১৯ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২ জুন ২০২০ 

Advertisement

৯৯.৯ শতাংশ কার্যকারী, গোপনে করোনা মোকাবিলার অস্ত্র প্রস্তুত করে ফেলেছে চিন!

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: March 30, 2020 9:46 am|    Updated: March 30, 2020 9:46 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিশ্বজুড়ে জাল বিছিয়েছে করোনা ভাইরাস। মানব সভ্যতার সামনে সাম্প্রতিক অতীতের সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জের নাম COVID-19। করোনার (CoronaVirus) কামড়ে প্রতিদিনই প্রাণ হারাচ্ছেন হাজার হাজার মানুষ। সরকারি তথ্য বলছে, এই মুহূর্তে বিশ্বজুড়ে ভাইরাস সংক্রমিতের সংখ্যা ৭ লক্ষ পেরিয়েছে। গোটা বিশ্বের পাশাপাশি ভারতেও দাপট বাড়াচ্ছে মারক ভাইরাস। বিশ্বের তাবড় বিজ্ঞানী, গবেষকরা এর প্রতিষেধক তৈরিতে ব্যস্ত। এখনও পর্যন্ত সেভাবে সাফল্য আসেনি। কিন্তু চিনের গবেষকদের দাবি, তাঁরা করোনা রোখার সবচেয়ে কার্যকারী অস্ত্র তৈরি করে ফেলেছেন। যা কিনা এই ভাইরাসের বিরুদ্ধে ৯৯.৯ শতাংশ পর্যন্ত উপকারি হতে পারে।

সম্প্রতি, Global Times নামের চিনের এক সংবাদ মাধ্যম দাবি করেছে, চিনা বিজ্ঞানীদের একটি দল করোনাকে ধংস করার মোক্ষম পথ পেয়ে গিয়েছে। কোনও ওষুধ বা টিকা নয়, চিনা গবেষকরা তৈরি করেছেন একটি ন্যানোমেটেরিয়াল (Nanomaterial), যা কিনা করোনার জীবাণু শুষে ফেলতে পারে বা এর কার্যক্ষমতা ৯৬.৫-৯৯.৯% পর্যন্ত কমিয়ে দিতে পারে। এই ন্যানোমেটেরিয়ালটি উৎসেচকের মতো কাজ করে। এই ন্যানোমেটেরিয়াল দিয়ে পেন্ট, ফিল্টার, ইনসুলেশনের মতো জিনিস তৈরি হতে পারে। ইতিমধ্যেই চিনের ওই গবেষকদল নাকি বিভিন্ন সংস্থার সাথে কথা বলছে এই ন্যানোমেটেরিয়াল দিয়ে মাস্ক এবং চিকিৎসকদের জন্য PPE বানানর জন্য। যদিও, চিনের বাইরে থেকে এ খবরের সত্যতা যাচাই করা সম্ভব নয়। তবে এটা যদি সত্যি হয় তাহলে বুঝতে হবে উৎসস্থলেই সমাপ্তির পথে করোনা ভাইরাস।

[আরও পড়ুন: রাশ টানা যাচ্ছে না সংক্রমণে, করোনার জেরে বিশ্বে মৃত্যু মিছিল অব্যাহত]

করোনা ভাইরাসের দাপট সবার প্রথমে দেখা যায় চিনেরই ইউহান প্রদেশে। সেখান থেকেই আস্তে আস্তে গোটা বিশ্বে ছড়িয়ে পড়েছে মারক ভাইরাসটি। আপাতত চিনে এর সংক্রমণ অনেকটা নিয়ন্ত্রণে এলেও বিশ্বের অন্যান্য দেশে প্রভাব মারাত্মক। ইতিমধ্যেই করোনার জেরে পৃথিবীতে প্রায় ৩১ হাজার মানুষের প্রাণ গিয়েছে।মুশকিল হল, ভাইরাসটির উৎপত্তি এবং চরিত্র সম্পর্কে বিজ্ঞানীদের কাছে তেমন কোনও তথ্য নেই। বিজ্ঞানীদের একটা অংশ দাবি করেন, এটি কোনও প্রাকৃতিক সংক্রমণ নয়, বরং মনুষ্য সৃষ্ট। জৈবিক অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করার জন্য চিনই ভাইরাসটি তৈরি করেছে।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement