Advertisement
Advertisement
Botany

বটানি নিয়ে পড়ে কেরিয়ার গড়তে চান? জেনে নিন কোথায় কোথায় সুযোগ

জেনে নিন খুঁটিনাটি।

Future scope in Botany, here is what to know
Published by: Tiyasha Sarkar
  • Posted:April 23, 2024 8:20 pm
  • Updated:April 23, 2024 8:20 pm

বটানি পড়ে কেরিয়ারে খুলে যায় নানা দিক। কলকাতা বিশ্ববিদ‌্যালয়ের বটানি বিভাগের প্রধান ড. রীতা কুণ্ডুর সঙ্গে এ বিষয়ে আলোচনায় অনিন্দ‌্য সিংহ চৌধুরী।

গবেষণা ও চাকরি

Advertisement

মাস্টার্স করার পর পিএইচডি করা যায়। ট্যাক্সোনমি/সিস্টেমেটিক্স স্পেশাল পেপার থাকলে বটানিকাল সার্ভে অব ইন্ডিয়ায় রিসার্চে অগ্রাধিকার পাওয়া যায়। বায়োকেমিস্ট্রি বা প্লান্ট প্যাথোলজি স্পেশাল পেপার থাকলে ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অব এগ্রিকালচারাল রিসার্চ (আইসিএআর)-এ এগ্রিকালচারাল রিসার্চ সায়েন্টিসিস্ট হিসেবে কাজ করতে পারে। বটানি পড়ে গেট পরীক্ষা দিয়ে বায়োটেকনোলজি নিয়ে এম টেক পড়া যায় বিভিন্ন আইআইটিতেও। বোস ইনস্টিটিউট, ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অব সায়েন্স বেঙ্গালুরু, দেরাদুনের ফরেস্ট রিসার্চ ইনস্টিটিউট, কাউন্সিল অব সায়েন্টিফিক অ্যান্ড ইনডাস্ট্রিয়াল রিসার্চ (সিএসআইআর), ডিপার্টমেন্ট অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি (ডিএসটি), মুম্বই-এর টাটা ইনস্টিটিউট অফ ফান্ডামেন্টাল রিসার্চ, ডিপার্টমেন্ট অব বায়োটেকনোলজি-র মতো নানা কেন্দ্রীয় সংস্থাতেও গবেষণা এবং চাকরি করা যায়।

Advertisement

আমলা হবেন?

স্কুল শিক্ষক, অধ‌্যাপক ছাড়াও প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষা দিয়ে ইন্ডিয়ান অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ সার্ভিস, ওয়েস্ট বেঙ্গল সিভিল সার্ভিস, ইন্ডিয়ান ফরেস্ট সার্ভিস, এগ্রিকালচারাল রিসার্চ সার্ভিসের মতো সরকারি চাকরিতে যোগ দেওয়া যায়।

[আরও পড়ুন: উচ্চমাধ্যমিকের পর দর্শন নিয়ে পড়বেন? জেনে নিন কোথায় মিলতে পারে চাকরির সুযোগ]

কাজ ভেবে ‘স্পেশালাইজেশন’

মাস্টার্সের সময় স্পেশালাইনজেশন করার ক্ষেত্রে অবশ‌্যই ভবিষ‌্যৎ কাজের কথা ভাবা প্রয়োজন। ট্যাক্সোনমি/ সিস্টেমেটিক বটানি, জেনেটিক্স, টিস্যু কালচার, প্লান্ট ফিজিওলজি অ্যান্ড বায়োকেমিস্ট্রি, মলিকিউলার বায়োলজি, সাইটোলজি বা সেল বায়োলজি, মাইকোলজি অ্যান্ড প্লান্ট প্যাথোলজি, প্যালিও বটানি, মাইক্রোবায়োলজি, ইকোলজি, ফার্মাকগনোসি বা মেডিকাল বটানি নিয়ে স্পেশালাইজেশন করা যায়।

অন‌্য বিষয়েও পড়া যায়

বটানিতে বিএসসির পর এনভায়রনমেন্টাল সায়েন্স, মেরিন সায়েন্স, বায়োফিজিক্স অ্যান্ড মলিকিউলার বায়োলজি, বায়োটেকনোলজি, মলিকিউলার বায়োলজি, মাইক্রোবায়োলজি-র মতো বিষয় নিয়ে পড়া যায়।

রাজ্যের ভালো কলেজ

উচ্চমাধ‌্যমিকের পর পশ্চিমবঙ্গে মৌলনা আজাদ, লেডি ব্রেবোর্ন কলেজ, আশুতোষ কলেজ, স্কটিশচার্চ কলেজ, বিধাননগর কলেজ, রামকৃষ্ণমিশন বিবেকানন্দ সেন্টিনারি কলেজ, দার্জিলিং গভর্নমেন্ট কলেজ, শ্রীরামপুর কলেজ, যোগমায়াদেবী কলেজ, হুগলি মহসিন কলেজ-সহ বেশ কয়েকটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে স্নাতক পড়া যায়। এমনকী, কলকাতা বিশ্ববিদ‌্যালয়, কল‌্যাণী, উত্তরবঙ্গ, বিশ্বভারতী, বর্ধমান বিশ্ববিদ‌্যালয়ে মাস্টার্স করা করা যায়। বর্তমানে পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন বেসরকারি বিশ্ববিদ‌্যালয়েও বটানি নিয়ে স্নাতক ও মাস্টার্সের সুযোগ আছে।

[আরও পড়ুন: ‘সাত দফায় সাত অঙ্গ ভাঙব বিজেপির’, দার্জিলিংয়ে হুঁশিয়ারি অভিষেকের]

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ