিয়ে দেখেন এই মর্মান্তিক দৃশ্য। এই দৃশ্য দেখে তিনি প্রতিবেশীদের ডাকেন। সঙ্গে সঙ্গে তাঁরা গদামথুরা প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে যান মা ও তিন সন্তানকে। সেখানেই চিকিৎসা চলাকালীন এক শিশুর মর্মান্তিক মৃত্যু হয়।

[আরও পড়ুন:গেরুয়া শিবিরে অব্যাহত ‘প্রার্থী’ বিক্ষোভ, দিনভর উত্তপ্ত কলকাতা ও জেলার বিভিন্ন প্রান্ত]

মামা বিষ্ণুপদ সানি জানান, মঙ্গলবার (Tuesday) রাতে ওই মহিলাকে তাঁর স্বামীর সঙ্গে ফোনে কথা বলতে শুনেছিলেন। সেই কথোপকথন চলাকালীন ঝগড়া হয় স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে। প্রতিবেশীরা আশঙ্কা করছেন ফোন রাখার পরেই ওই মহিলা তিন নাবালক শান্তনু ভড় , ন’ বছরের কন্যা পায়েল ভড় ও চার বছরের পুত্র সূর্য ভড়কে ইঁদুর মারার বিষ ‘থাইমেট’ খাইয়ে নিজেও ওই বিষ খেয়ে নেন।

শেষ পাওয়া খবরে, অসুস্থ মা ও দুই শিশুকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ডায়মন্ড হারবার মেডিক্যাল হাসপাতালে (Diamond Harbour Government Medical College) স্থানান্তরিত করা হয়েছে। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement