১২ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

ইন্ডাস্ট্রির নিম্নবিত্ত ফটোগ্রাফারদের পাশে হৃতিক, CINTAA’র তহবিলেও ২৫ লক্ষ অনুদান অভিনেতার

Published by: Sandipta Bhanja |    Posted: April 16, 2020 10:30 am|    Updated: April 16, 2020 10:30 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আর্থিকভাবে না হলেও মার্চের শেষ সপ্তাহেই বৃহন্মুম্বই মিউনিসিপ্যাল কর্পোরেশনের কর্মীদের হাতে N95 মাস্ক তুলে দিয়েছি্লেন। এর পাশাপাশি দিন কয়েক আগেই ১.২ লক্ষ মানুষের খাবারের দায়িত্ব নিয়েছেন। এমন সংককালীন পরিস্থিতিতে দুস্থ মানুষগুলিকে যাতে অভুক্ত থেকে পেটে খিদে নিয়ে ঘুমোতে যেতে না হয়, সেই ভাবনা থেকেই এই উদ্যোগ। এবার ফের করোনা মোকাবিলায় সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিলেন হৃতিক রোশন। মুম্বই বিনোদন ইন্ডাস্ট্রির নিম্নবিত্ত ফটোগ্রাফারদের সাহায্যের জন্য এগিয়ে এলেন বলিউড অভিনেতা। খ্যাতনামা ফটোগ্রাফার ভাইরাল ভায়ানি খোদ নিজের ইনস্টাগ্রাম পোস্টে হৃতিকের এই মহৎ উদ্যোগের কথা জানিয়েছেন।

এখানেই শেষ নয়। মুম্বইয়ের নিম্নবিত্ত পাপারাজ্জিদের পরিবারগুলির পাশে দাঁড়ানোর পাশাপাশি সিনে অ্যান্ড টিভি আর্টিস্ট অ্যাসোশিয়েশনের (Cine and Television Artist Association) ৪ হাজার দিনমজুরের সাহায্যের জন্য হাত বাড়িয়েছেন, স্পটবয়, লাইটম্যান-সহকারী কলাকুশলীরা যারা কিনা দৈনিক পারিশ্রমিকের ভিত্তিতে কাজ করেন। তাঁদের উদ্দেশে ২৫ লক্ষ টাকা দান করেছেন CINTAA’র ত্রাণ তহবিলে। এপ্রসঙ্গে CINTAA’র এক আধিকারিক অমিত বহেল জানিয়েছেন, দিন কয়েক আগেই হৃতিকের ট্যালেন্ট ম্যানেজমেন্ট কোম্পানি KWAN সিনে আর্টিস্ট ওয়েলফেয়ার ট্রাস্টের অ্যাকাউন্ট নম্বর চেয়ে পাঠিয়েছিল। সেখানে তড়িঘড়ি ২৫ লক্ষ টাকা পাঠিয়েছেন। যে অনুদান ইতিমধ্যেই দৈনন্দিন মজুরি ভিত্তিক শ্রমিকদের পরিবারের মুখে অন্ন তুলে দেওয়ার কাজে লেগে গিয়েছে। হৃতিকের এমন মানবিক উদ্যোগের প্রশংসা করে তাঁর ‘লক্ষ্য’ সহ-অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুত সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি পোস্টও করেছেন।  

[আরও পড়ুন:  ‘ত্রাণ তহবিলে ২৫ কোটি দিয়ে এত প্রচার কেন?’, অক্ষয়কে বিঁধলেন শত্রঘ্ন সিনহা!]

পাপারাজ্জিদের সাহায্য নিয়ে হৃতিক রোশন নিজে তাঁর সোশ্যাল মিডিয়ায় কিছু না লিখলেও ভাইরাল ভায়ানি প্রকাশ্যে আনেন অভিনেতার এই মানবিক উদ্যোগের কথা। তিনি লিখেছেন, “গোটা পৃথিবী যেরকম সংকটাকলীন পরিস্থিতির মধ্য দিয়ে চলেছে, তাতে কিছু সংস্থা বেতনে কাটছাঁট করা শুরু করে দিয়েছে ইচিমধ্যেই। আবার বেশকিছু মিডিয়া হাউস বন্ধও হয়ে যাচ্ছে। এই পরিস্থিতিতে আমরা ফটোগ্রাফাররা সংকটের মধ্যে দিয়ে দিন কাটাচ্ছি। আমার একটা বড় টিম রয়েছে, যাঁরা রাস্তায় বেরিয়ে দৌঁড়ঝাপ করে তারকাদের ছবি তোলেন। এই পরিস্থিতিতে আমাদের আয়ের সেই উৎসও বন্ধ। আমার নিজের পরিবার ছাড়াও আরও ১৫ জন রয়েছেন, যাঁদের উপার্জন নির্ভর করে আমার ছবির সাবস্ক্রিপশন এবং ইনস্টা পোস্টের মাধ্যমে। এই পরিস্থিতিতে আমাদের সাহায্যের জন্য এগিয়ে এসেছেন হৃত্বিক রোশন। পাশাপাশি তিনি কিছু পাপারাজ্জিদের নিম্নবিত্ত পরিবারের পাশে দাঁড়িয়েছেন। অনেক অভিনেতাই এই পরিস্থিতিতে ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির পাশে দাঁড়িয়েছেন। তবে আমরা ফটোগ্রাফাররা কোনও ফিল্ম বা ট্রেড ইউনিয়নের আওতাভুক্ত নই বলে কোনও সাহায্যই আমরা পাচ্ছিলাম না। তবে ধন্যবাদ হৃতিককে আমাদের পাশে দাঁড়ানোর জন্য।”

 
 
 
 
 
View this post on Instagram
 
 
 
 
 
 
 
 
 

The entire world is right now in crisis, there was already the issue of downturn due to which there were salary cuts, jobs were at stake and media houses were shutting down. Now with this virus it has devastated all of us. I have a huge team on the ground which works tirelessly to capture the celebrities. But now with this crisis my only source income has stopped and it has become extremely difficult to keep my family as well as 15 plus families who were all supported on the income I generated through subscription of my pictures and the paid posts of my Instagram. In such dire straits actor Hrithik Roshan on his own came forward and supported the paps who hail from lower middle class families. I’m really grateful to Hrithik for helping us in our crisis time. Many other actors have come forward and supported the film industry, but since we do not belong to any film association or trade union – we could not get the benefit which many other leading actors have come forward and announced. 🙏 #hrithikroshan

A post shared by Viral Bhayani (@viralbhayani) on

[আরও পড়ুন: ‘জঘন্য অপরাধ’, করোনা মোকাবিলায় পুলিশের উপর আক্রমণের প্রতিবাদে সরব আয়ুষ্মান]

 

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement