BREAKING NEWS

০৫ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  শুক্রবার ২০ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

হলিউডের রানু মণ্ডল! লস অ্যাঞ্জেলসের স্টেশনে গান গেয়ে ভাইরাল এই ভিখারিনী

Published by: Sandipta Bhanja |    Posted: October 20, 2019 6:31 pm|    Updated: October 20, 2019 6:31 pm

A lady goes viral in Los Angeles, California for her singing talent

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মাস দুয়েক আগের কথা। রানাঘাট স্টেশনে বসে গান গাওয়া এক ভিখারিনীকে রাতারাতি জনপ্রিয়তার শিখরে পৌঁছে দিয়েছিল সোশ্যাল মিডিয়া। পাশাপাশি মানুষদের ভাবতে শিখিয়েছিল যে প্রচারের অভাবে এরকম কত ট্যালেন্ট সুপ্ত রয়েছে বিশ্বের কোণায় কোণায়। সেই রানু মণ্ডল এখন বলিউড গায়িকা। ইতিমধ্যেই মু্ম্বইয়ের খ্যাতনামা প্রযোজক হিমেশ রেশমিয়ার সিনেমায় তিনটি গান গেয়ে ফেলেছেন। মালয়ালাম ইন্ডাস্ট্রি থেকেও তাঁর ডাক পড়ল বলে! ঠিক সেরকমই বিশ্বের আরেক প্রান্তে সুদূর মার্কিন মুলুকেও মিলল আরও এক রানু মণ্ডলের খোঁজ। স্টেশনই যাঁর মাথা গোঁজার একমাত্র আশ্রয়। তবে সুরেলা কণ্ঠের যাদু ইতিমধ্যেই কাবু করেছেন নেটদুনিয়াকে।

এমিলি জামৌর্কা। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের লস অ্যাঞ্জেলসের এক স্টেশনে আপন মনেই গান গেয়ে যান এই ভিখারিনী। ফাঁকা সেই স্টেশন চত্বরই তাঁর কাছে যেন অপেরা। সম্প্রতি তাঁরই গান গাওয়ার এক ভিডিও ভাইরাল হয়েছে নেটদুনিয়ায়। এমিলির গানে এতটাই মুগ্ধ নেটিজেনরা যে সূত্রের খবর বলছে হলিউডের মিউজিক ইন্ডাস্ট্রির এজেন্টরাও নাকি তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ করতে মরিয়া। সেই ভিডিওতে দেখা গিয়েছে এমিলি রীতিমতো কঠিন নোটের এক অপেরা সংগীত গেয়ে চলেছেন অবলীলাক্রমে। ফাঁকা স্টেশন ভেসে যাচ্ছে সেই সুরের মূর্ছনায়। আর এমিলির গান গাওয়ার এই মুহূর্তই এক যাত্রী ক্যামেরাবন্দি করে পোস্ট করেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। এমনকী, এমিলির সুরেলা কণ্ঠের যাদুতে মেতে লস অ্যাঞ্জেলসের পুলিশ ডিপার্টমেন্টও শেয়ার করেছে সেই ভিডিও। সেই ভিডিও ভাইরাল হতেই এমিলির খোঁজে ওই স্টেশনে পৌঁছে যান মার্কিন সংবাদসংস্থার প্রতিনিধিরা।

[আরও পড়ুন: রেস্তরাঁর মেনুতে ‘হাউ ইজ দ্য জোশ’! ছবি পোস্ট উচ্ছ্বসিত ভিকির ]

এমিলির কথায়, তাঁর বয়স ৫২। কোনও দিন প্রথাগতভাবে গানের তালিম নেননি। তবে ছোটবেলায় শখে পিয়ানো ও বেহালা বাজানো শিখেছিলেন। মাত্র ২৪ বছর বয়সেই রাশিয়ে থেকে মার্কিন মুলিকে চলে এসেছিলেন। বাচ্চাদের বাদ্যযন্ত্র বাজানো শিখিয়ে কোনও মতে দু’বেলা নিজের অন্নসংস্থান করতেন। তবে বছর খানেক আগে হঠাৎ অসুস্থ হওয়ায় সর্বস্ব খোয়াতে হয় এমিলিকে। তারপর থেকেই এই ফাঁকা স্টেশন তাঁর আশ্রয়স্থল। স্টেশনে ও রাস্তায় গান গেয়ে ভিক্ষা করে পেট চালান কোনও মতে। এমিলি বলেন, “এই মুহূর্তে একটা মাথা গোঁজার জায়গা আর কিছু বাদ্যযন্ত্র পেলেই আমি কৃতজ্ঞ থাকব।” 

[আরও পড়ুন: আহ্লাদে গদগদ আলি ফজল, জন্মদিনে ‘ওয়ান্ডার উওম্যান’-এর আরও কাছাকাছি!]

 

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে