BREAKING NEWS

১৪ আশ্বিন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ১ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

উন্নয়নশীল দেশগুলির মধ্যে বৃহত্তম আর্থিক প্যাকেজ! মোদির প্রশংসায় পঞ্চমুখ রাষ্ট্রসংঘ

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: May 15, 2020 10:50 am|    Updated: May 15, 2020 12:15 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির (Narendra Modi) ‘আত্মনির্ভর ভারত’প্রকল্প নিয়ে চর্চা এখন বিশ্বভর। করোনা সংক্রমণের জেরে দীর্ঘ লকডাউন সত্ত্বেও দেশের অর্থনীতি সচল রাখতে মঙ্গলবারই ২০ লক্ষ কোটি টাকার বিশেষ প্যাকেজ ঘোষণা করেছেন প্রধানমন্ত্রী। যা নজর কেড়েছে রাষ্ট্রসংঘেরও (United Nations)। ভারতের এই বিশাল আর্থিক প্যাকেজকে প্রশংসনীয় উদ্যোগ হিসেবে দেখছেন রাষ্ট্রসংঘের অর্থনীতি বিশেষজ্ঞরা।

রাষ্ট্রসংঘের বিশেষজ্ঞদের মতে ভারতের মতো উন্নয়নশীল দেশে এই ধরনের বিশাল আর্থিক প্যাকেজ ঘোষণা ‘প্রশংসনীয়’ উদ্যোগ। রাষ্ট্রসংঘের অর্থনৈতিক পর্যবেক্ষণ শাখার (Global Economic Monitoring Branch) প্রধান হামিদ রশিদ বলছেন,”এটা (২০ হাজার কোটির প্যাকেজ ঘোষণা) অত্যন্ত প্রশংসনীয় পদক্ষেপ। ২০ লক্ষ কোটির প্যাকেজ, যা কিনা ভারতের জিডিপির ১০ শতাংশ। এটাই উন্নয়নশীল দেশগুলির মধ্যে বৃহত্তম আর্থিক প্যাকেজ। কারণ অধিকাংশ উন্নয়নশীল দেশ মোট জিডিপির ০.৫ শতাংশ থেকে ১ শতাংশ প্যাকেজ ঘোষণা করছে।” তবে এ প্রসঙ্গে ভারতের বড় বাজারের ভূমিকাও গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করছেন হামিদ রশিদ। তিনি বলছেন,”ভারতের আর্থিক প্যাকেজ সত্যি খুব বড়। আর ভারতের বাজারও খুব বড়। ভারতের বাজারের ক্ষমতা আছে এই প্যাকেজ কার্যকরী করার।”

[আরও পড়ুন: দেশীয় গবেষণায় অগ্রাধিকার! PM CARES থেকে করোনার টিকা তৈরিতে বরাদ্দ ১০০ কোটি]

উল্লেখ্য, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি যে ২০ হাজার কোটির প্যাকেজ ঘোষণা করেছেন, তা জিডিপির শতাংশের নিরিখে উন্নয়নশীল দেশগুলির থেকে তো বড়ই, অনেক উন্নত দেশের থেকেও বড়। বিশ্বে ভারতের থেকে বড় প্যাকেজ ঘোষণা করেছে মাত্র দুটি দেশ। বৃহত্তম প্যাকেজ জাপানের (জিডিপির ২১ শতাংশ), এবং দ্বিতীয় বৃহত্তম অ্যামেরিকার (জিডিপির ১৩ শতাংশ), তারপরই ভারত (জিডিপির ১০ শতাংশ)। তবে বিরোধীদের দাবি, মোদির এই ২০ লক্ষ কোটির প্যাকেজ একটা সংখ্যা মাত্র। বাস্তবের মাটিতে গরিব মানুষ এর কোনও সুবিধা পাচ্ছে না। উল্লেখ্য, প্রধানমন্ত্রী প্যাকেজ ঘোষণার পর পরপর দু’দিন বেশ কিছু প্রকল্প ঘোষণা করেছেন অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ। তবে এগুলোর  মধ্যে কোনওটিতেই সরাসরি অর্থ সাহায্য পাচ্ছেন না প্রান্তিক, গরিব মানুষ। সরকার এখন চাইছে পরিকাঠামো খাতে ব্যয় করতে এবং ব্যাবসায়ীদের সাহায্য করতে, যাতে তার পরোক্ষ লাভ সাধারণ মানুষ ঘরে তুলতে পারে।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement