BREAKING NEWS

৪ আষাঢ়  ১৪২৮  শনিবার ১৯ জুন ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

অতিমারী মোকাবিলায় তারকা ব্রিগেড, কীভাবে কাজ করছেন দেব-রাজ-জুন মালিয়ারা?

Published by: Suparna Majumder |    Posted: May 19, 2021 7:47 pm|    Updated: May 19, 2021 7:54 pm

Dev, Raj Chakraborty, June Malia and other celebrity politicians are on working mode in COVID-19 situation | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কেউ দু’বারের সাংসদ। কেউ এই প্রথম ভোটে জিতে বিধানসভার অন্দরে প্রবেশ করেছেন। করোনা (Corona Virus) মোকাবিলায় কোমর বেঁধে কাজে নেমে পড়েছেন টলিপাড়ার তারকা রাজনীতিবিদরা। দেব, রাজ, জুন মালিয়া থেকে হিরণ। প্রত্যেকেই কোভিডের (COVID-19) বিরুদ্ধে যুদ্ধের ময়দানে নেমে পড়েছেন।

মঙ্গলবারই তৃণমূল সাংসদ দেব (TMC MP Dev) নিজের ঘাটাল লোকসভা কেন্দ্রের ডেবরার অফিসটিকে আইসোলেশন সেন্টারে রূপান্তরিত করার খবর দিয়েছেন। বুধবার টুইটারে টলিউড তারকা জানান, সরকারি সাহায্যে ঘাটালে একটি সেফ হোম খোলা হয়েছে। যেখানে ৫০টি বেড রয়েছে। ডাক্তার, নার্স, ওষুধ এবং খাবারও পাওয়া যাবে।

এদিনই আবার পরিচালক বিরসা দাশগুপ্ত (Birsa Dasgupta) সোশ্যাল মিডিয়ায় জানান, গত সপ্তাহে করোনার ছোবলে চারজন আত্মীয়কে হারিয়েছেন তিনি। অনেক চেষ্টা করেও কোনও লাভ হয়নি। কঠিন এই সময়ে পাশে থাকার জন্য তারকা বিধায়ক রাজ চক্রবর্তীকে (Raj Chakraborty) ধন্যবাদ দেন তিনি। যার উত্তরে বিরসাকে মনে জোর রাখার কথা বলেন রাজ।

[আরও পড়ুন: শেষ হয়ে যাচ্ছে ধারাবাহিক ‘রাণী রাসমণি’? নতুন প্রোমো প্রকাশ্যে আসতেই তুঙ্গে জল্পনা]

প্রথমবার মেদিনীপুর (Medinipur) কেন্দ্র থেকে ভোটে দাঁড়িয়ে জয় পেয়েছেন জুন মালিয়া (June Malia)। জেতার পর আবার পরাজিত বিজেপি প্রার্থীর (BJP Candidate) বাড়ি গিয়ে মিষ্টি খাইয়ে এসেছিলেন। এবার অতিমারী মোকাবিলায় নেমে পড়েছেন তারকা বিধায়ক। মেদিনীপুর মেডিক্যাল কলেজের সামনে কমিউনিটি কিচেন খুলেছেন তিনি। যাতে রোগীর আত্মীয়রা সেখান থেকে বিনামূল্যে খাবার পেতে পারেন। সময়ে-অসময়ে কোভিড রোগীরা যাতে চিকিৎসা পরিষেবা থেকে বঞ্চিত না হন, তার জন্য হেল্পলাইন নম্বরও চালু করেছেন জুন মালিয়া। কোনও মহিলা করোনা আক্রান্ত হলে এই নম্বরে ফোন করলে আবার তাঁকে বিনামূল্যে খাবারও পৌঁছে দেওয়া হবে জানা গিয়েছে।

বিধায়ক হওয়ার এতদিন পর কাজে নামলেন হিরণ চট্টোপাধ্যায় (Hiraan Chatterjee)। নিজের খড়গপুর সদর এলাকার জন্য কুইক রেসপন্স টিম তৈরি করেছেন তিনি। চালু করা হয়েছে হেল্পলাইন নম্বর। যেখানে ফোন করলেই যত তাড়াতাড়ি সম্ভব প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

[আরও পড়ুন: ‘এই আমাদের আচরণ?’ বাংলাদেশে মহিলা সাংবাদিক নিগ্রহের তীব্র প্রতিবাদ জয়ার]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement