BREAKING NEWS

২ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

করোনা নিয়ে কড়া সতর্কতা বলিউড-টলিউডে, শুটিং বন্ধের জেরে বড়সড় আর্থিক ক্ষতির সম্ভাবনা

Published by: Sandipta Bhanja |    Posted: March 15, 2020 8:23 pm|    Updated: March 15, 2020 8:23 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: করোনা নিয়ে কড়া সতর্কতা জারি এবার বলিউডে। আগামী ৩১ মার্চ অবধি বন্ধ বলিপাড়ার সমস্ত শুটিং। সিনেমা, ওয়েবসিরিজ হোক কিংবা ধারাবাহিক, যাবতীয় শুটিংয়ের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি হল রবিবার। আগামী ১৯ তারিখ অর্থাৎ বৃহস্পতিবার থেকে বলিউডের সমস্ত সেটে লাগু হবে এই নির্দেশিকা। রবিবার মুম্বইয়ের সিনেমা সংগঠনগুলির বৈঠকের পরই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। আগামীকাল থেকেই এই নির্দেশিকা এসে পৌঁছতে পারে টলিউডেও, সেকথা জানা গিয়েছে।

সর্বভারতীয় সংবাদ সংস্থা সূত্রে খবর, ইন্ডিয়ান মোশন পিকচার্স প্রোডিউসর্স অ্যাসোসিয়েশন (IMPPA), ফেডারেশন অফ ওয়েস্টার্ন ইন্ডিয়া সিনে এমপ্লয়িজ এবং ইন্ডিয়ান ফিল্ম অ্যান্ড টেলিভিশন ডিরেক্টর্স অ্যাসোসিয়েশন-এর তরফে রবিবার বৈঠক ডাকা হয়েছিল। সেই বৈঠকেই   গোটা মার্চজুড়ে শুটিং বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। বলিউডের সঙ্গে সঙ্গে করোনার ধাক্কা টালিগঞ্জের স্টুডিওপাড়াতেও। দেশজুড়ে যেখানে শুটিং বন্ধের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে, সেখানে যখন ইন্ডিয়ান মোশন পিকচারসের অন্তর্ভুক্ত ইস্টার্ন মোশন পিকচারস, তখন টলিউডেও যে শুটিং বাতিল করা হবে খুব শীঘ্রই, তা বলাই যায়।

যদিও ফেডারেশন অব সিনে টেকনিশিয়ানস অ্যান্ড ওয়ার্কার্স অব ইস্টার্ন ইন্ডিয়া’র সভাপতি স্বরূপ বিশ্বাসের কথায়, কাল তাঁরা মিটিংয়ে বসবেন। মুম্বই থেকে ইন্ডিয়ান মোশন পিকচার্স প্রেসিডেন্ট ফোন করেছিলেন তাঁকে। পাশপাশি তিনি এও জানিয়েছেন যে, প্রযোজক-পরিচালকদের সঙ্গে আলোচনা করবেন তিনি। হঠাৎ শুটিং বন্ধ হলে টেকনিশিয়ান, আর্টিস্ট, সবাই সমস্যায় পড়বেন, তাই সবাইকে সময় দিতে হবে।

[আরও পড়ুন: করোনা আতঙ্কে ছেদ পড়ল রেওয়াজে, ‘জলসা’র বাইরে ভক্তদের না আসার আরজি বিগ বি’র]

আর্টিস্ট ফোরামের কার্যকরী সভাপতি শঙ্কর চক্রবর্তী জানান, সারা ভারতে যখন শুটিং বন্ধ তখন আমাদেরও শুটিং বন্ধ রাখতে হবে, বলে মনে করছি। আপাতত আলোচনা চলছে। সিদ্ধান্ত নিলে জানিয়ে দিতে পারব। অরিন্দম গঙ্গোপাধ্যায়ের কথায়, আমরা এখনও অবধি নির্দেশিকা পাইনি কিছু। প্রিয়া এন্টারটেইনমেন্টের কর্তা অরিজিৎ দত্ত বললেন, “আমার মনে হয় না এত প্যানিক করা উচিত। কারণ, আমরা এখনও তুলনামূলক ভালো পরিস্থিতিতে রয়েছি।” 

প্রসঙ্গত, দক্ষিণী ইন্ডাস্ট্রিতেও কালকের মধ্যে নির্দেশিকা চলে যাবে, জানালেন ফিল্ম ফেডারেশন অব ইন্ডিয়ার সভাপতি ফিরদৌসল হাসান। তাঁর কথায়, “ইম্পার সঙ্গে কথা হয়নি। মোশারেফ করিমের সঙ্গে আমার নিজের ছবির শুটিং বাতিল করেছি। কালই উনি বাংলাদেশ ফিরে যাচ্ছেন।” 

করোনার জেরে যে অন্যান্য ক্ষেত্রের পাশাপাশি বিনোদুনিয়াও জোর ধাক্কার সম্মুখীন হতে চলেছে অদূর ভবিষ্যতে, তার ইঙ্গিত সুস্পষ্ট! করোনা ত্রাসে একাধিক ছবির শুটিংও বাতিল হয়েছে। শিডিউল থেকে বাদ পড়েছে প্রচুর লোকশন। এক্ষেত্রে নির্মাতাদের আগাম বুকিংয়ের টাকাও জলে। সিনেমা হলগুলিও যখন লোকসানের ভয়ে বন্ধ হওয়ার পথে, তখন টলিপাড়ার অন্দরেও যে আংশিক হলেও এর প্রভাব পড়বে তা বলাই বাহুল্য। 

[আরও পড়ুন: রাতের কলকাতায় সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের বায়োপিকের শুটিংয়ে যিশু সেনগুপ্ত ]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement