BREAKING NEWS

১১ অগ্রহায়ণ  ১৪২৯  সোমবার ২৮ নভেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

বিদেশেও মন কাড়ল পুলিশ অফিসারের লড়াই, লন্ডনে পুরস্কৃত ‘আর্টিকল ১৫’

Published by: Bishakha Pal |    Posted: July 2, 2019 5:18 pm|    Updated: August 6, 2021 6:57 pm

‘Article 15’ Wins Audience Award at London Indian Film Festival

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মুক্তির পর থেকেই প্রশংসা কুড়োচ্ছে ‘আর্টিকল ১৫’। এবার দেশ ছাড়িয়ে বিদেশের মাটিতেও দর্শকের বাহবা পেল আয়ুষ্মান খুরানা অভিনীত ছবিটি। লন্ডন ইন্ডিয়ান ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে (LIFF) অডিয়েন্স অ্যাওয়ার্ড পেয়েছে ছবিটি। দক্ষিণ এশিয়ার চলচ্চিত্র উৎসবগুলির মধ্যে লন্ডন ইন্ডিয়ান ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল বৃহত্তম।

‘আর্টিকল ১৫’ ছবির পরিচালক অনুভব সিনহা জানিয়েছেন, বিদেশি ও প্রবাসী ভারতীয়দের যে ছবিটি ভাল লেগেছে, তাতেই তিনি অভিভূত। কারণ, ছবিতে যে সমস্যার কথা তুলে ধরা হয়েছে, তা নিত্যদিন এইসব মানুষ ভোগ করেন না। তা সত্ত্বেও যে তাঁরা ছবির সঙ্গে একাত্ম বোধ করেছেন, এটিই তাঁর সাফল্য বলে জানিয়েছেন পরিচালক। ২০ জুন থেকে ১ জুলাই পর্যন্ত ইংল্যান্ডে অনুষ্ঠিত হয় লন্ডন ইন্ডিয়ান ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল। এই বছর সাহসী ছবি চলচ্চিত্র উৎসবে আনার সিদ্ধান্ত নেয় কর্তৃপক্ষ। সেই কারণেই তালিকায় ছিল ‘আর্টিকল ১৫’-এর নাম। এই ছবিটি ছাড়াও উঠতি অভিনেতা হিসেবে পুরস্কৃত হয়েছেন হর্ষবর্ধন কাপুর।

[ আরও পড়ুন: নুসরতের সম্প্রীতি বার্তায় মুগ্ধ ইসকন, মৌলবাদীদের ফতোয়া উড়িয়ে থাকছেন রথযাত্রায় ]

অনুভব সিনহার এই ছবি বদায়ুঁ ধর্ষণ মামলার উপর ভিত্তি করে তৈরি হয়েছে। দু’জন দলিত মহিলার ধর্ষণ ও তা নিয়ে পুলিশের ভূমিকার কথা তুলে ধরা হয়েছে ছবিতে। ধর্ষণের এই ঘটনা নিয়ে সেসময় উত্তরপ্রদেশে যে বিতর্ক ও উত্তেজনা হয়েছিল, তাও দেখানো হয়েছে। দলিত মহিলাদের ধর্ষণের ঘটনার তদন্ত যিনি করেছিলেন, ছবিতে আয়ুষ্মান সেই পুলিশ অফিসারের চরিত্রে অভিনয় করেছেন। ট্রেলারেই দেখা যায়, ঘটনার তদন্ত করতে উত্তরপ্রদেশের ওই গ্রামে যান আয়ুষ্মান। সেখানে দলিত মহিলাদের দেহ গাছের সঙ্গে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পান তিনি। তদন্তে উঠে আসে চাঞ্চল্যকর তথ্য। পুলিশ জানতে পারে এই ধর্ষণকাণ্ডে উচ্চ ও নিচ ভেদাভেদ জড়িয়ে রয়েছে। উচ্চবর্ণের হওয়া সত্ত্বেও অপরাধের ক্ষেত্রে সেসব মানেননি আয়ুষ্মান।

আয়ুষ্মান খুরানার সঙ্গে ছবিতে রয়েছেন সায়নী গুপ্তা, মনোজ পাহওয়া ও মহম্মদ জিশান। এর আগে ‘মুলক’-এর মতো ছবিতে দেশে ইসলামোফোবিয়ার বাড়বাড়ন্তের মতো জ্বলন্ত সমস্যা তুলে ধরেছিলেন পরিচালক অনুভব সিনহা।

[ আরও পড়ুন: সময় নেই, সংসদীয় এলাকা দেখাশোনার জন্য ‘প্রতিনিধি’ নিয়োগ সানির ]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে