২ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

অবশেষে করোনামুক্ত বচ্চন পরিবার, ভাইরাসকে হারিয়ে সুস্থ হলেন অভিষেকও

Published by: Sulaya Singha |    Posted: August 8, 2020 2:59 pm|    Updated: August 8, 2020 3:08 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মারণ ভাইরাস থাবা বসাতে পারেনি মা জয়া বচ্চনের শরীরে। স্ত্রী ঐশ্বর্য ও কন্যা আরাধ্যা আগেই করোনা নেগেটিভ হয়ে গিয়েছিলেন। গত ২ আগস্ট করোনাকে জয় করে বাড়ি ফেরেন বাবা অমিতাভ বচ্চনও। কিন্তু কিছুতেই যেন ভাইরাস পিছু ছাড়ছিল না তাঁর। অবশেষে স্বস্তি। শনিবারই করোনার বিরুদ্ধে দীর্ঘ লড়াইয়ে জয়ী হলেন অভিষেক বচ্চন (Abhishek Bachchan)। আর তাঁর সঙ্গেই কোভিড-১৯ মুক্ত হল গোটা বচ্চন পরিবার।

এদিন টুইট করে নিজেই অনুরাগীদের সুখবর দেন জুনিয়র বচ্চন। লেখেন, “কথা দিয়েছিলাম, করোনাকে হারাবই। অবশেষে আজ দুপুরে আমার রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে। আমার পরিবারের জন্য প্রার্থনা করায় সবাইকে অসংখ্য ধন্যবাদ। আর আমার চিকিৎসার জন্য নানাবতী হাসপাতালের সমস্ত চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীদের কাছে কৃতজ্ঞ থাকব।”

[আরও পড়ুন: ২০২০ সাল আর কী দেখাবে? কেরলের বিমান দুর্ঘটনায় শোকপ্রকাশ অমিতাভ, শাহরুখদের]

উল্লেখ্য, চলতি মাসেই করোনায় (Coronavirus) আক্রান্ত হয়ে মুম্বইয়ের নানাবতী হাসপাতালে ভরতি হয়েছিলেন বিগ বি (Amitabh Bachchan)। সেই রাতেই জানা যায় করোনা থাবা বসিয়েছে ছেলে অভিষেকের শরীরেও। তাঁকেও একই হাসপাতালে ভরতি করা হয়। সেই সঙ্গে কোভিড পরীক্ষা হয় বাড়ির অন্যান্য সদস্যদেরও। জয়া বচ্চন, ঐশ্বর্য ও আরাধ্যার প্রথমে ব়্যাপিড টেস্ট রিপোর্ট নেগেটিভ এলেও দ্বিতীয় সোয়াব টেস্টর রিপোর্টে জানা যায় মারণ ভাইরাসে আক্রান্ত মা ও মেয়ে উভয়ই। জয়া বচ্চনের রিপোর্ট অবশ্য নেগেটিভ আসে। উপসর্গহীন করোনা রোগী হওয়ায় প্রথমে ঐশ্বর্য ও আরাধ্যাকে হোম আইসোলেশনে থাকার পরামর্শ দেওয়া হয়। কিন্তু শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটনায় তাঁদেরও পরে নানাবতীতে ভরতি করতে হয়। স্বাভাবিকভাবেই উদ্বেগ বাড়ে অনুরাগীদের।

তবে গত ২৭ জুলাই করোনামুক্ত হয়ে বাড়ি ফেরেন ঐশ্বর্য এবং আরাধ্যা। তারপর করোনাকে জয় করেন অমিতাভ বচ্চন। তবে কো-মর্বিডিটির কারণে সুস্থ হতে সময় লাগছে বলেই জানিয়েছিলেন অভিষেক। অবশেষে কঠিন লড়াই জিতলেন তিনি।

[আরও পড়ুন: মাস খানেক ধরেই মুম্বই পুলিশের তাবড় কর্তাদের সঙ্গে যোগাযোগ! রিয়াকে ফের তলব ইডি’র]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement