১২ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

‘জঘন্য অপরাধ’, করোনা মোকাবিলায় পুলিশের উপর আক্রমণের প্রতিবাদে সরব আয়ুষ্মান

Published by: Sandipta Bhanja |    Posted: April 15, 2020 2:45 pm|    Updated: April 15, 2020 2:45 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মারণ ভাইরাসের সম্মুখীন হয়ে দিনরাত প্রাণপাত করে নিজেদের জীবনের ঝুঁকি নিয়ে লড়ে যাচ্ছেন জরুরী পরিষেবার সঙ্গে যুক্ত কর্মীরা। COVID-19 মোকাবিলায় যেভাবে চিকিৎসকদের পাশাপাশি পুলিশেরাও ঝাঁপিয়ে পড়েছেন, তা সত্যিই সাধুবাদ জানানোর মতো। গোটা দেশবাসী যখন হোম কোয়ারেন্টাইনে। তখন ওঁদের কিন্তু ছুটি নেই! পরিবার পরিজন ছেড়ে সদা কর্তব্যে অবিচল ওঁরা। দেশের সেবায়, দশের স্বার্থে যাঁরা এভাবে লড়ে যাচ্ছেন, তাঁদেরকেই কিনা হেনস্তার শিকার হতে হচ্ছে সাধারণ মানুষের হাতে! এই দুঃসময়ে দেশজুড়ে পুলিশের উপর আক্রমণের যে একাধিক ঘটনা প্রকাশ্যে এসে চলেছে একের পর এক, তার প্রতিবাদেই এবার গর্জে উঠলেন অভিনেতা আয়ুষ্মান খুরানা।

“দেশের বিভিন্ন জায়াগায় পুলিশ এবং নিরাপত্তা কর্মীরা যেরকম জঘন্য হামলার শিকার হচ্ছেন, প্রতিদিন সেসব খবর পড়ে আমি রীতিমতো স্তম্ভিত! নিজেদের প্রাণের ঝুঁকি নিয়ে ওঁরা প্রত্যেকদিন কাজ করে চলেছেন, শুধুমাত্র আমাদের সুরক্ষিত রাখার জন্য। আমাদের পরিবার, বন্ধু-বান্ধব, স্বজনরা যাতে সুরক্ষিত থাকে সেইজন্যে। আর তাঁদের উপর এরকম আক্রমণের তীব্র নিন্দা করছি আমি। ওঁরা নিজেদের কথা ভাবার আগে আমাদের এবং আমাদের পরিবারের কথা ভাবছে। আর ওঁরা যেভাবে আমাদের সুরক্ষার জন্য লড়ে চলেছে, ওঁদের শ্রদ্ধা করুন। প্রত্যেকটি দেশবাসীর উচিত পুলিশবাহিনিকে কুর্নিশ জানানো”, মন্তব্য আয়ুষ্মান খুরানার।

দিন কয়েক আগেই পঞ্জাবের পাতিয়ালায় কর্তব্যরত এক পুলিশের হাত কেটে নেওয়া হয়েছে। লকডাউনের মাঝেও কেন গাড়ি নিয়ে বের হয়েছে, প্রতিবাদ করায় কর্তব্যরত পুলিশ অফিসারের হাত কেটে নিয়েছে সেই গাড়ির চালক। এছাড়াও ভোপাল, কটক, আহমেদাবাদের মতো একাধিক জায়গায় পুলিশেরা গনপিটুনির শিকার হয়েছেন।

[আরও পড়ুন: ‘মোদিজি যারা মরতে চাইছে, মরতে দিন’, বান্দ্রার বিক্ষোভ নিয়ে বিস্ফোরক কঙ্গনার বোন রঙ্গোলি]

COVID-19 মোকাবিলায় গোটা দেশ যখন সচেতনতার চাদরে মুড়েছে তখন পুলিশকর্মীদের ছুটি নেই। সদা কর্তব্যে অবিচল। কখনও কোনও রোগিকে হাসপাতালে পৌঁছে দিচ্ছেন তো আবার কখনও বা কোনও সার্জেন্টকে দেখা যাচ্ছে অভুক্তদের মুখে খাবার তুলে দিতে। আবার কখনও বা হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা মানুষগুলির মনোবল বৃদ্ধিতে রাস্তায় নেমেছেন মাইক হাতে। গানের মাধ্যমেই সচেতনতা প্রচার চালাচ্ছেন। আমার কিংবা আপনাদের মতো ওঁদেরও পরিবার রয়েছে, কিন্তু আমাদের মতো কোয়ারেন্টাইনে গৃহবন্দি থাকতে পারছেন না। সময় কাটাতে পারছেন মা-বাবা, স্ত্রী-সন্তানদের সঙ্গে। কারণ একটাই! জনগণের সেবার জন্যে। দেশের স্বার্থে, দশের স্বার্থে উদয়াস্ত কর্তব্যে অবিচল থাকা সেই পুলিশদের উপর আক্রমণের প্রতিবাদেই এবার মুখ খুললেন আয়ুষ্মান।   

[আরও পড়ুন: গৃহবন্দি থেকেই অভিনব ভাবনা, নিজের ইউটিউব চ্যানেল নিয়ে আসছেন সলমন খান]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement