৪ ফাল্গুন  ১৪২৬  সোমবার ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০ 

BREAKING NEWS

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

৪ ফাল্গুন  ১৪২৬  সোমবার ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আরে! কোনও ড্রাকুলা বা জম্বি সিনেমার ঝলক নাকি? ‘মূলোর মতো’ দাঁত। ভদ্র ভাষায় যাঁকে আমরা ‘ক্যানাইন টিথ’ বলি। তাতে আবার রক্তারক্তি কাণ্ড! আর সেরকম একটি ভয়াবহ লুকে চৌবাচ্চার মধ্যে পাঞ্জাবি পরে বসে রয়েছেন অনির্বাণ ভট্টাচার্য। তা টলিউড ড্রাকুলারের ভূমিকায় অনির্বাণ ভট্টাচার্য? একঝলকে দেখে মনে এই প্রশ্ন উঁকি মারতেই পারে! 

আজ্ঞে না। ড্রাকুলারের ভূমিকায় কিনা, তার উত্তর পেতে অপেক্ষা করতে হবে বইকী! তবে সিনেমার নাম ‘ড্রাকুলা স্যর’। ছবির  মুখ্য চরিত্রে অর্থাৎ ড্রাকুলা স্যরের ভূমিকাতে রয়েছেন অনির্বাণ। আর সেজন্যই এরকম লুকে ধরা দিলেন অভিনেতা। দিন কয়েক আগেই শুরু হয়েছে ছবির শুটিং। মধ্য কলকাতার লোহিয়া হাসপাতালে চলছিল ‘ড্রাকুলা স্যর’-এর শুটিং। কর্মযজ্ঞের ‘ক্যাপ্টেন অফ দ্য শিপ’ অর্থাৎ পরিচালক দেবালয় ভট্টাচার্য বেজায় ব্যস্ত। একে সাইকোলজিক্যাল থ্রিলার। উপরন্তু মুখ্য চরিত্রে টলিউডের দুই প্রথম সারির তারকা অনির্বাণ ভট্টাচার্য এবং মিমি চক্রবর্তী। প্রসঙ্গত, দেবালয়ের হাত ধরেই সাংসদ হওয়ার পর বড়পর্দায় প্রত্যাবর্তন ঘটতে চলেছে মিমির। অতঃপর মিমির জন্যেও বেশ গুরুত্বপূর্ণ সিনেমা। অনির্বাণও অবশ্য এধরনের চরিত্রে প্রথম অভিনয় করছেন।

‘ড্রাকুলা স্যর’ প্রসঙ্গে অনির্বাণের মত, এর আগে দর্শকরা সাধারণত যে ধরনের ড্রাকুলা ছবি দেখেছেন, তার চেয়ে ‘ড্রাকুলা স্যর’ পুরোটাই আলাদা। অভিনেতার কথায়, ব়্যামসে ব্রাদার্সের ছবিগুলোর মধ্যে এধরনের একটা স্বাদ ছিল। তবে দেবালয় ভট্টাচার্যের ছবিটা ঠিক সেই ঘরানায় ফেলার মতোও নয়। কাহিনিতে আবার সাইকোলজিক্যাল পরতও রয়েছে। 

মিমিকেও দেখা গেল অতি সাধারণ লুকে। খোলা চুল, ছিমছাম শাড়ি। তবে মিমিকে এরকম লুকে আগেও দেখা গিয়েছে ঋতুপর্ণ ঘোষের ‘গানের ওপারে’ ধারাবাহিকে পুপের চরিত্রে। পরিচালক দেবালয় অবশ্য পুপের কথা মাথায় রেখেই মিমির চরিত্র মঞ্জরীকে সাজিয়েছেন।  

পরিচালক দেবালয় জানিয়েছেন, ‘ড্রাকুলা স্যর’ আদতে সাইকোলজিক্যাল থ্রিলার। মনস্তাত্ত্বিক গল্প। স্কুলে বাংলা পড়ায় এই স্যর। তার ‘ক্যানাইন টিথ’ দুটো একটু বড়। সেই থেকে অনির্বাণের চরিত্র ‘রক্তিম’-এর নাম হয়ে যায় ‘ড্রাকুলা স্যর’। তার একটা নিজস্ব জার্নি রয়েছে। সে খুঁজছে তার অপূর্ণ ভালবাসাকে। ছবির চিত্রনাট্যের প্রেক্ষাপটে ১৯৭০ সাল। সাতের দশক যেহেতু ফলে ছবিতে রাজনৈতিক প্রেক্ষাপট, নকশাল আন্দোলনের ছোঁয়াও থাকবে। যে চিত্রনাট্য সাজিয়েছেন পরিচালক দেবালয় নিজে এবং কল্লোল লাহিড়ী।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং