BREAKING NEWS

১৭ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  শনিবার ৪ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

তাপস পালের শেষ ছবি ‘বাঁশি’র ডাবিং সারলেন কাঁথির শোভন, উচ্ছ্বসিত পরিবার

Published by: Sandipta Bhanja |    Posted: March 3, 2020 12:22 pm|    Updated: March 3, 2020 2:01 pm

Contai youth lends voice for Tapas Paul's Bengali movie

রঞ্জন মহাপাত্র, কাঁথি: ‘বাঁশি’ দিয়েই আবার বাঙালি দর্শকদের মনে জায়গা করে নিতে চেয়েছিলেন তাপস পাল। কিন্তু সেই ছবির কাজ আর শেষ করে যেতে পারেননি। ছবিতে তাপস পালের চরিত্রের নাম ছিল খগেন দত্ত। পরিচালক তুহিন সিনহার ছবিতে মাস তিনেক আগেই শুটিং শেষ করেছিলেন তাপস। কিন্তু বাকি ছিল ডাবিংয়ের কাজ। ‘তিনি’ তো আর নেই, অতঃপর খগেনের চরিত্রের জন্য ডাবিং কে করবেন? বেশ চিন্তায় পড়েছিলেন তুহিন। কিন্তু অবশেষে তাপস পালের চরিত্রের জন্য ডাবিং করার শিল্পীকে খুঁজে পেলেন এবং ডাবিংও সারলেন। তিনি শোভন কামিলা। মেদিনিপুরের কাঁথির বাসিন্দা।

‘ওগো বধূ সুন্দরী’র শুটিং শেষ না করেই মারা গিয়েছিলেন মহানায়ক উত্তমকুমার। ভাগ্যিস ছিলেন ভাই তরুণ কুমার। তাই পরিচালককে বেগ পেতে হয়নি। সুন্দরভাবে উতরে দিয়েছিলেন দাদা উত্তমের গলা। মহানায়কের গলা ডাবিং করার অনুভূতি জীবনের শেষদিন পর্যন্ত বলতেন তরুণকুমার। তাপস পালের শেষ ছবি ‘বাঁশি’তে ডাবিংয়ের সুযোগ পেয়ে এমনই আপ্লুত শোভন কামিলা। আর প্রিয় অভিনেতার সংলাপ ডাবিং করার সুযোগ পেয়ে তাকে হাতে ‘চাঁদ পাওয়া’ বলেই মনে করছেন কাথির যুবক।

 

তাপস পালের গলার সঙ্গে তাঁর গলা যে এভাবে হুবহু মিলে যাবে, তা স্বপ্নেও ভাবেননি শোভন। দীর্ঘ দিন ধরেই নাটকচর্চার মধ্যে থাকেন। টিভির বিভিন্ন শোয়ে অংশগ্রহণের অভিজ্ঞতাও রয়েছে তাঁর। কিন্তু বাংলা ইন্ডাস্ট্রির মহাতারকা তাপস পালের শেষ ছবির ডাবিং? প্রস্তাবটা যখন এসেছিল ভয়ে তো প্রথমে ‘না’-ই বলে দিয়েছিলেন শোভন। তাঁর কথায়, “এত বড় মাপের অভিনেতার চরিত্রে গলা মেলানোর সাহসটাই ছিল না। তবে অরিন্দম গঙ্গোপাধ্যায় এবং খেয়ালি ঘোষ দস্তিদার আমাকে কাজটা করার জন্য উৎসাহ দেন।” তারপর থেকেই শোভনের প্রস্তুতি শুরু। 

[আরও পড়ুন: সম্প্রীতির ভারত, দুঃসময়ে রবিনা টন্ডনের পাশে অটোচালক ‘আরশাদ চাচা’ ]

দিনরাত হেডফোনে ‘দাদার কীর্তি’ থেকে ‘গুরুদক্ষিণা’-তাপস পালের সব ছবির সংলাপ শুনেছেন প্রস্তুতি নিতে গিয়ে। শোভন বলেন, “ধরার চেষ্টা করি ওর কথা বলার ধরনধারণ। অবশেষে কাজটা হয়। জানি না কতটা কী করতে পেরেছি!” পরিচালক তুহিন সিনহা পরিচালিত ‘বাঁশি’ সিনেমাটি তাপস পালের শেষ ছবি। মুম্বই থেকে ফিরেই ‘বাঁশি’র ডাব করবেন বলে কথা দিয়েছিলেন তাপস পাল। কিন্তু তা আর হয়ে ওঠেনি। তাই ছবি শেষ করার প্রয়োজনে ডাবিংয়ের কাজে ডাক পড়ে শোভনের। শোভন বলেন, “জীবনের সেরা  অভিজ্ঞতা।” মার্চেই এই ছবি মুক্তি পাচ্ছে। তাপস পাল ছাড়াও ওই ছবিতে রয়েছেন, অভিষেক চট্টোপাধ্যায়, দেবীকা মুখোপাধ্যায় এবং দেবাশিস গঙ্গোপাধ্যায়। সংগীত পরিচালনা করেছেন অমিত মিত্র। এবার ফাগুনে ‘বাঁশি’ সুরে বেজে উঠবে বলে দাবি কলাকুশলীদের। 

প্রসঙ্গত, কাঁথি হাইস্কুল থেকে উচ্চমাধ্যমিক পাশ করেছেন শোভন। কাঁথি কলেজ থেকে গ্র্যাজুয়েট হয়। আর্থিক সংকটের মধ্যেই বড় হয়ে ওঠা। বাবা শিবশংকর কামিলা প্রতিবন্ধী। একটি সোনার দোকান ছিল। আর্থিক অভাবে তা বন্ধ হয়ে যায়। মা শকুন্তলা দেবীর সহযোগিতায় ছেলের বেড়ে ওঠা। তারপরে অভিনয় করার ইচ্ছে নিয়ে কলকাতায় পাড়ি দেন শোভন। শোভন বলেন, “ভাগ্যিস সেদিন অভিনয় করার নেশায় কলকাতা পাড়ি দিয়েছিলাম। নয়তো বাংলা সিনেমার মহাতারকা তাপস পালের শেষ ছবির সঙ্গে এভাবে জুড়ে যেতাম কীভাবে?”

[আরও পড়ুন: ‘তারিখ পে তারিখ’, নির্ভয়ার দোষীদের শাস্তি পিছিয়ে যাওয়ায় ক্ষিপ্ত ঋষি কাপুর]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে