BREAKING NEWS

১৫  আষাঢ়  ১৪২৯  শনিবার ২ জুলাই ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

দিল্লির নির্মীয়মাণ বহুতলে উদ্ধার চোপড়ার যুবকের ঝুলন্ত দেহ

Published by: Bishakha Pal |    Posted: June 28, 2019 4:09 pm|    Updated: June 28, 2019 5:19 pm

Youth from West Bengal found dead in an Mumbai apartment

শঙ্করকুমার রায়, রায়গঞ্জচোপড়ার যুবকের মৃতদেহ মিলল দিল্লির এক নির্মীয়মাণ বহুতল থেকে। অভিযোগ, গত ২১ জুন বাড়িতে না বলে ওই যুবক তার প্রেমিকাকে নিয়ে পালিয়ে যায়। দিল্লিতে মেয়ের এক আত্মীয়ের বাড়িতে গিয়ে আশ্রয় নেয় তারা। বৃহস্পতিবার দিল্লির এক নির্মীয়মাণ বহুতল থেকে যুবকের ফাঁস লাগানো দেহ উদ্ধার হয়। ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায়।

চোপড়া থানার ঝাড়বাড়ি এলাকায় বাড়ি নাসিম হকের। গত ২১ জুন না বলে বাড়ি থেকে উধাও হয়ে যায়। ওই এলাকারই উমা সালেমাকেও সেদিন থেকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিল না। সূত্রের খবর, তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক ছিল। জানা গিয়েছে, নাসিম ও উমা একসঙ্গে হরিয়ানা পালিয়ে যায়। খোঁজ নিয়ে জানা যায়, হরিয়ানায় মেয়েটির এক আত্মীয়ের বাড়িতে ছিল তারা। অভিযোগ, গত মেয়ের ওই আত্মীয়রা নাসিমকে মঙ্গলবার দিল্লির সান কলোনিতে নিয়ে আসে। সেখানে বাথরুম থেকে ছেলেটি ফেসবুকে সেলফি ভিডিও পোস্ট করে। তাতে সে দাবি করে, মেয়েটির আত্মীয়ের বাড়িতে তাকে মারধর করা হচ্ছে। তাকে খুন করতে চায় উমার আত্মীয়রা বলেও দাবি করে নাসিম। স্পষ্ট বলে, আমি খুন হতে পারি।” এরপরই ছেলেটির বাড়িতে মৃত্যু সংবাদ জানিয়ে ফোন আসে।

[ আরও পড়ুন: নরেন্দ্রপুুরে বাড়ির কাছেই উদ্ধার নিখোঁজ যুবকের দেহ, অধরা মূল অভিযুক্ত ]

নাসিমের মা মনিমা বিবি বলেছেন, যখন ছেলেকে পাচ্ছিলেন না, তখন এলাকার মাতব্বর সাইন আখতারকে ঘটনার কথা জানান। সাইনকে ৫০ হাজার টাকা দেন বলেও জানিয়েছেন নাসিকের মা। উল্লেখ্য এই সাইন আখতার পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি ছিলেন। এখন তিনি বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন। কিন্তু নাসিকের বাবা মতিবুল হক এই ৫০ হাজার টাকা নিয়ে কোনও কথা বলেননি। তিনি জানিয়েছেন, তাঁর ছেলে দার্জিলিংয়ে গিয়েছিল। উমা ফোন করে তাঁকে দার্জিলিং থেকে ডেকে আনে। তারপর বাড়িতে না জানিয়েই তারা হরিয়ানায় যায়। এদিকে, উমার বক্তব্য সে নিজের ইচ্ছায় নাসিমের সঙ্গে এসেছে। কেউ তাকে জোর করে নিয়ে আসেনি।

বৃহস্পতিবার সন্ধেয় দিল্লি পুলিশ নাসিমের ফাঁসি লাগানো দেহ উদ্ধার করে দিল্লি পুলিশ। আপাতত গোটা ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে তারা। উত্তর দিনাজপুর অ্যাডিশনাল এসপি কার্তিক মণ্ডল বলেছে খুন না আত্মহত্যা, তা তারা জানেন না। দিল্লি পুলিশ ঘটনার তদন্ত করছে। তাদের কাছে এনিয়ে কোনও তথ্য নেই।

[ আরও পড়ুন: গরু পাচারের অভিযোগ ঘিরে সংঘর্ষ দিনহাটায়, বিজেপির পার্টি অফিসে ভাঙচুর ]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে